৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশুদ্ধ নিরামিষাশী। মাছ-মাংস বাড়িতে ঢুকতে দেন না। এমন মানুষকে যদি পনিরের নাম করে মুরগির মাংস পরিবেশন করা হয়, ভাবুন তো তাঁর প্রতিক্রিয়া ঠিক কেমন হবে! খানিকটা এমন ঘটনাই ঘটল এক ক্রেতার সঙ্গে। খাবার ডেলিভারির অ্যাপ Zomato থেকে পনির অর্ডার করে পেলেন মুরগির মাংস। যে কারণে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হল ওই সংস্থাকে।

[আরও পড়ুন: গতি কমেছে স্মার্টফোনের? এখনই আনইনস্টল করুন এই অ্যাপ]

বেশ কয়েক মাস আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। যেখানে দেখা গিয়েছিল এই কোম্পানির এক ডেলিভারি বয় ক্রেতার কাছে খাবার পৌঁছে দেওয়ার আগে মাঝপথেই প্যাকেট খুলে খানিকটা খাবার খেয়ে নিচ্ছেন। ঘটনায় নেটিজেনদের রোষের মুখে পড়েছিল Zomato। প্রশ্ন উঠেছিল সংস্থার বিশ্বাসযোগ্যতা, স্বচ্ছতা নিয়ে। অনেকে এও বলেছিলেন, নিজেদের কর্মীদের হয়তো সঠিক বেতন দেয় না সংস্থা। তাই এভাবে খাবার খেতে বাধ্য হন তাঁরা। সেই ঘটনার পর নানা অফার ও বিজ্ঞাপন দিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছিল সংস্থা। কিন্তু পুণের ঘটনায় ফের কাঠগড়ায় Zomato।

জানা গিয়েছে, সন্মুখ দেশমুখ নামের এক আইনজীবী এই অ্যাপের মাধ্যমে পনির বাটার মশলা অর্ডার দিয়েছিলেন। ডিশটি যে পনিরের নয়, তা ধরতে না পেরে খেয়েও ফেলেন তিনি। কিন্তু তারপরই বুঝতে পারেন আসলে সেটি মুরগির মাংস। একবার নয়, এমন ঘটনা দুবার ঘটে। তারপরই ক্রেতা সুরক্ষা আদালতে সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন ওই ব্যক্তি। আদালতের তরফে নির্দেশ দেওয়া হয়, আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে জরিমানা হিসেবে ওই ক্রেতাকে ৫৫ হাজার টাকা দিতে হবে। ঘটনার সাফাই দিতে গিয়ে Zomato বলে, যে হোটেলে খাবার অর্ডার দেওয়া হয়েছিল, ভুলটা আসলে তাদের। এমনকী, সে ভুল স্বীকারও করে হোটেল কর্তৃপক্ষ। এরপর আদালত জানায়, ভুল খাবার দেওয়ার জন্য Zomato ও হোটেল কর্তৃপক্ষকে ৫০ হাজার টাকা দিতে হবে। আর বাকি অর্থ ক্রেতাকে মানসিক হেনস্তার জন্য।

[আরও পড়ুন: কী করে বুঝবেন ত্বক ক্যানসারে আক্রান্ত কি না? স্মার্টফোনে রাখুন এই অ্যাপগুলি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং