১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ষড়রিপুর বিনাশ করে শুভ শক্তির ‘পুনর্জন্ম’ হবে তেলেঙ্গাবাগানের পুজোয়

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: September 27, 2019 7:42 pm|    Updated: September 27, 2019 7:44 pm

Durga Puja 2019: Telenga Bagan Sarbojanin to depict reincarnation

শুভময় মণ্ডল: কাম, ক্রোধ, লোভ, মোহ, মদ ও মাৎসর্য। প্রতিটি মানুষের পিছনে রয়েছে এই ষড়রিপু। এই ছয় শত্রুর জন্যই মানুষের বিনাশ হয়। কিন্তু এই ছয় রিপু থেকে মুক্তির পথ খোঁজে মানুষ। এবার পুজোয় এই ষড় রিপুর বিনাশ করে শুভ শক্তির পুনর্জন্ম দেখাবে তেলেঙ্গাবাগান সর্বজনীনের পুজো। শিল্পী প্রদীপ রুদ্র পালের সৃজনে এবার সেজে উঠছে কলকাতার এই বিখ্যাত পুজোমণ্ডপ। থিমের নাম পুনর্জন্ম।

[আরও পড়ুন: পরতে পরতে জীবনদর্শন উঠে আসবে চক্রবেড়িয়া সর্বজনীনের পুজোয়]

গোটা মণ্ডপটি সুউচ্চ। ত্রিভূবনের আদলে তৈরি হচ্ছে মণ্ডপ। সিলিংয়ে থাকবে মেঘের খেলা, গোটা মণ্ডপজুড়ে বায়ুমণ্ডলের পরিবেশ আর নিচে সমুদ্রের পরিবেশ থাকবে। ত্রিভূবনের বাতাবরণ তৈরি করা হচ্ছে মণ্ডপের মধ্যে। এখানে প্রায় ৪০ ফুট উঁচু অসুরের প্রতিকৃতি থাকবে। ষড় রিপুই হল এখানে অসুর। কিন্তু শিল্পীর কথায়, ষড়রিপুই এখানে ভাবনায় ষড় অনুভূতি এবং পরে ষড়গুণে পরিবর্তিত হবে। সুবিশাল অসুরের মাঝখানে থাকছে একটি গোলাকার যন্ত্র। যেটা ঘড়ি কাঁটার দিকে আবার ঘড়ির কাঁটার বিপরীতে ঘুরবে সর্বক্ষণ। তার মধ্যে দিয়েই ষড়রিপু ষড় অনুভূতি এবং পরে ষড়গুণে পরিবর্তিত হবে।

[আরও পড়ুন: কেরলের মুরুগান মন্দিরের আদলে এবার মণ্ডপ মহম্মদ আলি পার্কের পুজোয়]

প্রতিমাও গড়ছেন প্রদীপ রুদ্র পাল নিজেই। দেবী এখানে ত্রিভূবনেশ্বরী রূপে অধিষ্ঠিতা। গোলাকার যন্ত্রের মধ্যেই অধিষ্ঠিতা হবেন দেবী। এখানে আবহ সংগীতও শিল্পী নিজেই করেছেন। ‘আনন্দলোকে মঙ্গলালোকে’ গানটিকে ব্যবহার করেছেন তিনি। তিনি নিজেই কণ্ঠ দিয়েছেন গানে।

কীভাবে সেজে উঠছে মণ্ডপ, দেখুন প্রস্তুতির ভিডিও-

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে