৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টিভিতে পছন্দের চ্যানেল দেখা যাবে তো? কড়ি ফেললেও তেল মাখা যাবে তো? এসব প্রশ্নের উত্তর এখনও পাননি ছোটপর্দার দর্শকরা। মাঝে শুধু জানা গিয়েছিল, প্রিয় চ্যানেল দেখতে এবার তেকে অনেকখানি বেশি গ্যাঁটের কড়ি খরচ করতে হবে। তবে মঙ্গলবার দর্শকদের সুখবর দিল টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া (ট্রাই)। জানিয়ে দেওয়া হল, বোকাবাক্সে চোখ রাখতে অতিরিক্ত অর্থ খরচ করতে হবে না কাউকেই।

এর আগে পছন্দের কেবল চ্যানেল বাছাইয়ের ক্ষেত্রে তিনবার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছিল৷ শেষবার জানানো হয়, ৩১ মার্চের মধ্যে নিজের পছন্দের চ্যানেল বাছাই করলেই হবে। মেয়াদ শেষের আর বেশিদিন বাকি নেই। তার আগে মঙ্গলবার ট্রাইয়ের চেয়ারম্যান আর এস শর্মা জানালেন, পছন্দের চ্যানেল দেখতে প্রতি মাসে অতিরিক্ত অর্থ দেওয়ার প্রয়োজন নেই। কারণ কেবল অপারেটররা গ্রাহককে নিজেদের সুবিধা মতো চ্যানেল বেছে নেওয়ার সুযোগ দেবে।

[আরও পড়ুন: এখনই বদলে ফেলুন ফেসবুক পাসওয়ার্ড, পরামর্শ সাইবার বিশেষজ্ঞদের]

দর্শকদের ধন্দ পরিষ্কার করতে এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়, পয়লা এপ্রিল থেকে শুধুমাত্র পছন্দের চ্যানেলের জন্য টাকা দিলেই চলবে। অপছন্দের চ্যানেল তাঁদের উপর চাপিয়ে দিয়ে অকারণ অতিরিক্ত অর্থ চাওয়া হবে না। সমস্ত ব্রডকাস্টার, ডিসট্রিবিউটার এবং কেবল অপারেটরকে নয়া নির্দেশিকা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ট্রাইয়ের চেয়ারম্যানের কথায়, ৯০ শতাংশ মানুষ নিয়মিত ৫০টিরও কম চ্যানেল চ্যানেল দেখে থাকেন। তাই আলাদা করে দাম দিলে খরচ অনেকটাই কম হবে। ফলে বেশি টাকা খরচের প্রশ্নই উঠছে না। এখন থেকে ১০০টি ফ্রি-টু-এয়ার চ্যানেলের জন্য ১৩০ টাকা দিতে হবে গ্রাহকদের। এরপর প্রত্যেকটি চ্যানেল অথবা একগুচ্ছ চ্যানেলের জন্য আলাদা করে টাকা দিতে হবে। ইতিমধ্যেই অনেকে পছন্দের চ্যানেল বেছে নিয়ে নতুন এই সিস্টেমের আওতায় ঢুকে পড়েছেন। তবে যাঁরা এখনও এই প্যাক বেছে নেননি ৩১ মার্চের মধ্যে তাঁদের মাইগ্রেট করার নির্দেশ দিচ্ছে ট্রাই। তাছাড়া ইতিমধ্যেই এই সমস্ত গ্রাহকরা অনেক পেইড চ্যানেল দেখা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

[আরও পড়ুন: বাড়িতে ওয়াই-ফাই স্লো চলছে? ব্যবহার করুন এই কয়েকটি পদ্ধতি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং