১৬ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শনিবার ৩০ মে ২০২০ 

Advertisement

নারীবাদী দৃষ্টিভঙ্গিতে সিনেমা দর্শন, নয়া অ্যাপে অভিনব প্রয়াস

Published by: Tanujit Das |    Posted: April 6, 2019 3:04 pm|    Updated: April 6, 2019 3:04 pm

An Images

দীপাঞ্জন মণ্ডল, নয়াদিল্লি: সিনেমার রিভিউ তো আমরা সবাই দেখতে পাই, পড়তে পারি। এমনকী বিশেষ বিশেষ কিছু সংস্থাও রয়েছে যারা শুধুমাত্র সিনেমার সমালোচনা করে থাকে। তবে কখনও কি কোন সিনেমার শুধুমাত্র একজন মহিলার নজর দিয়ে রিভিউ হবে সেই রকম দেখা গেছে ? উত্তর না। অনেক সময়ই দেখা গেছে নানা সিনেমাতে মহিলাদের চরিত্রদের অত্যন্ত নিম্নস্তরে দেখানো হয়েছে। সেই সমস্ত সিনেমা নিয়ে আলোচনা হলেও তা হয়তো সীমিত ক্ষেত্রে। কিন্তু আর নয়। এবার একজন মহিলাও নারীবাদী দৃষ্টি দিয়েও কোন সিনেমা নিয়ে তার ভাল লাগা, খারাপ লাগা জানাতে পারবে। তবে শুধু মহিলারাই নয়, যে কেউ পারবে রিভিউ করতে। সবার জন্যই এই প্ল্যাটফর্ম। তবে সিনেমার রিভিউ হবে ‘ফেমিনিস্ট’ দৃষ্টিভঙ্গিতে। সেই রকমই এক আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মের শুক্রবার উদ্বোধন হল নয়াদিল্লিতে। নাম ‘ম্যাঙ্গো মিটার’।

[ আরও পড়ুন: অতিরিক্ত জনপ্রিয়তা নাকি ষড়যন্ত্র? ভোটের মুখে বন্ধ তৃণমূলের অ্যাপ!  ]

এই ম্যাঙ্গো মিটার হল একটি অ্যাপ্লিকেশন। রটেন টমাটোর কথা তো আমরা সকলেই জানি। রটেন টমেটোর মতোই তবে ফেমিনিস্ট দৃষ্টিতে তৈরি এটি একটি অ্যাপ। এশিয়ার কয়েকটি দেশের মহিলা সাংবাদিক, সমাজকর্মী ও শিক্ষাবিদ এবং ফ্রেডরিক এবার্ট স্টিফটাং বা এফইএস নামের এক আন্তর্জাতিক সংস্থার মিলিত প্রয়াসে তৈরি হয়েছে এই অ্যাপ। গত ফেব্রুয়ারি মাসে এই অ্যাপটি চালু হয় জাকার্তাতে। ভারতে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুক্রবার এই অ্যাপটি চালু হল। অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস উভয়ের জন্যই রয়েছে এই অ্যাপ। খুব সহজেই প্লে-স্টোরে পাওয়া যাবে অ্যাপটি। এই অ্যাপে পাওয়া যাবে বিভিন্ন সিনেমার তালিকা। সেই সিনেমার রিভিউ করা যাবে এই অ্যাপে। তবে এই অ্যাপের বিশেষত্ব হল রিভিউ হবে তা নারীবাদী দৃষ্টিভঙ্গিতে। রিভিউয়ের ক্ষেত্রে মাত্রা রাখা হয়েছে সর্বাধিক পাঁচ। তার সাথে রয়েছে বেশ কয়েকটি মন্তব্য। সেই মন্তব্যগুলির পরিপ্রেক্ষিতে করতে হবে কোন সিনেমার রিভিউ। রিভিউ এর ক্ষেত্রে মাত্রা দেওয়া যাবে সর্বনিম্ন একটি ম্যাঙ্গো এবং সর্বাধিক পাঁচ ম্যাঙ্গো।

[ আরও পড়ুন:  Google-এর বিজ্ঞাপনে ফের শীর্ষে বিজেপি, ধারে কাছে নেই কংগ্রেস ]

এই অ্যাপটি যারা তৈরি করেছেন তাদের মধ্যে ভারতের তরফে রয়েছেন মেধাভিনী নামযোশী। এফইএসের সাথে যুক্ত তিনি এবং রাজনৈতিক নারীবাদ নিয়ে কাজ করে আসছেন। ওনার কথায়, একজন মহিলাকে একটি সিনেমাতে কীভাবে দেখানো হচ্ছে তার পরিপ্রেক্ষিতেও সিনেমার রিভিউ হওয়া প্রয়োজন। কেন আমরা সবমসয় টাকা দিয়ে স্ত্রী বিরোধী এবং সেই বাঁধাধরা মহিলাদের সিনেমাতে একই ভাবে দেখানো, সেই সমস্ত সিনেমা দেখে এসেছি। সিনেমাতে মহিলাদের চরিত্র কীভাবে দেখানো হয়েছে তার পরিপ্রেক্ষতি সিনেমার রিভিউ কখনও হয় না। সুতরাং পরিবর্তন দরকার। আর সেই জন্যই তৈরি হয়েছে এই অ্যাপে। যাতে একটি সিনেমাতে একজন নারীকে কীভাবে দেখানো হচ্ছে তার পরিপ্রেক্ষিতেও সিনেমার রিভিউ করা যায়।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement