BREAKING NEWS

১১ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  সোমবার ২৫ মে ২০২০ 

Advertisement

সহজ উপায়ে করোনা আবহে নিজের বাড়িকে রাখুন জীবাণুমুক্ত, রইল টিপস

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 3, 2020 5:43 pm|    Updated: April 4, 2020 8:41 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা রুখতে সামাজিক দূরত্বের কোনও বিকল্প নেই। তাই টানা ২১ দিন লকডাউনের কথা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। বাড়িতে কাজে আসছেন না পরিচারিকারাও। তাই বাধ্য হয়ে পরিবারের সদস্যরাই বাড়ি পরিষ্কার রাখার দায়িত্ব নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়েছেন। কিন্তু মারণ ভাইরাস দেশে থাবা বসানোর সময় শুধু ঘর ঝাড়ু দেওয়া কিংবা জল দিয়ে মোছাই যথেষ্ট নয়। এই সময়ে নিজের এবং প্রিয়জনদের সুস্থতার জন্য প্রয়োজন বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন। কিন্তু কীভাবে বাড়িকে জীবাণুমুক্ত রাখবেন, তা বুঝতে পারছেন না তো? এত ভাবনাচিন্তার কিছু নেই। পরিবর্তে হাতের কাছে থাকা কিছু সামগ্রী দিয়েই বাড়িতে সুরক্ষিত রাখা সম্ভব। আপনার জন্য রইল টিপস।

আপনি প্রতিদিন একবার করে নিশ্চয়ই ঘর মোছেন। ওই ঘর মোছার জলের বালতিতে বেশ কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ফেলে দিন। এবার তা দিয়ে ঘর মুছে নিন। ঘরের দুর্গন্ধ কাটবে। দেখবেন ফুরফুরে সুগন্ধে ভরে গিয়েছে চতুর্দিক। লেবুর রস দিয়ে মুছলে বাড়ির ঔজ্জ্বল্যও ফিরবে খুব তাড়াতাড়ি।
Lemon
লকডাউনের জন্য দিনের বেশিরভাগ সময়ই কাটছে বাড়িতে। তাই এই ২১ দিন নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য সবার প্রথম বাড়িকে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। তাই ঘর মোছার জলে ভিনিগার ব্যবহার করুন। তাতে দেখবেন আপনার বাড়িতে মশা, মাছির উপদ্রবও কমবে। ভিনিগার আপনার বাড়ির মেঝেতে থাকা টাইলস আরও পরিষ্কার করবে।
Vinegar

[আরও পড়ুন: করোনা থেকে বাঁচার নয়া দাওয়াই, বাজারে এল ভাইরাস প্রতিরোধক ম্যাট্রেস!]

সামান্য গরম জল দিয়েও বাড়ির মেঝে পরিষ্কার করতে পারেন। তাতেই আপনার বাড়িকে জীবাণুমুক্ত করা সম্ভব। কিন্তু কীভাবে গরম জল দিয়ে বাড়ি পরিষ্কার করবেন, তা বুঝতেন পারছেন না তো? প্রথমে একটি পাত্রে জল নিন। এবার ভাল করে তা গরম করে নিন। ঘরের দরজা, জানলা বন্ধ করুন। ভাল করে ওই গরম জল দিয়ে ঘর মুছে নিন। তাতেই দেখবেন আপনার ঘর জীবাণুমুক্ত হয়ে গিয়েছে।
Boiled Water
একে মরশুম বদলের সময়। তাই এই সময়ে জ্বর, সর্দি, কাশির মতো সমস্যা লেগেই থাকে। তার উপর আবার দেশে থাবা বসিয়েছে মারণ করোনা ভাইরাস। তাই এই পরিস্থিতিতে বাড়িতে থাকুন। অযথা আতঙ্কিত না হয়ে সুস্থ থাকুন। 

[আরও পড়ুন: আপনি রাতজাগা পাখি? শোওয়ার ঘরের সাজসজ্জার বদলেই হবে মুশকিল আসান]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement