BREAKING NEWS

৭ আষাঢ়  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ক্রমেই ভয়ংকর রূপ নিচ্ছে করোনা, সংক্রমণ রুখতে দিঘায় জমায়েতে ‘না’ প্রশাসনের

Published by: Sayani Sen |    Posted: March 19, 2020 3:51 pm|    Updated: March 19, 2020 3:57 pm

Due to corona scare gathering is prohibited in Digha sea side

রঞ্জন মহাপাত্র, কাঁথি: করোনা মোকাবিলায় বিপুল সংখ্যক মানুষের জমায়েত নিষিদ্ধ করেছে প্রশাসন। এই পরিস্থিতিতে দিঘায় জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি করল প্রশাসন। সুইমিং পুল এবং কনফারেন্স রুমও বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

করোনা ভাইরাস থেকে পর্যটকদের সতর্ক করতে দিঘা-শংকরপুর উন্নয়ন পর্ষদের দপ্তরে জেলাশাসক পার্থ ঘোষ, পুলিশ সুপার ইন্দিরা মুখোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে প্রশাসনিক বৈঠক হয়। এই বৈঠক থেকেই হোটেল কর্তৃপক্ষকে সুইমিং পুল ও কনফারেন্স হল বন্ধ করার পরামর্শ দেওয়া হয়। পাশাপাশি হোটেলগুলিতে কোনরকম অনুষ্ঠানের আয়োজন না করা হয় সেদিকেও নজরদিতে বলা হয় হোটেল কর্তৃপক্ষকে। হোটেলে কোন পর্যটক এলে তাঁদের হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। এমনকি হোটেলে আসা পর্যটকদের কোনরকম লক্ষণ নজরে পড়লেই স্বাস্থ্য দপ্তরকে জানানোর কথা বলা হয়। পর্যটকদের নামের তালিকাও স্থানীয় থানায় জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিন বৈঠক শেষে প্রশাসনিক আধিকারিকেরা ওড়িশা সীমান্তে থাকা নাকা পয়েন্ট ও অস্থায়ী স্কিনিং সেন্টার পরিদর্শন করেন। সীমান্ত লাগোয়া এলাকা পরিদর্শনের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের সঙ্গেও কথা বলেন আধিকারিকেরা।

[আরও পড়ুন: করোনা সংক্রমণ এড়াতে বন্ধ তারাপীঠ মন্দির, অনলাইনেই হবে পুজো]

করোনা আতঙ্কে ৩১ মার্চ থেকে বাড়িয়ে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যের সমস্ত স্কুল-কলেজে ছুটি ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। আর ছুটি ঘোষণা হতেই দিঘার সৈকতে ভিড় জমিয়েছেন পর্যটকেরা। দিঘা পুলিশ ইতিমধ্যেই করোনা সতর্কতায় প্রচার করতে শুরু করেছে। সংক্রমণ ঠেকাতে ওড়িশা-বাংলার সীমান্তে দিঘা থানা ও রামনগর ব্লক প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে নাকা চেকিং ও সচেতনতামূলক শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে। যে সমস্ত পর্যটক ভিন রাজ্য থেকে বা বিদেশ থেকে আসছেন তাঁরা কোনওভাবে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত কিনা সেটা পরীক্ষা করার জন্য স্বাস্থ্যদপ্তরের প্রতিনিধি দল ক্যাম্প করেছে সীমান্তে। দিঘা স্টেশনেও নজরদারির ব্যবস্থা করেছে রেল কর্তৃপক্ষ। জেলাশাসক, জেলা পুলিশ সুপারের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন কাঁথির মহকুমা শাসক শুভময় ভট্টাচার্য, মহকুমা পুলিশ আধিকারিক অভিষেক ভট্টাচার্য, জেলা স্বাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ পার্থপ্রতিম দাস, উন্নয়ন পর্ষদের আধিকারিক সুজন দত্ত প্রমুখ। জেলাশাসক পার্থ ঘোষ জানান, সাধারণ মানুষের পাশাপাশি পর্যটকদের সতর্ক থাকার কথা বলা হয়েছে। একসঙ্গে জমায়েত করতে নিষেধ করা হয়েছে। পাশাপাশি হোটেল কর্তৃপক্ষকে সুইমিং পুল,কনফারেন্স হল বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। হোটেল আসা পর্যটকেদর হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement