BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

৩০ সেকেন্ডেই খতম ৯৯.৯% করোনা! নতুন মাউথওয়াশ নিয়ে দাবি ইউনিলিভারের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 21, 2020 5:57 pm|    Updated: November 21, 2020 6:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চাঞ্চল্যকর দাবি বহুজাতিক সংস্থা ইউনিলিভারের (Unilever)।  আগামী মাসেই ভারতে আত্মপ্রকাশ করবে তাদের তৈরি নতুন মাউথওয়াশ। সংস্থার দাবি, এই মাউথওয়াশই (Mouthwash) হয়ে উঠবে করোনার (Coronavirus) যম! মাত্র ৩০ সেকেন্ড কুলকুচি করলেই ৯৯.৯ শতাংশ কোভিড-১৯ জীবাণু খতম হবে। এক বিবৃতিতে তাদের স্পষ্ট দাবি, রীতিমতো গবেষণাগারে পরীক্ষা করে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হয়েছে তারা।

কী রয়েছে এই মাউথওয়াশে? ইউনিলিভারের তরফে জানানো হয়েছে এই নতুন মাউথওয়াশে ব্যবহৃত হয়েছে সিপিসি টেকনোলজি। ব্যবহার করা হয়েছে একেবারে নতুন ফর্মুলা। তবে এরই সঙ্গে সংস্থার তরফে পরিষ্কার করে দেওয়া হয়েছে, এই মাউথওয়াশ মোটেই কোভিড -১৯ এর কোনও চিকিৎসা নয় বা একে ছড়াতেও বাধা দেয় না। কিন্তু মুখ ও গলায় অবস্থিত করোনা ভাইরাসকে এটি হত্যা করতে সক্ষম।

[আরও পড়ুন: ‘সবুজ বিপ্লবে’র পথে ব্রিটেন, আগামী ১০ বছরের মধ্যে নিষিদ্ধ পেট্রল-ডিজেল চালিত গাড়ি]

মাউথওয়াশটির ব্যবহারের গুরুত্ব সম্পর্কে ইউনিলিভার জানাচ্ছে, মুখে ভাইরাসের সংখ্যা কমলে তার বিস্তারও কমবে। তাদের মতে, হাত বারবার ধোয়া, স্যানিটাইজার ব্যবহার করা কিংবা মাস্ক পরার পাশাপাশি মাউথওয়াশের ব্যবহারও মারণ ভাইরাসটির হাত থেকে বাঁচতে সুবিধা হবে। আগামী মাসেই ইউনিলিভারের ভারতীয় শাখা ‘হিন্দুস্তান ইউনিলিভার লিমিটেডে’র  হাত ধরে ভারতের বাজারে আসবে এই মাউখওয়াশ।

সংস্থার ‘ওরাল কেয়ার রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট’ বিভাগের প্রধান জি রবার্টসের কথায়, ‘‘এখনও পর্যন্ত হওয়া পরীক্ষার ভিত্তিতে বলতে পারি, এই নতুন মাউথওয়াশ মুখের মধ্যে অবস্থিত করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে দারুণ কার্যকর। নতুন ফর্মুলায় তৈরি এই মাউথওয়াশ নিয়ে গবেষণার ফলাফল আমরা সারা বিশ্বকে জানিয়েছি।’’ প্রসঙ্গত, এর আগেও বিজ্ঞানীদের করোনা নিধনে মাউখওয়াশের উপযোগিতা নিয়ে দাবি করতে দেখা গিয়েছে। 

এদিকে দিন কয়েক আগে পর্যন্ত দেশে সার্বিকভাবে করোনা সংক্রমণের গ্রাফ ছিল নিম্নমুখী। কিন্তু এবার দিল্লি, গুজরাট, রাজস্থানে নতুন করে বাড়তে শুরু করেছে সংক্রমণ। যা রীতিমতো উদ্বেগ বাড়াচ্ছে। নতুন করে সংক্রমণ বাড়ার ফলেই ভারতে লাগাতার দৈনিক ৪৫ হাজারের বেশি মানুষ এই মারণ রোগের কবলে পড়ছেন।

[আরও পড়ুন: রাসায়নিক মিশে রক্তবর্ণ রাশিয়ার নদী! দূষণের নমুনা দেখে আতঙ্কিত পরিবেশ বিজ্ঞানীরা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement