১৯ শ্রাবণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৫ আগস্ট ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

করোনা কাঁটা, মহালয়ার তর্পণেও দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে জারি নিষেধাজ্ঞা

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: September 12, 2020 3:45 pm|    Updated: September 12, 2020 3:48 pm

Dakshineswar Temple imposes ban on Mahalaya Pitri Tarpan

স্টাফ রিপোর্টার: এবছর সমস্ত পুজো পার্বনেই বাদ সেধেছে করোনা। সামাজিক দূরত্ববিধির জন্য সব উৎসবের রঙই ফিকে। সেই অতিমারির ছায়া এবার পড়ল পিতৃতর্পণেও। মহালয়ার দিন দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে তর্পণে নিষেধাজ্ঞা জারি করল মন্দির কর্তৃপক্ষ। তর্পণের জমায়েত আটকাতে মন্দিরের তিনটি ঘাটই বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে খবর।

আনলক ওয়ান শুরু হওয়ার পরই ভক্তদের জন্য দক্ষিণেশ্বর মন্দির খুলে দেওয়া হয়। তবে সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ববিধি মেনেই পুজো দেওয়ার ব্যবস্থা করে মন্দির কর্তৃপক্ষ। মন্দিরের ভিতর যাতে অতিরিক্ত জমায়েত না হয় তার জন্য নিয়মাবলিতে প্রচুর বদল আনে মন্দির কমিটি। কিন্তু তর্পণে সেই সামাজিক দূরত্ববিধি মানা যাবে না বলে মত মন্দির কর্তৃপক্ষের। কারণ প্রতিবছরই মহালয়ার দিন দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে লক্ষাধিক মানুষের জমায়েত হয়। চাঁদনী ঘাট, সীমার ঘাট ও পঞ্চবটি ঘাটে থিকথিকে ভিড় হয়। পূর্বপুরুষদের শ্রদ্ধা জানাতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ সেখানে জড়ো হন। দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের সম্পাদক কুশল চৌধুরি বলেন, তর্পণ হলে সামাজিক দূরুত্ব বজায় থাকবে না। যে পরিমাণ ভিড় হয় তাতে পুলিশের পক্ষেও সামলানো মুশকিল হয়ে যাবে। সে কারণেই এবছর মন্দিরের ঘাটগুলিতে তর্পণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

[আরও পড়ুন: বৈচিত্রময় ভারত! জানেন, কর্ণাটকের একাধিক মন্দিরে প্রসাদ হিসেবে দেওয়া হয় গাঁজা?]

Tarpan

 

মন্দির কমিটি সূত্রে খবর, চাঁদনী ঘাট, সীমার ঘাট ও পঞ্চবটি ঘাট তিনটিই মহালয়ার দিন বন্ধ রাখা হবে। তবে ওই দিন মন্দির খোলা থাকবে কি না সে বিষয়ে এখনও কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানায়নি মন্দির কর্তৃপক্ষ। তবে সূত্রের খবর, বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের তরফে মন্দির কর্তৃপক্ষকে মহালয়ার দিন দর্শনার্থীদের জন্য মন্দির বন্ধ রাখার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

শুধু দক্ষিণেশ্বর নয়, বারাকপুরের গান্ধী ঘাট, মঙ্গল পাণ্ডে ঘাটের মতো জায়গাগুলিতেও তর্পণ বন্ধ রাখার বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করছেন বারাকপুর পুলিশ কমিশনারেটের কর্তারা। বারাকপুরের পুলিশ কমিশনার মনোজ ভার্মা জানান, “কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের নির্দেশিকায় স্পষ্ট জানানো হয়েছে যে, এই পরিস্থিতিতে কোনও ধর্মীয় সমাবেশ করা যাবে না। সরকারের নির্দেশ মেনেই যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

[আরও পড়ুন: আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর ‘‌পিতৃপক্ষ’‌ শেষ হলেই শুরু হবে রাম মন্দির তৈরির কাজ, জানাল ট্রাস্ট]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement