BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শনিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

খোঁজ মিলল ধবধবে সাদা রঙের বিরল সাপের! বিস্মিত বিশেষজ্ঞরাও

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 13, 2020 8:18 pm|    Updated: November 13, 2020 8:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ উত্তর ছত্তিশগড়ের (Chhattisgarh) অম্বিকাপুরে দেখা মিলল এক বিরল প্রজাতির কেউটে সাপের। সম্পূর্ণ সাদা রঙের এই সাপটি অ্যালবিনিজম অর্থাৎ শ্বেতী রোগাক্রান্ত (Albino krait)। সুরজপুর জেলার জয়নগর গ্রামের বাসিন্দারা চমকে গিয়েছেন এমন অদ্ভুত রঙের সাপ দেখে। খবর দেওয়া হয়েছে এক সর্প বিশেষজ্ঞকে। সত্যমকুমার দ্বিবেদী নামের ওই বিশেষজ্ঞ জানাচ্ছেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে তিনি এক কুয়োর ভিতর থেকে সাপটিকে উদ্ধার করেন।

সত্যমকুমার জানাচ্ছেন, এযাবৎ তিনি তিনশোর বেশি সাপ ধরেছেন। তবে এমন সাপের মুখোমুখি তিনিও হননি। আসলে চিতি বলে পরিচিত এই ধরনের সাপ ছত্তিশগড়ে সাধারণত দেখতে পাওয়া যায় না। কী করে এই প্রজাতির সাপ এই এলাকায় এল ভেবে বিস্মিত হচ্ছেন গ্রামবাসীরা। তবে এই সাপকে আদৌ ভয় পাচ্ছেন না তাঁরা। কেননা এই প্রজাতির সাপ মোটেই আক্রমণাত্মক নয়। খোঁচালেও এরা পালটা আক্রমণ করে না। সাধারণত নিজেদের মাথা দেহের মধ্যে লুকিয়ে আত্মরক্ষা করতে দেখা যায় এদের।

[আরও পড়ুন: বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ ‘কম্পিউটার প্রোগ্রামার’, গিনেস বুকে নাম ‌উঠল ছ’‌বছরের খুদের]

এই ধরনের সাপগুলি নিরীহ হলেও সাধারণ কেউটে বা কমন ক্রেইট অত্যন্ত বিষধর। কালো ও হালকা রঙের মিশেলে ওই প্রজাতির সাপ সাক্ষাৎ মৃত্যুদূত। তাদের ঠিক উলটো ধর্মের এই চিতি সাপ। তবে ধর্মে ভিন্নতা সত্ত্বেও সব প্রজাতির কেউটেই নিশাচর। এরা দিনে ঘুমোয়। রাতেই এদের আনাগোনা বাড়ে। মেলানিনের অভাবেই এই ধরনের সাপের শরীর শ্বেতবর্ণ ধারণ করে। কখনও কখনও গোলাপি বা হলুদ রংও হয় তাদের। তবে কেবল সাপই নয়, অ্যালবিনোয় আক্রান্ত হতে পারে অন্য প্রাণীরাও। মানুষের মধ্যেও অনেকেরই ত্বকে শ্বেতী দেখা যায়। সবক্ষেত্রে মেলানিনের অভাবই কারণ।

[আরও পড়ুন: প্রেমিকের সঙ্গেই বিয়ে দিতে হবে, ‘শোলে’-র বীরুকে মনে করিয়ে এ কী করল কিশোরী!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement