১০ ফাল্গুন  ১৪২৬  রবিবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১০ ফাল্গুন  ১৪২৬  রবিবার ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অতীত থেকে শিক্ষা নেয়নি। আর সেই কারণে ফের বিতর্কে জড়াল আমাজন ইন্ডিয়া। শিখ ধর্মাবলম্বীদের ভাবাবেগে আঘাত দিয়ে তীব্র বিতর্কের মুখে পড়তে হল বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ এই ই-কমার্স সংস্থাকে। ইতিমধ্যেই কোম্পানির বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

এবার কী কাণ্ড ঘটাল আমাজন (Amazon)? আসলে এই অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্মে বিক্রি করা হচ্ছে টয়লেট ম্যাট। যেখানে ফুটে উঠেছে অমৃতসরের স্বর্ণমন্দিরের ছবি। গুরুদ্বারের ছবি দিয়ে এভাবে টয়লেট ম্যাটের (পাপোশ) বিক্রি কোনওভাবেই মেনে নিতে পারছেন না শিখরা। এভাবে তাঁদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করা হচ্ছে বলেই অভিযোগ জানাচ্ছেন সেই সম্প্রদায়ের মানুষরা। আমাজনে দেওয়া প্রোডাক্টের ছবিতে দেখা যাচ্ছে, শৌচালয়ে, কমোডের সামনেই রাখা সেই পাপোশ। টয়লেট ম্যাট হিসেবেই ব্যবহার করা হচ্ছে সেটি। কমোডের ঢাকনাতেও একই ছবি।

[আরও পড়ুন: মূক ও বধিরদের জন্য বিশেষ স্মার্টফোন তৈরি করে নজির গড়লেন কালনার বাসিন্দা]

Amazon

দিল্লি শিখ গুরুদ্বার ম্যানেজমেন্ট কমিটির (DSGMC) প্রধান মনজিন্দর সিং সিরসা এমন কাণ্ডকারখানার তীব্র নিন্দা করে ইতিমধ্যেই আমাজন ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন। টুইটারে তিনি লেখেন, “শিখদের ভাবাবেগ নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছে আমাজন।” টয়লেট ম্যাট বিক্রেতাকে ব্যান করার দাবিও জানিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে এই ঘটনার জন্য গোটা বিশ্বের কাছে আমাজনকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুলেছেন।

তবে এই প্রথম নয়। এর আগেও একাধিকবার ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করে বিতর্কের সম্মুখীন হয়েছে আমাজন ইন্ডিয়া। ২০১৮-তে এই অনলাইন সাইটে দেদার বিক্রি হয়েছিল স্বর্ণমন্দিরের ছবি দেওয়া পাপোশ। এছাড়াও শৌচালয়ে ব্যবহার করার নানা জিনিসেও ছিল স্বর্ণমন্দিরের ছবি। তখনও সমালোচিত হয়েছিল আমাজন। বিক্ষোভের মুখে পড়ে সেই সব পণ্য ওয়েবসাইট থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছিল। কিন্তু ফের এই শপিং প্ল্যাটফর্মে একই ঘটনা ঘটায় ক্ষুব্ধ শিখ ধর্মাবলম্বীরা।

[আরও পড়ুন: চিড়িয়াখানায় পৌঁছতেই অ্যাপ জানাবে কোথায় লুকিয়ে কোন প্রাণী, জানেন কীভাবে?]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং