২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৯ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কথায় আছে, মেয়েদের বোঝা সহজ নয়। নিন্দুকরা আবারও এও বলেন, মেয়েরা নাকি সম্পর্ক থেকে তাড়াতাড়ি বেরিয়ে যায়। সম্পর্কের মর্ম বোঝে না তারা। তাই তো সাধ মিটে গেলেই সরে যায়। এমনকী যারা বিবাহিত, তারাও স্বামীর সঙ্গে সারা জীবন থাকায় বিশ্বাসী নয়। সমীক্ষা বলছে, সবাই না হলেও ৭৭ শতাংশ মহিলা প্রেমিক বা স্বামীকে প্রতারণা করে। আর এদের মধ্যে বেশিরভাগই প্রতিবেশীর সঙ্গে পরকীয়ায় জড়ায়।

একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, পরকীয়ার জন্য অনেক ডেটিং অ্যাপ রয়েছে। সেই ডেটিং অ্যাপে ক্রমশ ভিড় বাড়ছে। এমনই একটি অ্যাপে নাকি এখন সদস্য সংখ্যা ৬ লক্ষ ছাড়িয়েছে। সদস্যদের মধ্যে বেশিরভাগেরই বয়স ৩৪ থেকে ৩৯। এদের মধ্যে আবার মহিলার সংখ্যাই বেশি। কিন্তু বিবাহিত মহিলারা কেন পরপুরুষের প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছেন? তবে কি সংসারে অশান্তি? সমীক্ষা কিন্তু সে কথা বলছে না। জানা গিয়েছে, এর পিছনে অন্য কারণ রয়েছে।

[ আরও পড়ুন: উদ্দাম যৌনতায় খাটই ভেঙে ফেললেন তরুণী! ক্ষতিপূরণের দাবি মায়ের ]

সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, ৭৭ শতাংশ মহিলারা তাদের স্বামীদের প্রতারণা করে। কারণ তারা তাদের একঘেয়ে জীবন থেকে খানিক বিরতি চায়। সেই কারণেই পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে তারা। কেউ কেউ তো একঘেয়েমি কাটাতে সমকামীও হয়ে যায় বলে গবেষণায় প্রকাশ পেয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট ৩৭৭ ধারা তুলে দেওয়ার পর সমকামিতা এখন অবাধ। তাই কোনও মহিলার সঙ্গে বিছানা শেয়ার করা নিয়ে আর ছুঁৎমার্গ নেই এখন। সমকামিতার মধ্যে নতুনত্ব খোঁজে মহিলারা। যদিও এ ব্যাপারে পুরুষরাও পিছিয়ে নেই। তবে মহিলাদের সংখ্যাই এক্ষেত্রে বেশি।

বেঙ্গালুরু, মুম্বই ও কলকাতার মতো দেশের তিনটি বড় মেট্রোপলিটন শহরে এই প্রবণতা বেশ বেশি। সমীক্ষায় এও জানা গিয়েছে, ৩১ শতাংশ মহিলা তাদের প্রতিবেশীর সঙ্গেই সম্পর্কে জড়ায়। ৫২ থেকে ৫৭ শতাংশ মহিলারা বিজনেস ট্রিপের সময় তাদের স্বামী বা প্রেমিকদের প্রতারণা করে। অন্য পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ায় তারা। সমীক্ষা এও বলছে, পুরুষ হোক বা মহিলা, ভারতীয় মাত্রই এখন মুক্তমনা। ক্রমশ ‘ওপেন রিলেশনশিপ’ ঢুকে যাচ্ছে ভারতীয় সমাজে। সেক্স নিয়ে ছুঁৎমার্গ অনেক কমে গিয়েছে। ভবিষ্যতে আরও কমবে। বিয়ের পরও সুখ খুঁজতে অন্য পুরুষ বা মহিলার সঙ্গে সম্পর্কে লিপ্ত হওয়া হয়তো আরও কয়েক বছর পর থেকে হয়ে যাবে অবাধ।  

[ আরও পড়ুন: প্রথমবার যৌন মিলনের অভিজ্ঞতা কেমন, সমীক্ষায় ফাঁস চাঞ্চল্যকর তথ্য ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং