BREAKING NEWS

১৫ ফাল্গুন  ১৪২৭  রবিবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কঠিন ভারত সফর, প্রথম দু’টি টেস্টের জন্য স্টোকস-আর্চারকে দলে ফেরাল ইংল্যান্ড

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: January 22, 2021 4:54 pm|    Updated: January 22, 2021 4:54 pm

An Images

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়া (Australia) সফর অতীত। এবার দেশের মাঠে জো রুটদের মুখোমুখি হতে হবে বিরাট কোহলিদের (Virat Kohli)। ইতিমধ্যে প্রথম দু’টি টেস্টের জন্য ভারতীয় দল ঘোষণাও করে দিয়েছে বিসিসিআই (BCCI)। একইভাবে এবার প্রথম দু’ টেস্টের জন্য দল ঘোষণা করল ইংল্যান্ডও (England)। কঠিন ভারত সফরের আগে ইংল্যান্ড দলে এলেন দুই তারকা বেন স্টোকস এবং জোফ্রা আর্চার।

জানা গিয়েছে, প্রথম দু’টেস্টের জন্য দলের অধিনায়কত্ব করবেন জো রুট। শ্রীলঙ্কা সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হলেও, বিরাটদের বিরুদ্ধে ফিরলেন আর্চার ও স্টোকস। আর্চার ছাড়াও পেসারদের মধ্যে রয়েছেন ওলি স্টোন, ক্রিস ওকস ও স্টুয়ার্ট ব্রড। আবার স্টোকস ছাড়া তারকা অলরাউন্ডারদের মধ্যে সুযোগ পেয়েছেন মইন আলি। তবে ইংল্যান্ডের প্রথম দুই টেস্টে থাকলেন না জনি বেয়ারস্টো, স্যাম কুরান ও মার্ক উড। তিনজনকেই বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: জাতীয় দলে সুযোগ পেতে এবার বোর্ডের নয়া ফিটনেস টেস্টেও পাশ করতে হবে ক্রিকেটারদের]

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে আপাতত টেস্ট সিরিজ খেলতে ব্যস্ত জো রুটরা। সেখান থেকে সোজা ভারতে আসবেন তাঁরা। প্রথম দুটো টেস্ট খেলা হবে চেন্নাইয়ে। পরের দুটো টেস্ট আমেদাবাদে। টেস্ট সিরিজের পরই আবার রয়েছে টি-টোয়েন্টি সিরিজও। যার সবক’টা ম্যাচই হবে আমেদাবাদে। সবার শেষে তিন ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ। সেই ম্যাচগুলো আয়োজিত হবে পুণেতে।

এদিকে, অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে খেলার থেকেও ভারত সফর অনেক বেশি কঠিন হতে চলেছে জো রুটদের জন্য। তাই অ্যাসেজের কথা না ভেবে বিরাটদের হারানোর ব্যাপারেই ইংল্যান্ড দলকে মনসংযোগ করার পরামর্শ দিলেন প্রাক্তন ইংল্যান্ড স্পিনার গ্রেম সোয়ান। এক সাক্ষাৎকারে ইংল্যান্ডের ভারত সফর প্রসঙ্গে তিনি মন্তব্য করেন, “ইংল্যান্ড সবসময় বলে, অ্যাসেজ আসছে। কিন্তু এই অস্ট্রেলিয়া এখন আর বিশ্বের সেরা দল নয়। হ্যাঁ, আগে ওঁরা দুরন্ত দল ছিল, কিন্তু এখন আর নয়। তবুও আমরা অস্ট্রেলিয়া নিয়েই সবসময় ভাবতে থাকি। অ্যাসেজের বাইরেও অন্য কিছু নিয়ে আমাদের ভাবতে হবে। ভারতের মাটিতে ভারতকে হারানোই এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। ২০১২ সালে আমরাই ভারতকে হারিয়েছি, তারপর থেকে ভারতকে ওদের ঘরের মাঠে হারানো খুবই কঠিন।” এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেন, ২০১২ সালে কেভিন পিটারসেন যে পারফরম্যান্স করেছিলেন, এবারের সফরেও ইংল্যান্ডের হয়ে কাউকে সেরকম খেলতে হবে।

[আরও পড়ুন: করোনার জন্য এবছরও বাতিল অলিম্পিক! গোপন বৈঠকে সিদ্ধান্ত জাপান সরকারের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement