BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘ডায়েট চার্ট বদলে করোনা প্রতিরোধ করুন’, পরামর্শ ব্রিটেনের ভারতীয় চিকিৎসকের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 3, 2020 1:51 pm|    Updated: May 3, 2020 1:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্যাকেটজাত খাদ্যদ্রব্যের উপর অতিরিক্ত নির্ভরশীল? মাপজোক না করে ভাত এবং রুটি খেয়ে ফেলছেন? অথবা অতিরিক্ত ভাজাভুজি? সাবধান। কোমরের চারপাশে অতিরিক্ত মেদ জমছে? রক্তে শর্করার মাত্রা একটু একটু বাড়ছে? খুব সাবধান। এসবের যোগফলই আপনার শরীরকে করে তুলছে নোভেল করোনা ভাইরাসের একেবারে আদর্শ বাসস্থান। উচ্চ রক্তচাপ, ডায়বেটিস এবং সর্বোপরি অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাসের হাত ধরেই কিন্তু COVID-19 ধীরে ধীরে জীবনের শেষ দিনগুলোর দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

তাই করোনা ভাইরাসের সঙ্গে যুঝতে হলে ভারতীয়দের ডায়েট চার্টে বড়সড় বদল আনা দরকার। এমনই পরামর্শ দিচ্ছেন লন্ডনের ভারতীয় বংশোদ্ভূত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অসীম মালহোত্রা। তিনি নিজের ব্রিটেনের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের সঙ্গে যুক্ত। নিজের পেশাদারি অভিজ্ঞতা থেকেই ভারতীয়দের প্রতি এই বার্তা তাঁর।

[আরও পড়ুন: করোনা চিকিৎসায় আলো দেখাতে পারে ফ্যামোটিডিন অ্যান্টাসিড! দাবি বিশেষজ্ঞদের]

দেশবাসীর অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপনের জেরেই ভারতের মাটি আরও কামড়ে ধরার পক্ষে সহায়ক হয়ে উঠছে COVID-19 এর পক্ষে। ডা. অসীম মালহোত্রার মতে, রোজকার খাবারের তালিকা থেকে অবিলম্বে বাদ দিতে হবে। গ্লুকোজ, কার্বোহাইড্রেট একেবারে ন্যূনতম পরিমাণে গ্রহণ করতে হবে। কারণ, এই দুটিই সুগার বিশেষত টাইপ টু ডায়বেটিসের জন্ম দেয়। যা কিনা শরীরে করোনার গতিপথ আরও প্রশস্ত করে, তার ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপের সুবিধা করে। তাই এই সব যত দ্রুত সম্ভব বর্জন করার পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: আইসক্রিম খেলে করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা বেড়ে যায়? কী বলছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা?]

বছর বিয়াল্লিশের এই ভারতীয় চিকিৎসকের আপাতত লক্ষ্য, করোনা প্রতিরোধে সঠিক এবং নিয়ন্ত্রিত জীবনযাত্রার কী ভূমিকা, সে বিষয়ে বিশ্ববাসীকে সতর্ক করা। এই লক্ষ্যেই তিনি একাধিক পরামর্শ দিয়েছেন। ‘এলিফ্যান্ট ইন দ্য রুম’ – বহুল প্রচলিত এই বাগধারা ব্যবহার করে তিনি বোঝাতে চেয়েছেন, স্থূলতা এবং অতিরিক্ত দৈহিক ওজনই সর্বনাশের মূল কারণ। ভারতবাসী নিজেদের জীবনযাত্রার কারণেই অনেক রোগের শিকার হন বলে মনে করেন ডা. অসীম মালহোত্রা। যদিও প্রায় একই ধরনের সমস্যা তিনি দেখেছেন আমেরিকা এবং ব্রিটেনে বসবাসকারী মানুষজনের ক্ষেত্রে। রান্না করে যে কোনও খাবার খাওয়া যেতেই পারে, এমনকী রেড মিট বা অন্যান্য প্রাণীজ প্রোটিনের ক্ষেত্রে বাধা নেই। তবে প্যাকেটজাত খাদ্যদ্রব্যে থাকা অস্বাস্থ্যকর তৈল পদার্থ শরীরের বেশি ক্ষতি করে বলে সাবধান করছেন এই চিকিৎসক।

Waist

আরও একটি বিষয়ে তিনি নজর রাখার পরামর্শ দিচ্ছেন। কোমরের চারপাশে মেদবাহুল্য। তা নজরে পড়লেই সঙ্গে সঙ্গে ঝরিয়ে ফেলতে হবে। তা হলে শারীরিক ওজনও অনেকটা ঠিক রাখা সম্ভব। সুতরাং, ডাক্তারবাবুর পরামর্শ মেনে আজ থেকেই নিজেদের ডায়েট চার্টে একটু আধটু বদল আনুন। করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আপনাকে হারায় কে?

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement