১২ মাঘ  ১৪২৯  শুক্রবার ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

পড়াশোনায় সেরা হলেই নিখরচায় ট্রেনে, বিমানে চড়াবেন পড়ুয়াদের! ঘোষণা স্কুল শিক্ষকের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 27, 2022 4:25 pm|    Updated: November 27, 2022 4:27 pm

School principal in Himachal Pradesh announced free air, rail and road trips to toppers। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পরীক্ষায় ভাল ফল করলে মিলবে দামি পুরস্কার। এমন প্রস্তাব প্রায়শই দিয়ে থাকেন অভিভাবকরা। কিন্তু এবার এমন এক শিক্ষকের দেখা মিলল, যিনি পড়ুয়াদের প্রস্তাব দিলেন, ভাল ফল করলেই বেড়াতে নিয়ে যাবেন। এবং তাও সড়ক, রেল এবং আকাশপথে! আর পুরো খরচটাই করবেন নিজের পকেট থেকে।

হিমাচল প্রদেশের (Himachal Pradesh) সন্দীপ শর্মা সেখানকার এক সরকারি স্কুলের অধ্যক্ষ। রাজ্যের বালাগ অঞ্চলের সিনিয়র সেক্রেটারি নামের ওই স্কুলটি শিমলা থেকে প্রায় ৬০ কিমি দূরত্বে অবস্থিত। প্রকৃতির কোলে নিরিবিলি পরিবেশে বড় হতে থাকা সেখানকাল ছেলেমেয়েদের কাছে এ এক সুবর্ণ সুযোগ। তাই তারা হাতছাড়া না করতে বদ্ধপরিকর। শোনা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই দিনরাত এক করে পড়াশোনা শুরু করেছে পড়ুয়ারা।

[আরও পড়ুন: আদানির কপালের ভাঁজ আরও চওড়া, বন্দরের কাজ থমকে, ট্রাকে পাথর ছুঁড়লেন আন্দোলনকারীরা]

ঠিক কী পুরস্কার দেওয়ার কথা বলেছেন সন্দীপ? একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির সেরা পড়ুয়াদের বিমানে চণ্ডীগড় বা ধরমশালায় বেড়াতে নিয়ে যাওয়া হবে। পাশাপাশি নবম ও দশম শ্রেণির টপারদের শতাব্দী এক্সপ্রেসে তিনি দিল্লি নিয়ে যাবেন। ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির শীর্ষস্থানীয় পড়ুয়াদের সুযোগ সড়কপথে চণ্ডীগড় বেড়ানোর।

সন্দীপের মাথায় এমন আইডিয়া এল কী করে? সংবাদ সংস্থা পিটিআইয়ের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, ”এতে কেবল ওদের উৎসাহই বেড়ে যাবে তা নয়। এর ফলে ওরা বড় শহর দেখারও সুযোগ পাবে, কেননা ছোট শহরেই থাকে ওরা।” নগদ অর্থের পুরস্কার না দিয়ে এই ধরনের পুরস্কার যে পড়ুয়াদের জন্য আরও উপযোগী হতে পারে তাও বলছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘জি২০ শীর্ষ সম্মেলনের নেতৃত্ব দেওয়াটা ভারতের জন্য বিরাট সুযোগ’, ‘মন কি বাতে’ উচ্ছ্বসিত মোদি]

এমন অভিনব পদক্ষেপ এই প্রথম করলেন সন্দীপ, তা নয়। এর আগে স্কুলবাড়ি সারাতে নিজের পকেট থেকে ১০ লক্ষ টাকা বের করে দিয়েছিলেন তিনি। সেই তালিকাতেই এবার নতুন সংযোজন অভিনব পুরস্কারের ঘোষণা। যা শুনে তাজ্জব পড়ুয়াদের অভিভাবকরাও। একজন শিক্ষক নিজের পড়ুয়াদের ভাল চেয়ে এমন কাজও করতে পারেন তা যেন বিশ্বাসই হচ্ছে না তাঁদের।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে