BREAKING NEWS

৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২৫ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ইমরান ‘ড্রাগখোর’, কোকেন নিতেন! বিস্ফোরক দাবি পাক প্রধানমন্ত্রীর একসময়ের সতীর্থের

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 3, 2020 1:48 pm|    Updated: November 3, 2020 1:56 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সম্পর্কে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন তাঁর একদা সঙ্গী ক্রিকেটার সরফরাজ নওয়াজ। তাঁর দাবি, তিনি ইমরানকে ড্রাগ নিতে দেখেছেন। সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওয় এমনই কথা বলতে শোনা যাচ্ছে প্রাক্তন পাক পেসারকে।

সাতের দশক থেকে আটের দশকের মাঝামাঝি সময়ে পাকিস্তানের অন্যতম সেরা দুই বোলার ছিলেন ইমরান ও সরফরাজ। তাঁদের জুটি ছিল অত্যন্ত জনপ্রিয়। নিজের একসময়ের সতীর্থের বিরুদ্ধেই এবার অভিযোগ জানালেন প্রাক্তন পেসার। তাঁর দাবি, কেবল তিনিই নন, অনেকেই ইমরানকে ড্রাগ সেবন করতে দেখেছেন। অভিযোগ মিথ্যা হলে ইমরান তাঁকে আদালতে টেনে নিয়ে যেতে পারেন বলেও চ্যালেঞ্জ সরফরাজের।

Sarfaraz Nawaz and Imran Khan

[আরও পড়ুন: ৬০তম জন্মদিন পালনের পর পরই ফের অসুস্থ মারাদোনা, ভরতি হাসপাতালে]

অভিযোগ, ১৯৮৭ সালে পাকিস্তান বনাম ইংল্যান্ডের এক টেস্ট ম্যাচ চলাকালীন ইমরান সরফরাজের ইসলামাবাদের বাড়িতে আসেন। সেখানেই পাক তারকাকে ড্রাগ নিতে দেখেন তাঁর সঙ্গী পেসার। সেসময় ইমরান ভালো খেলতে পারছিলেন না বলেও জানিয়েছেন‌ সরফরাজ। সেদিন ইমরানের সঙ্গে ছিলেন মহসিন খান, আবদুল কাদির, সেলিম মালিকও। সেই সময় তাঁরা সকলে মিলে চরস খেয়েছিলেন বলে দাবি করেছেন প্রবীণ পেসার। পাশাপাশি জানিয়েছেন, তিনি লন্ড‌নেও কাগজে পাকিয়ে কোকেন সেবন করতে দেখেছেন ইমরানকে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীও এই অভিযোগ অস্বীকার করতে পারবেন না বলে দাবি সরফরাজের। তিনি বলছেন, ‘‘আপনারা ওঁকে আমার সামনে নিয়ে আসুন। দেখি, ও কীভাবে অস্বীকার করে। আমি তো একা সাক্ষী ছিলাম না। লন্ডনে অনেকেই ওকে এটা করতে দেখেছে।’’

[আরও পড়ুন: বিতর্কের ইতি, এটিকে-মোহনবাগানের জার্সি থেকে সরছে ৩টি স্টার, বদলাচ্ছে বিজ্ঞাপনও]

উল্লেখ্য, ১৯৬৯ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছিল সরফরাজের। ক্রিকেট ইতিহাসে তিনি পরিচিত রিভার্স সুইয়ের আবিষ্কর্তা হিসেবে। ক্রিকেট ছাড়ার পরে ইমরান খানের মতো তিনিও রাজনীতিতে যোগ দিয়েছিলেন। ১৯৮৫ সালে তিনি পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত হন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement