২ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

২ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিল। এবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলল আমাজন। চিন থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নিতে চলেছে জনপ্রিয় এই ই-কমার্স সাইটটি। অর্থাৎ এই দেশে আমাজন থেকে আর অনলাইন শপিং করতে পারবেন না ক্রেতারা।

আগামী ১৮ জুলাই থেকে ই-কমার্স মার্কেটপ্লেসের ব্যবসা বন্ধ করছে আমাজন। তবে সে দেশে নিজেদের অন্যান্য ব্যবসা চালিয়ে যাবে কোম্পানিটি। আমাজন ওয়েব সার্ভিস, কিন্ডল ই-বুক এবং ক্রস-বর্ডার অপারেশনের মতো ব্যবসাগুলি আগের মতোই বহাল থাকবে চিনে। কিন্তু কেন এমন সিদ্ধান্ত? জানা গিয়েছে, সে দেশে ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে স্থানীয় অনলাইন শপিং ওয়েবসাইটগুলি। আলিবাবা, JD.com, Pinduoduo-এর মতো সাইটগুলির সঙ্গে লড়াইয়ে অনেকটাই পিছিয়ে পড়ছে আমাজন। পন্য সামগ্রী কেনার ক্ষেত্রে দেশীয় সাইটেই বেশি ভরসা রাখছেন ক্রেতারা। ফলে প্রতিনিয়ত ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে আমাজনকে। সেই কারণেই চিনে দীর্ঘ ১৫ বছরের ব্যবসায় ইতি টানতে চলেছে এই মার্কিন সংস্থা। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে আমাজনের তরফে জানানো হয়েছে, চিনে তাদের ওয়েবসাইট Amazon.cn নামে রয়েছে। বিক্রেতাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ১৮ জুলাইয়ের পর থেকে এই সাইট থেকে আর কোনও পরিষেবা পাওয়া যাবে না।

[আরও পড়ুন: বন্ধ হওয়ার পরও ভারতে একশো কোটি বিনিয়োগ করছে ‘টিকটক’]

ভারতে আমাজন রমরমিয়ে ব্যবসা করলেও পরিসংখ্যাই বলে দিচ্ছে, চিনে মুখ থুবড়ে পড়েছে তারা। ২০১৮-র জুলাইয়ে প্রকাশিত এজেন্সি ডেটা অনুযায়ী, চিনে ই-কমার্স সাইটের মোট ব্যবসার মধ্যে শুধু আলিবাবারই আধিপত্য ৫৮.২ শতাংশ। তারপরই রয়েছে JD.com। ১৬.৩ শতাংশ ব্যবসা তাদের। Pinduoduo-এর ব্যবসা ৫.২ শতাংশ। আমাজনের ব্যবসা সেখানে রীতিমতো ধুকছিল। ফলে ব্যবসা গোটানোর সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হল তারা। তবে ১৮ জুলাইয়ের পরও চিনের বাসিন্দারা আমাজন থেকে শপিং করার সুযোগ পাবেন। কীভাবে? সেক্ষেত্রে আমেরিকা, ব্রিটেন, জার্মানি এবং জাপানের আমাজন থেকে জিনিসপত্র অর্ডার করতে পারেন ক্রেতাদের।

[আরও পড়ুন: সাবধান! ফেসবুক থেকে ফাঁস হতে পারে আপনার ইনস্টাগ্রামের পাসওয়ার্ডও]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং