২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাজের ফাঁকে একটু সময় করে কাফেতে যাচ্ছেন বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে আড্ডা দিতে, অথচ টুঁ শব্দটি করতে পারবেন না! হ্যাঁ, এমনই একটি কাফেটেরিয়া তৈরি হচ্ছে চিনের গুইঝো প্রদেশে৷ কী ভাবছেন? যে কাফেটেরিয়ায় হইহট্টগোল করা, উচ্চস্বরে কথা বলা যাবে না, সেখানে কেনই বা যাবেন? আন্তর্জাতিক সংস্থা স্টারবাকসের তৈরি এই কাফের গল্প শুনলে আপনিও টান অনুভব করবেন৷

[আরও পড়ুন: প্রতিবন্ধকতাকে হার মানিয়ে খাবার ডেলিভারি, ব্যক্তিকে কুর্নিশ নেটদুনিয়ার]

‘এটাই হবে বিশ্বের সবচেয়ে শান্ত কাফেটেরিয়া’, এমনটাই বলছেন চিনে স্টারবাকসের প্রধান অধিকর্তা লিও তোসি৷ তিনি আরও জানাচ্ছেন, কাফেটি নিঃশব্দ রাখার জন্য বিশেষ প্রযুক্তির সাহায্য নেওয়া হবে৷ যার মাধ্যমে কাফেতে আগত অতিথিরা একটি শব্দ উচ্চারণ না করেও কফি, স্ন্যাকসের অর্ডার দিতে পারবেন৷ কোনও শব্দের প্রয়োজনই হবে না৷ এবং আপনি ঠিক যা যা চাইবেন, তা নিঁখুতভাবেই আপনার কাছে পৌঁছাবে৷ তাতে কোনও ভুলভ্রান্তি হবে না৷

silent-cafe

চিনে স্টারবাকসের মোট ৩৮০০টি কাফে আছে৷ তার মধ্যে ইউজির কাফের বেশ কয়েকজন মূক-বধির৷ তাঁদের কথা ভেবেই এমন একটা উদ্যোগ নিতে চলেছে সংস্থা৷ বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিরা যাতে আরও বেশি করে কাজ করতে পারেন, সেটাই মূল লক্ষ্য৷ স্টারবাকস কাফের বধির এক কর্মী, চেন সিটিংয়ের কথায়, ‘আমরা আপনাদের কথা শুনতে পাই না৷ কিন্তু আপনাদের এক কাপ কফি খাওয়ানোর ইচ্ছে তো আমাদেরও হয়৷ আমার মতো অনেকেই যদি এখানে কাজের সুযোগ পায়, তাহলে খুব ভাল হবে৷’   

[আরও পড়ুন: জলের তলায় রুবিক’স কিউব সলভ করে বিশ্বরেকর্ড মুম্বইয়ের যুবকের]

আসলে চিনে প্রথম স্টারবাকস কাফের যিনি ম্যানেজার, তিনি নিজে কিন্তু তাঁর শ্রবণ ক্ষমতা হারিয়েছিলেন৷ ঝু জেয়িং নামে ওই ম্যানেজারই জানালেন, নিজের অভিজ্ঞতা দিয়ে তিনি বুঝেছেন শব্দ শুনতে না পারার যন্ত্রণা কত৷ তাই তিনি তাঁর মতো অনেককে আরও ভাল কাজের জায়গা করে দিতে চান৷ আর ঝু-এর এই মনোভাব বেশ পছন্দ হয়েছে স্টারবাকস কর্তৃপক্ষের৷ তাই প্রযু্ক্তির সাহায্য নিয়ে শব্দহীন কাফে তৈরি হচ্ছে চিনে৷ এখানে নীরবতাই কথা বলবে, আড্ডা চলবে নিঃশব্দে৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং