২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বকাপে ভারতের অভিযান শেষ হতেই মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে দিন দিন যে ভাবে নিত্যনতুন নাটক জন্ম নিচ্ছে, অত নাটকীয়তা তাঁর সুপারডুপার হিট বায়োপিকেও ছিল কি না সন্দেহ! মহির অবসর জল্পনায় নতুন মাত্রা যোগ হল বিসিসিআই সূত্রের এক খবর। মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নাকি ভারতীয় টিম থেকেই এখন অবসর নিতে বারণ করা হয়েছে! আর সেটা টিমেরই স্বার্থে, ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে!

[আরও পড়ুন: ধোনির সেনা প্রশিক্ষণে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্তকে অসম্মান কিংবদন্তি ইংরেজ ক্রিকেটারের]

ভারতীয় ক্রিকেটে কাপ উত্তর পরবর্তী কয়েক দিনে দেশজুড়ে আলোচনার প্রধান বস্তু ছিল, ধোনি এরপর কী করবেন? ক্রিকেট কেরিয়ারের সমাপ্তি ঘোষণা করে সরে যাবেন? নাকি ভারতীয় বোর্ড এবার তাঁকে বাধ্য হয়ে কোনও বার্তা দেবে? মধ্যবর্তী সময়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দল নির্বাচনী বৈঠক ঘিরে নাটক আরও চরমে ওঠে। বৈঠকের একদিন আগে ধোনি বোর্ডকে বলে দেন, তিনি আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে নেই। আগামী দু’মাস ক্রিকেট থেকে ছুটি নিয়ে তিনি সেনাবাহিনীতে ট্রেনিং নেবেন। এবং বৈঠক শেষে জাতীয় নির্বাচক কমিটির প্রধান এমএসকে প্রসাদ বলে দেন, “ধোনির মতো কিংবদন্তি ক্রিকেটার সবচেয়ে ভাল জানে কখন অবসর নিতে হবে। কিন্তু টিমের ভবিষ্যৎ রোডম্যাপ নির্ধারণ নির্বাচকদের হাতে। ঋষভকে তিনটে ফর্ম্যাটেই সুযোগ দেব।”

[আরও পড়ুন: ক্রিকেটের বিরতিতে কাশ্মীরে ধোনি, সামরিক প্রশিক্ষণের অনুমতি দিলেন সেনাপ্রধান]

নির্বাচক প্রধানের এ হেন ঘোষণার পর প্রশ্ন উঠতে শুরু করে, সেনাবাহিনীর ট্রেনিং সেরে ফিরে এসে যদি ধোনি ফের খেলতে চান, তখন কী করবে নির্বাচক কমিটি? তারা একইরকম ভাবে ঋষভ নিয়ে নিজেদের স্ট্যান্ড ধরে রাখবে? ভবিষ্যতের কথা ভাববে ধোনির মতো বিশাল নামকে অগ্রাহ্য করে? এসব প্রশ্নের মধ্যেই নতুন খবর ক্রিকেটমহলে। সোমবার খবর ছড়ায় ধোনিকে অবসর নিতে বারণ করেছে স্বয়ং ভারতীয় টিমই। আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের কথা ভেবে নিশ্চয়ই ঋষভ পন্থকে তৈরি করা হবে। কিন্তু টিম এখনই চায় না, ধোনি অবসর নিয়ে নিন। বলা হচ্ছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে কোনও কারণে যদি পন্থের চোট লেগে যায় বা তিনি প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ হন, তখন কী হবে? ধোনি তার আগে অবসরে চলে যাওয়া মানে তখন বিশাল এক শূন্যতা তৈরি হয়ে যাওয়া। তার চেয়ে ধোনি অবসর না নিয়ে যদি থাকেন, ঋষভের মেন্টরিংয়ের কাজ করেন, সবচেয়ে ভাল। একইসঙ্গে তিনি ব্যাক আপ হিসেবেও থাকতে পারবেন। ঋষভ যদি কোনও কারণে চোট পান বা তাঁর পারফরম্যান্স আশানুরূপ না হয়, ধোনি তখন থাকবেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং