BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

বব কাটে নজর কাড়ছে সুন্দরী তামিল হস্তিনী, তার আদুরে ভিডিওতে মজে নেটিজেনরা

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: July 6, 2020 3:46 pm|    Updated: July 6, 2020 4:17 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নতুন হেয়ার স্টাইল করে কি শুধুমাত্র সিনেমার নায়ক-নায়িকারাই তাক লাগিয়ে দিতে পারেন? মোটেই না। সেই স্টাইলকে পাল্লা দিয়ে সেঙ্গামালাম (Sengamalam)। ভাবছেন এ আবার কে? সেঙ্গামালাম হল একটি হস্তিনী। তার হেয়ার স্টাইল দেখে মজেছেন নেটিজেনরা।

Elephant-Hair-style-2

তামিলনাড়ুর রাজাগোপালস্বামী (Rajagopalaswamy Temple) মন্দিরের একটি পোষ্য হাতি হল সেঙ্গামালাম। নিজের বব কাট হেয়ারস্টাইলে ইতিমধ্যেই ইন্টারনেটে অসংখ্য অনুরাগী জোগাড় করে ফেলেছে সেই হস্তিনী। তার মায়া ভরা চোখ ও চুলের বাহার দেখে বেজায় খুশি নেজিজেনরা। জানা যায়, ২০০৩ সালে সেঙ্গামালামকে কেরল থেকে তামিলনাড়ুর (Tamil Nadu) রাজাগোপালাস্বামী মন্দিরে নিয়ে আসেন তার মাহুত এস রাজাগোপাল। হস্তিনীর সুন্দর চুলের নেপথ্যে রয়েছে তাঁরই হাতযশ ও নিয়মিত পরিচর্যা। মাহুত রাজাগোপালের কথায়, “সেঙ্গামালাম আমার কাছে আমার সন্তানের মতো। আমি চেয়েছিলাম ওর যেন এমন একটি বিশেষ চেহারা হয়, যাতে ও সবার নজর কাড়তে পারে। একবার আমি ইন্টারনেটে একটি ভিডিওতে একটি হাতির বাচ্চাকে ওরকম দেখেছিলাম। আর তারপর থেকেই, আমি সেঙ্গামালামের চুল বাড়াতে শুরু করি।” তবে সেঙ্গামালাম খুব শান্ত প্রকৃতির। ওর শান্ত ও বন্ধুত্বপূর্ণ স্বভাবের জন্যই এই হেয়ারস্টাইল করা সম্ভব হয়েছে।

 

[আরও পড়ুন:দিনেদুপুরে ‘ভূতে’র উপদ্রব পুলিশকর্মীর বাড়িতেই! আতঙ্কে কাঁটা পরিবারের সদস্যরা]

জানা যায়, গরমকালে তার চুলকে সুন্দর রাখতে কম করে ৩ বার ও অন্যান্য সময়ে দিনে একবার করেই স্নান করানো হয়। নিয়মিত পরিচর্যা ও বেশ খাতিরেই মন্দিরে থাকে সেই হস্তিনী। তবে বব কাট চুলের স্টাইল-সহ সুন্দরী সেঙ্গামালামের ছবি এই মুহূর্তে ভাইরাল নেট দুনিয়ায়। সেঙ্গামালামের মিষ্টি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাই হুড়োহুড়ি পড়ে যায় নেট জগতে। তার প্রতিটি ছবিতে প্রায় ১০ হাজারেরও বেশি লাইক পরে। কেউ আবার তার সঙ্গে দেখা করা অভিজ্ঞতাও ভাগ করে নিয়েছেন। রাজাগোপালাস্বামী মন্দিরে দর্শনার্থীরা গেলে তারা সকলেই একবার হলেও দেখা করে আসেন এই হস্তিনীর সঙ্গে।

[আরও পড়ুন:ঘরে ছিল আলু, তিন মাস পর বাড়ি ফিরে যা দেখলেন মহিলা!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement