৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লিফটে ঢোকার পর আচমকা গলায় জড়িয়ে গিয়েছিল সেখানে থাকা একটি দড়ি। ঘটনার আকস্মিকতায় প্রথমে অবাক হয়ে গেলেও পরে বাঁচার চেষ্টায় ছটফট করতে থাকে পাঁচ বছরের খুদে। চোখের সামনে ভাইকে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়তে দেখে আর চুপ থাকতে পারেনি তার থেকে বয়সে একটু বড় দিদি। বয়স কম হলেও ভাইকে বাঁচানোর উদ্যম ইচ্ছায় অসম্ভবকে সম্ভব করে সে। প্রাণ বাঁচায় নিজের ছোট্ট ভাইয়ের। গত বুধবার ঘটনাটি ঘটেছে তুরস্কের ইস্তানবুলে। ওই লিফটে থাকা সিসিটিভির ফুটেজ সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট হতেই ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওটি দেখে ছোট্ট মেয়েটির প্রশংসায় মেতে উঠেছেন নেটিজেনরা।

[আরও পড়ুন: কীভাবে সম্পূর্ণ নীরোগ থেকে শতায়ু হওয়া যায়? রহস্য ফাঁস মার্কিন মহিলার]

লিফটে থাকা সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে, দিদি ও আর এক বন্ধুকে নিয়ে লিফটের মধ্যে ঢুকছে ওই খুদে। তারা লিফটে ঢোকার পর দরজাও বন্ধ হয়ে যায়। দেখা যায় লিফটের দরজায় আটকে গিয়েছে বাইরে থেকে আসা একটি দড়ি। বিষয়টি দেখতে না পেয়ে কিছুটা সরে গিয়েছিল বাচ্চাটি। সেসময় আচমকা দড়িটির অপরপ্রান্ত এসে জড়িয়ে যায় তার গলায়। আর লিফটটি উঠতে শুরু করলে দড়ির টানে ক্রমশ উপর দিকে উঠতে থাকে সে। লিফটের মাঝামাঝি ঝুলতে থাকে খুদে। চোখের সামনে এই ঘটনা দেখে হাপুস নয়নে কাঁদতে থাকে তার বন্ধু। কিন্তু, বয়সে ছোট হলেও বিপদের সময়ে মাথা ঠান্ডা রেখে ভাইকে বাঁচানোর চেষ্টা করতে থাকে সে। প্রথমে হতভম্ব অবস্থায় লিফটের মধ্যে এদিক-ওদিক দৌড়তে শুরু করলেও পরে ভাইয়ের পা ধরে উপর দিকে তুলে ধরে। তারপর দু-একবার চেষ্টা করে ভাইয়ের গলা থেকে দড়িটি সরিয়ে দিতেও সক্ষম হয় সে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিওটি পোস্ট হওয়ার পরেই বাচ্চা মেয়েটির প্রশংসায় মেতে উঠেছে গোটা বিশ্ব। অভিভূত নেটিজেনদের কেউ কেউ বলছেন, ছোট্ট একটি মেয়ে যেভাবে ঠান্ডা মাথায় নিজের ভাইয়ের প্রাণ বাঁচাল তা অকল্পনীয়। বড়রাও ওই জায়গায় থাকলে ঘাবড়ে যেত।

[আরও পড়ুন:‘মিলে সুর মেরা-তুমহারা’, মালিকের সঙ্গে গর্দভের যুগলবন্দি নেটদুনিয়ায় হিট]

আবার কারও মতে, ভাইয়ের প্রতি মেয়েটির অকৃত্রিম ভালবাসা ভিডিওটি দেখলেই বোঝা যায়। ভাইফোঁটা ও রাখি বন্ধনের সময় দিদিরা ভাইকে রক্ষা করার শপথ নেয়। প্রয়োজনে নিজেদের জীবন বিপন্ন করেও তা মেনে চলার চেষ্টা করে। এই ঘটনা সেকথারই প্রমাণ দিচ্ছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং