BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ৮ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

ফাইনালে স্টোকসের এই অনুরোধ আম্পায়ার রাখলে বিশ্বকাপ নাও জিততে পারত ইংল্যান্ড

Published by: Sulaya Singha |    Posted: July 17, 2019 6:43 pm|    Updated: July 17, 2019 6:43 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একটা ওভার থ্রো বদলে দিয়েছিল বিশ্বকাপ ফাইনালের ছবিটা। নির্ধারিত ইনিংসের শেষ ওভারে মার্টিন গাপ্তিলের ওভার থ্রো বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারির বাইরে বল চলে না গেলে হয়তো ফলাফল অন্যরকম হত। হয়তো বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের পাশে অন্য কারও নাম লেখা থাকত সোনালি অক্ষরে। কিন্তু তেমন হয়নি। ম্যাচ টাই করেও বাউন্ডারি কাউন্টের নিয়মে জয়ী ঘোষিত হয় ইংল্যান্ড। তবে বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পর শিরোনামে উঠে এল নতুন একটি খবর। সেদিন নাকি নিউজিল্যান্ডের দিকেই ম্যাচ ঘুরে যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা ছিল। বেন স্টোকসের একটি কথাতেই ইংল্যান্ডের সৌভাগ্য দুর্ভাগ্যে পরিণত হতে পারত। সে কথাই এবার সামনে আনলেন জেমস অ্যান্ডারসন।

[আরও পড়ুন: ক্যারিবিয়ান সফরে যাচ্ছেন না, ভারতীয় দলে বদলে যাচ্ছে ধোনির ভূমিকা]

ফাইনালে ব্যক্তিগত অপরাজিত ৮৪ রানের ইনিংস খেলেন স্টোকস। শেষ ওভারে সিঙ্গল নেওয়ার পর দ্বিতীয় রান নেওয়ার সময় গাপ্তিলের থ্রো স্টোকসের ব্যাটে লেগে বাউন্ডারি হয়ে যায়। গুরুত্বপূর্ণ ওই সময়ে ৩ বলে ৯ রান থেকে ইংল্যান্ডের টার্গেট হয়ে দাঁড়ায় ২ বলে ৩ রান। সেখান থেকে খেলা টাই হয়। কিন্তু প্রাক্তন ইংলিশ পেসার অ্যান্ডারসন জানাচ্ছেন, সে সময় নাকি আম্পায়ারের কাছে এগিয়ে যান স্টোকস। বলেন, অনিচ্ছাকৃত তাঁর ব্যাটে লেগে বল বাউন্ডারির বাইরে চলে গিয়েছে। তাই ওই চার রান যেন না দেওয়া হয়। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে জন্মানো অলরাউন্ডারের অনুরোধ খারিজ হয়ে যায়। আম্পায়াররা জানিয়ে দেন, নিয়ম মেনেই এই রান চলে যাবে ইংল্যান্ডের খাতায়। ম্যাচ শেষে এর জন্য কিউয়ি অধিনায়ক উইলিয়ামসনের কাছে ক্ষমাও চেয়েছিলেন স্টোকস।

“সাধারণত খেলোয়াড়ি আচরণ মেনে উইকেটে তাক করে কোনও থ্রো করা হলে তা যদি ব্যাটসম্যানের ব্যাটে লেগে তা এগিয়ে যায় তাহলে ব্যাটসম্যান রান নেন না। কিন্তু তা যদি বাউন্ডারি পেরিয়ে যায় তাহলে তা চার হিসেবেই গণ্য হয়। পরে জানতে পারি স্টোকস আম্পায়ারকে চার রান না দিতে বলেছিল। তবে নিয়ম মেনেই ইংল্যান্ডের স্কোরবোর্ডে ওই রান যোগ হয়।” বলেন জিমি। ফাইনালে স্টোকসের পারফরম্যান্স এমনিতেই মন্ত্রমুগ্ধ করেছে ব্রিটেনকে। এবার তাঁর ক্রিকেটীয় স্পিরিটও অবাক করছে বিশ্বকে। জিমির এই কথায় যে স্টোকসের প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধা আরও বেড়ে গেল ক্রিকেটপ্রেমীদের, তা বলাই বাহুল্য।

[আরও পড়ুন: কোচ ও সহকারী বেছে নিল কেকেআর, প্রাক্তন দুই নাইটের উপরই ভরসা রাখল দল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement