৩০ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিনি পাক কিংবদন্তি। বিশ্বজোড়া নাম। বাইশ গজের সুলতান অফ সুইং নামে খ্যাত তিনি। অথচ সেই ওয়াসিম আক্রমকেই কিনা চূড়ান্ত হেনস্তার মুখে পড়তে হল!

ঘটনা ম্যাঞ্চেস্টার বিমানবন্দরের। প্রাক্তন পাক তারকা সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই গোটা ঘটনার বর্ণনা দিয়ে ক্ষোভ উগরে দেন। আক্রম জানান, তাঁর সঙ্গে ইনসুলিন থাকায় প্রকাশ্যে তাঁকে অপমান করেন বিমানবন্দরের কর্মীরা। রীতিমতো অভব্য আচরণ করে জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়। টুইটারে তিনি লেখেন, “আজ ম্যাঞ্চেস্টার বিমানবন্দরে যা হল, তাতে আমি অত্যন্ত দুঃখিত। আমি ইনসুলিন সঙ্গে করেই বিশ্বের নানা জায়গায় ঘুরে বেড়াই। কিন্তু কখনও তার জন্য এতটা লজ্জিত হতে হয়নি। আমায় চূড়ান্ত অপমান করা হয়েছে। অভদ্রভাবে প্রশ্ন করা হয়েছে। আর অন্যান্য যাত্রীদের সামনেই ট্রাভেল কেস থেকে ইনসুলিন বের করে তা প্লাস্টিক ব্যাগে ফেলে দিতে বলা হয়।” বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের এমন আচরণে অত্যন্ত হতাশ ও ক্ষুব্ধ আক্রম।

[আরও পড়ুন: ভারতীয় দলের কোচ হতে চেয়ে আবেদন জয়বর্ধনের! লড়াইয়ে একাধিক হেভিওয়েট]

দেশের জার্সি গায়ে ১০৪টি টেস্টে ৪১৪ উইকেটের মালিক তিনি। ৩৫৬টি ওয়ানডে-তে ৫০২টি উইকেট তাঁর ঝুলিতে। ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর পরও বাইশ গজের কাছাকাছিই থেকেছেন। কখনও কোচ তো কখনও বিশেষজ্ঞ হিসেবে। সম্প্রতি ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে ধারাভাষ্যকরের ভূমিকাতেও দেখা গিয়েছিল তাঁকে। মঙ্গলবার তাঁর টুইটটি ভাইরাল হতেই খবর পৌঁছায় ম্যাঞ্চেস্টার বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে। টুইটারে আক্রমকে উত্তরও দেয় তারা। লেখে, “বিষয়টি সামনে আনার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনি যদি সরাসরি বিষয়টি আমাদের জানান, তাহলে আমরা তাতে আলোকপাত করতে পারি।” এবার দেখার আক্রমের সঙ্গে অভব্য আচরণ করায় বিমানবন্দর কর্মীদের শাস্তির মুখে পড়তে হয় কিনা।

[আরও পড়ুন: লক্ষ্য টি-২০ বিশ্বকাপ, ধোনিকে অবসর নিতে বারণ করছে টিম ম্যানেজমেন্টই]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং