Advertisement
Advertisement
Nadia

দিনের প্রথম খাবারে কামড় দিতেই অসহ্য যন্ত্রণা! অদ্ভুত রোগের শিকার নদিয়ার যুবক

সারাপৃথিবী জুড়ে 'ফার্স্ট বাইট সিন্ড্রোমে' আক্রান্ত এখনও পর্যন্ত মাত্র ছজন। নদিয়ার এই যুবক সপ্তম।

Nadia man suffering from first bite problem, only seventh case in the world
Published by: Tiyasha Sarkar
  • Posted:May 13, 2024 12:56 pm
  • Updated:May 13, 2024 12:56 pm

অভিরূপ দাস: মাংস খেতে পারছেন। মেরি বিস্কুট নয়। আজব অসুখে আক্রান্ত নদিয়ার দেবব্রত বিশ্বাস (৪০)। এমনিতে কোনও সমস‌্যা নেই। দিনের শুরুতে প্রথম কোনও খাবারে কামড় দিতে গেলেই সমস‌্যা! কান, দু’পাশের চোয়াল ঝন ঝন করছে ব‌্যাথায়। এসএসকেএম হাসপাতালে ইএনটি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মৈনাক মৈত্রর শরণাপন্ন হন যুবক। রোগীকে পরীক্ষা করে তাজ্জব চিকিৎসকও।

সারাপৃথিবী জুড়ে ইডিওপ‌্যাথিক ফার্স্ট বাইট সিন্ড্রোমের মাত্র ছ’টি কেস রয়েছে। চিকিৎসকের দাবি, সে হিসেবে দেবব্রত সপ্তম আশ্চর্য। সমস‌্যার শুরু মাস চারেক আগে থেকে। রোগী জানিয়েছেন, ব্রেকফাস্ট করতে গিয়ে একদিন সবে একটা বিস্কুটে কামড় দিয়েছে। ব‌্যাস, দশ/পনেরো সেকেন্ডের জন‌্য মারাত্মক ব‌্যাথা। সেই শুরু। এর পর থেকে দিনের প্রথম খাবারে কামড় দিতে গেলেই কান আর জুলফির সংযোগস্থলে অসহ‌্য ব‌্যাথা। ফার্স্ট বাইট সিন্ড্রোম বিরল অসুখ। চিকিৎসক জানিয়েছেন, সাধারণত যাদের গলায় অথবা প‌্যারোটিড গ্ল‌্যান্ড বা হেড নেক ক‌্যানসারের অস্ত্রোপচার হয়েছে, তাঁদের পরবর্তী পর্যায় এ উপসর্গ দেখা যায়।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ভোটের আগে অস্বস্তিতে দেব! সহকারীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ, হাই কোর্টে দায়ের মামলা]

সেখানেই চমক। দেবব্রতবাবুর কোনওরকম কোনও অস্ত্রোপচার হয়নি। যে ফার্স্ট বাইট সিন্ড্রোমের নেপথ্যে কোনওরকম কারণ পাওয়া যায় না তা ইডিওপ‌্যাথিক ফার্স্ট বাইট সিন্ড্রোম। এই ইডিওপ‌্যাথিক ফার্স্ট বাইট সিন্ড্রোমের বিরলের মধ্যে বিরলতম। চিকিৎসকের দাবি, পৃথিবীজুড়ে এর আগে মাত্র ছ’জনের ইডিপ‌্যাথিক এফবিএস রিপোর্ট নথিভুক্ত হয়েছে। প্রথম ২০১০ সালে এই রোগীর হদিশ পাওয়া যায় জাপানে। নতুন কেসটি সারা পৃথিবীর মধ্যে সপ্তম কেস হতে চলেছে, বলেই মনে করছেন চিকিৎসক।

Advertisement

আপাতত রোগীকে নিউরোলজিকাল ব‌্যাথা কমানোর ওষুধ দেওয়া হয়েছে। ডা. মৈত্রর কথায়, সাধারণ ব‌্যাথানাশক ট‌্যাবলেটে এক্ষেত্রে কাজ হবে না। রোগী প‌্যারোটিড গ্ল‌্যান্ডের আল্ট্রাসোনোগ্রাফি এবং নেক সিটিস্ক‌্যান করানোর পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসক। চিকিৎসকরা বলছেন, এই ফার্স্ট বাইট সিন্ড্রোমের ক্ষেত্রে ব‌্যাথা হয় মুখের প্রঅরিকুলার রিজিয়নে। কান আর জুলফির সংযোগস্থলকে বলা হয় প্রিঅরিকুলার রিজিয়ন। সাধারণত অস্ত্রোপচার হলেই এ ব‌্যাথা হয়। চিকিৎসকরা বলছেন, ‘আপার নেক’ অথবা গলার উপরের অংশে অস্ত্রোপচারের জন‌্য এ অসুখ দেখা যায়। সার্ভিকাল লিম্ফ নোড বাদ দেওয়ার পরেও এ ব‌্যাথা শুরু হয়েছে কারও কারও। তারও কারণ রয়েছে। প্যারোটিড গ্রন্থি অত‌্যন্ত অনুভূতিশীল। কিন্তু অস্ত্রোপচারের পর সেই অনুভূতি নষ্ট হয়ে যায়। যার ফলে প্রথম কামড়ে গুরুতর প্যারোটিড গ্রন্থি-অঞ্চলে ব্যথার বিকাশ ঘটে। কিন্তু এক্ষেত্রে দেবব্রতবাবুর ব‌্যাথা হচ্ছে কেন? সেটাই আপাতত গবেষণার বিষয় চিকিৎসকদের।

[আরও পড়ুন: ‘কেউ নাগরিকত্ব খোয়ালে আমি থুতু চাটব’, CAA নিয়ে চ্যালেঞ্জ মিঠুনের]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ