BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  সোমবার ২৩ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘যুদ্ধ এখনও বাকি’, হরিয়ানার যুগলের বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে ফের কৃষক আন্দোলনের বার্তা

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: January 23, 2022 1:40 pm|    Updated: January 23, 2022 1:42 pm

Haryana couple's wedding invitation demanding MSP law guarantee | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাম্প্রতিককালে বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে (Wedding Invitation Card) সামাজিক বার্তা দেওয়ার রেওয়াজ মাঝেমাঝেই চোখ পড়ছে। অনেকে নিজেদের রাজনৈতিক অবস্থানও স্পষ্ট কর দিচ্ছেন সেখানে। যেমন, কিছুদিন আগে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) এক যুগল তাঁদের বিয়ের কার্ড তৈরি করেছিলেন সমাজবাদী পার্টির (Samajwadi Party) পতকার রঙে। সেখানে মুলায়ম সিং যাদব (Mulayam Singh Yadav) ও অখিলেশ যাদবের (Akhilesh Yadav) ছবিও ছিল। এবার হরিয়ানার (Haryana) এক যুগল নিজেদের বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে কৃষক আন্দোলনকে (Farmers Movement) সমর্থন করে বার্তা দিলেন।

আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবেন প্রদীপ কালিরামন (Pradeep Kaliraman) ও কবিতা (Kavita)। প্রদীপ-কবিতা দেড় হাজার আমন্ত্রণ পত্র ছেপেছেন। তবে তা মোটেই সাধারণ আমন্ত্রণ পত্র না। সেখানে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে কৃষক আন্দোলনকে সমর্থন করে রয়েছে একাধিক বার্তা। যেমন, লেখা হয়েছে ‘নো ফার্মার, নো ফুড’ (কৃষক নেই মানে খাদ্যও নেই)।

[আরও পড়ুন: বিয়ের অনুষ্ঠানে নাচায় হবু বরের থাপ্পড়! প্রতিবাদে তুতো ভাইয়ের গলাতেই মালা দিলেন তরুণী]

মাস খানেকের আগে রাজধানী দিল্লির সীমান্ত থেকে যে আন্দোলন তুলে নিয়েছেন কৃষক নেতারা। হরিয়ানার বিওয়ানি জেলার ভূষণ গ্রামের বাসিন্দা প্রদীপ সেই আন্দলনের পাশা দাঁড়িয়ে নিজের বিয়ের আমন্ত্রণ পত্রে লিখেছেন, কৃষক আন্দোলন এখনও শেষ হয়নি। ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের (MSP) দাবি না মেটা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। প্রদীপ-কবিতার বিয়ের কার্ডে লেখা হয়েছে, ‘জঙ্গ আভি জারি হ্যায়, এমএসপি কি বারি হ্যায়’ (যুদ্ধ এখনও জারি রয়েছে, এবার এমএসপি-র প্রসঙ্গ)। প্রদীপ-কবিতার বিয়ের কার্ডে আরও আছে, ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী লাল বাহাদুর শাস্ত্রীর বিখ্যাত স্লোগান ‘জয় জওয়ান, জয় কিসান’।

[আরও পড়ুন: OMG! অন্যের বাড়ির আলমারি গুছিয়ে মাসে এত টাকা আয় ১৯ বছরের তরুণীর!]

তাঁদের অভিনব আমন্ত্রণ পত্র নিয়ে প্রদীপ বলেন, “বিয়ের কার্ডে বার্তা দিতে চেয়েছি, যে কৃষক আন্দোলন এখনও শেষ হয়নি। কৃষকদের আন্দোলন জয়ী হবে সেই দিন যখন কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের দাবি অনুযায়ী ন্যূনতম সহায়ক মূল্য ধার্য করবে। এমএসপি নিয়ে যতক্ষণ না আইন প্রণয়ন হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত আন্দোলনের উদ্দেশ্য সফল হবে না।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে