BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০ 

Advertisement

করোনা রুখতে কেরলে রোবটই ভরসা, বিলোচ্ছে মাস্ক-স্যানিটাইজার, দিচ্ছে সচেতনতার পাঠ

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 18, 2020 1:49 pm|    Updated: March 18, 2020 1:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আক্রান্তের সংস্পর্ষে কেউ এলেই তার মধ্যে ছড়াচ্ছে নভেল করোনা ভাইরাস। বিশেষজ্ঞরা বলছেন,নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রাখতে হবে একে অপরের থেকে। তবে হাসপাতালে যাওয়া আক্রান্ত যাত্রীদের থেকে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও প্রবল থাকছে। তাই কেরলের হাসপাতালে রোবট দিয়ে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিলি করা হচ্ছে। এভাবেই সচেতনতার পাঠ দেওয়া হচ্ছে মানুষের মধ্যে।

মহারাষ্ট্রে প্রথম করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের চিকিৎসা করেন যে চিকিৎসক পরে তাঁর শরীরেও করোনার নমুনা মেলে। তাই করোনার থাবা থেকে মুক্তি পেতে অভিনব পন্থা নিল কেরল প্রশাসন।স্বাস্থ্যকর্মীদের বদলে আসরে নামান হল রোবট-কর্মীদের। রোবট দিয়েই হাসপাতালে বিলি করা হচ্ছে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার। পাশাপাশি মানুষের মধ্যে সচেতনতার বার্তাও দেওয়া হচ্ছে রোবটের মাধ্যমেই। কেরলের সরকারি সংস্থা ‘কেরল স্টার্টআপ মিশন (KSUM)’এমন দু’টি রোবটকে কাজে লাগিয়েছে। হাসপাতালে সংক্রমণ সন্দেহে রোগীরা এলে তাদের আইসোলেশন ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া, মাস্ক, স্যানিটাইজার বিলি করা এমনকি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে রোগীদের খাবার ও প্রয়োজনীয় জিনিস পৌঁছে দেওয়ার কাজও করানো হচ্ছে এই রোবট-কর্মীদের দিয়ে। কংগ্রেস সাংসদ শশী থরুর এই ভিডিও টুইটারে পোস্ট করেছেন।

সেখানে দেখা গেছে লোকজনের মধ্যে মাস্ক বিলি করছে দু’টি রোবট। এই রোবট দুটি বানিয়েছে অ্যাসিমভ রোবোটিক্স। বর্তমানে কাজ করছে কেরল স্টার্টআপ মিশনের কমপ্লেক্সে। সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, এই রোবটদের ডেটা সিস্টেমে প্রয়োজনীয় তথ্য ভরে দেওয়া আছে। কীভাবে রোগীদের পরিচর্চা করতে হবে, বাইরে থেকে আসা লোকজনকে মাস্ক দিতে হবে সবই করতে পারছে রোবট-কর্মীরা। করোনাভাইরাস নিয়ে সচেতনতার পাঠ দিতেও কাজে লাগানো হয়েছে রোবট দুটিকে। আগামী দিনে এমন আরও রোবট নামানো হবে বলে জানিয়েছে অ্যাসিমভ রোবোটিক্স।

[আরও পড়ুন:‘সংসদও বন্ধ রাখা হোক’, ডেরেকের দাবিকে নস্যাৎ করলেন নরেন্দ্র মোদি]

চিনের ইউহান প্রদেশেও মানব চিকিৎসকদের সঙ্গে কাজ করছে রোবট কর্মীরা। সংক্রমণ কতটা হলে কী ওষুধ দিতে হবে সেটাও ভরে দেওয়া হয়েছে রোবটদের ডেটা সিস্টেমে। ৫-জি পাওয়ারের রোবট সব কাজ করতে পারে, ডাক্তারি তো বটেই। হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষী থেকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্বও তাদের হাতে। যান্ত্রিক হাত বাড়িয়ে রোগীদের নির্দ্ধিতায় ছুঁচ্ছে এই রোবটরা। শরীরের তাপমাত্রা মাপছে, ওষুধও দিচ্ছে। সময় হলেই খাবারের থালা সাজিয়ে রোগীদের সামনে হাজির করছে ডাক্তার-রোবটরা। রোগীদের জামাকাপড় কাচা, তাদের পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্বও এদেরই ওপরে। রাজ্যগুলির মধ্যে করোনা সংক্রমণে শীর্ষেই রয়েছে মহারাষ্ট্র ও কেরল।

[আরও পড়ুন:করোনা রুখতে একাধিক শহর ‘লক ডাউন’-এর আরজি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি ব্যবসায়ীদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement