BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

অনলাইন ক্লাসের পরিকাঠামো নেই, করোনা কালে দুস্থ শিশুদের পড়াচ্ছেন দিল্লির এই কনস্টেবল

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 19, 2020 3:47 pm|    Updated: October 19, 2020 5:13 pm

An Images

‌সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ করোনা (Corona Pandemic) মহামারীতে বন্ধ স্কুল–কলেজ–বিশ্ববিদ্যালয়। তবে ক্লাস চলছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই অনলাইনে। যাঁদের বাড়িতে স্মার্টফোন বা কম্পিউটার আছে, অনলাইন ক্লাসে তাদের কোনওপ্রকার সমস্যা নেই। কিন্তু যাঁদের স্মার্টফোন বা কম্পিউটার নেই, কিংবা তা কেনার সামর্থ্য নেই!‌ না, তাঁদের ছেলেমেয়েদের অনলাইন ক্লাস করতে পারছেন না। আর সেই সংখ্যাটাও ভারতের মতো দেশে অনেক বেশি।

যাঁরা দারিদ্যসীমার নিচে বাস করেন, তাঁদের অনলাইন ক্লাসের চিন্তাভাবনা তো দূর, দুবেলা দুমুঠো অন্ন জোগাড়ের চিন্তাই বেশি। এই ধরনের পরিবারের ছেলেমেয়েদের পড়ানোর দায়ভার এবার নিজের কাঁধে তুলে নিলেন দিল্লি পুলিশের এক কনস্টেবল। নিজস্ব উদ্যোগেই তাদের পড়াচ্ছেন। আর তাই তো খবরের শিরোনামে কনস্টেবল থান সিং। সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের প্রশংসাও কুড়িয়েছেন।

[আরও পড়ুন: অবিশ্বাস্য! স্রেফ ফ্রি WIFI পাওয়ার জন্য সদ্যোজাত সন্তানের সঙ্গে এই কাজটি করলেন বাবা-মা!]

জানা গিয়েছে, রেড ফোর্টের (Red Fort) কাছে সাঁই বাবার মন্দিরের কাছে প্রতিদিনই স্কুল চলছে। তাও আবার করোনা সংক্রান্ত সমস্ত বিধিনিষেধ মেনেই। আশপাশে দরিদ্র পরিবারের শিশুরা এবং নির্মাণের কাজের সঙ্গে যুক্ত অনেকেই ক্লাস করতে সেখানে আসছেও। করোনা আবহে প্রাথমিকভাবে বন্ধ থাকলেও যেহেতু অনেকেরই বাড়িতে স্মার্টফোন বা কম্পিউটার নেই, তাই ফের ক্লাস চালু হয়েছে।

এই প্রসঙ্গে সংবাদসংস্থা ANI-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‌‘‌বহুদিন ধরেই স্কুলটি চালাচ্ছিলাম। কিন্তু করোনার কারণে শিশুদের সুরক্ষার কথা ভেবে তা বন্ধ রাখা হয়েছিল। তারপর দেখলাম অনলাইন ক্লাস করার জন্য অনেকেরই স্মার্টফোন নেই। তাই করোনা সংক্রান্ত সমস্ত নিয়ম মেনে ফের স্কুল চালু করেছি।’‌’

 

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশের আকাশে ভিনগ্রহের জীবের দেখা! তদন্তে নেমে তাজ্জব পুলিশ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement