১৫ ফাল্গুন  ১৪২৭  সোমবার ১ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনার জেরে বন্ধের মুখে আকাশ যাত্রা, টিকিট বাতিলে টাকা ফেরতের আশ্বাস রেলের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: March 19, 2020 2:51 pm|    Updated: March 19, 2020 4:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার জেরে বাতিল একাধিক ট্রেন। বাতিল করা হয়েছে ট্রেনের সংরক্ষিত আসনের টিকিটও। তবে টিকিট বাতিল করলেই মিলবে পুরো টাকা এমনটাই ঘোষণা করল রেল কর্তৃপক্ষের। অন্যদিকে করোনার আতঙ্কে যাত্রী সংখ্যা কম থাকায় উড়ান বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় ইন্ডিগো-ভিস্তেরা বিমান সংস্থা।

ভারতে প্রতিদিন লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে একাধিক ট্রেন বাতিল করল ভারতীয় রেল।রেলের তরফে বলা হয়েছে, ৩১ মার্চ পর্যন্ত মোট ১৫৫টি দূরপাল্লার ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। ওই ট্রেনগুলিতে যাঁদের টিকিট ছিল, সেই সমস্ত যাত্রীদের কাছে বাতিলের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে রেলমন্ত্রকের তরফ থেকে। পাশাপাশি টিকিট বাতিলের পর সেই টিকিটের পুরো টাকা যাত্রীদের ফেরতও দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। রেল মন্ত্রক আরও জানায়, বহু ট্রেনের ৮০ শতাংশ পর্যন্ত টিকিট বাতিল হয়েছে।শুধু ট্রেন বাতিল করাই নয়, করোনাভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাবনা রুখতে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে রেল।  সবচেয়ে বেশি ট্রেন বাতিল হয়েছে দক্ষিণ-পূর্ব ও দক্ষিণ-মধ্য শাখায়। রেলের তরফে যাত্রীদের উদ্দেশে বলা হয়েছে,নিয়মিত রেলের ওয়েবসাইটে নজর রাখার জন্য। প্রতি মুহূর্তে আপডেট থাকতে আবেদন করেছে রেল। বড় রেল স্টেশনে অপ্রয়োজনীয় ভিড় কমাতে উদ্যোগী হয়েছে পশ্চিম রেল। ইতিমধ্যেই ২৫০টি স্টেশনে প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দাম ১০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৫০ টাকা করা হয়েছে। আজ রাত থেকে হাওড়া স্টেশনের প্ল্যাটফর্ম টিকিটের দামও বাড়িয়ে ২০- ৫০ টাকা করা হল। স্টেশনের ক্যাটাগরি অনুযায়ী দাম নির্ধারণ করা হবে। পাশাপাশি টিকিটের ছাড়ও বন্ধ করে দেওয়া হল রেবের তরফ থেকে। বুধবারই দক্ষিণ-পূর্ব রেল আধিকারিকরা যাত্রী সংখ্যা কম থাকায় ও সংক্রমণের প্রভাব কমাতে অনেকগুলি এক্সপ্রেস ট্রেন বাতিল করে। পরিবর্তে বেশ কয়েকটি লোকাল ট্রেনের সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়। আজ থেকেই অফিস টাইমে সেই অতিরিক্ত লোকাল ট্রেনগুলি চালানো হবে। ভিড় কমাতেই লোকাল ট্রেন বাড়ানো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন:মজুত রাখুন ৬ মাসের রেশন, করোনা প্রতিরোধে কেন্দ্রের বড় ঘোষণা]

অন্যদিকে করোনার থাবা থেকে পিছিয়ে নেই বিমান পরিষেবাও। আন্তর্জতিক বিমান বাদ দিলেও এই মারণ ভাইরাসের ভয়ে ডমেস্টিক রুটেও দ্রুত কমছে যাত্রী সংখ্যা। ইন্ডিগোর ফ্লাইট অপারেশন বিভাগের প্রধান অসীম মিত্র সমস্ত পাইলটকে ইমেল মারফত জানিয়ে দিয়েছেন, “আগামী কয়েকদিনের জন্য হয়তো একটা কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সে ব্যাপারে মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে রাখুন।”গত কয়েকদিনে ইন্ডিগো, ভিস্তারা-সহ ভারতের একাধিক বিমান সংস্থার ১৫০টি উড়ান বসে গিয়েছে। সেই সংখ্যা আরও বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এই সংস্থাগুলিকে দেখে বাকি বিমান সংস্থাগুলিও নিজেদের উড়ান নিয়ে একটি সিদ্ধান্তে নেবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন:করোনা আতঙ্কের জের, সিবিএসই ও আইসিএসই-সহ স্থগিত বিভিন্ন পরীক্ষা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement