BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৬ মে ২০২০ 

Advertisement

করোনা রুখতে অভিনব পদক্ষেপ, এবার ফোনেই মিলবে সচেতনতার বার্তা

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 7, 2020 5:22 pm|    Updated: March 7, 2020 5:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করাল করোনা ধীরে ধীরে থাবা বসাচ্ছে ভারতে। সচেতনতার প্রচারে খামতি রাখতে চাইছে না কেন্দ্র। জিও বা বিএসএনএল ব্যবহারকারীদের ফোন করলেই পাওয়া যাবে সেই সচেতনতার বার্তা। কাশির মাধ্যমে শুরু হওয়া সেই বার্তা পাবেন জিও ও বিএসএনএল ব্যবহারকারীরা। এমনই অভিনব পদ্ধতি বাতলেছে কেন্দ্র।

কাউকে ফোন করে হঠাৎ খুক খুক করে কাশির শব্দে চমকে যাবেন না। এখন থেকে ফোনে কলার টিউন বা সাধারণ রিং-এর পরিবর্তে মাঝে মাঝেই শুনতে পাবেন এই কাশির শব্দ, সঙ্গে পাবেন সচেতনতার বার্তা। করোনা নিয়ে সচেতনতার প্রচার করতে সোশ্যাল মিডিয়া, সংবাদমাধ্যমগুলির মধ্যে দিয়ে একাধিক প্রচার সারলে এবার টেলিকম সংস্থাগুলিকে বেছে নিয়েছে কেন্দ্র। আজ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা হল ৩৩। জম্মু কাশ্মীরেও দুজনের করোনা আক্রান্ত হওয়ার আতঙ্কে তাদের পরীক্ষা করা হচ্ছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে একটি স্কুলও। এক স্বাস্থ্য আধিকারিক জানান, “কোভিড ১৯ (Covid-19)-এর বিস্তার রোধে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা সম্পর্কে দেশের মানুষকে সচেতন করার জন্য, কেন্দ্রীয় সরকার একটি কল-সচেতনতামূলক বার্তা দিয়েছে।

নোভেল করোনা ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়া আটকাতে কাশি বা হাঁচি দেওয়ার সময় রুমাল দিয়ে ঢেকে রাখুন মুখ। নিয়মিত ব্যবহার করুন সাবান। হাত পরিষ্কার রাখতে ব্যবহার করতে পারেন হ্যান্ড স্যানিটাইজার। হিন্দি এবং ইংরাজিতে টেলিকম সংস্থাগুলির তরফ থেকে এই বার্তা দেওয়া হচ্ছে। ওই সচেতনতা বার্তায় আরও বলা হয়েছে, “মুখ, চোখ বা নাকে হাত দেওয়া এড়িয়ে চলুন। কারও যদি কাশি, জ্বর বা শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখেন তবে তাঁর থেকে অন্তত ১ মিটার দূরত্ব বজায় রাখার চেষ্টা করুন। প্রয়োজনে অবিলম্বে নিকটস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যান”। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু (WHO) জানিয়েছে, এই রোগে গোটা বিশ্বে এক লক্ষেরও বেশি লোক সংক্রামিত হয়েছে, করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন প্রায় সাড়ে তিন হাজার মানুষ। ভারতে প্রায় ২৯ হাজার মানুষকে কড়া চিকিৎসা নজরদারিতে রাখা হয়েছে, এদেশে এখনও পর্যন্ত ৩৩ জনের দেহে ওই মারণ ভাইরাস থাকার প্রমাণ মিলেছে। তার মধ্যে আবার ১৬ জন ইটালির পর্যটকও রয়েছেন। চিনের পরেই এই মারণ ভাইরাস যেখানে সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলেছে তা হল ইটালি। সেখানে শতাধিক মানুষের মৃত্যুর খবর মিলেছে।

[আরও পড়ুন: ‘আমি আপনার মধ্যে ঈশ্বর দেখেছি’, মহিলা অনুরাগীর কথায় প্রধানমন্ত্রীর চোখে জল]

শনিবারই স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেশের হাসপাতালগুলির মধ্যে করোনা চিকিৎসার মান নিয়ে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পাশাপাশি তিনি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সকলকে সচেতন থাকার ও জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। বার বার সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নিন, রাস্তায় বেরোলে মাস্ক ব্যবহার করুন। অকারণে ভয় পাওয়ার কিছু নেই।”

[আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় নয়া উদ্যোগ, ৫০০ বেডের ব্যবস্থা করা হল হজ হাউসে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement