BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দিল্লির বিরুদ্ধে দুরন্ত ব্যাটিং করা ঋদ্ধিমানের চোট কতটা গুরুতর?‌ জানাল সানরাইজার্স শিবির

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 28, 2020 9:50 pm|    Updated: October 28, 2020 9:50 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ ৪৫ বলে ৮৭। মঙ্গলবার বাংলার ঋদ্ধিমান সাহার এই একটি ইনিংস প্লে–অফের লড়াইয়ে রেখে দিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে (Sunrisers Hyderabad)। অস্ট্রেলিয়া (Australia) সফরে ডাক পাওয়ার পরই ব্যাটে রান, স্বভাবতই খুশি হওয়ার কথা হলেও তা আর থাকতে পারছেন না ঋদ্ধিমান সাহা (Wriddhiman Saha)। কারণ তাঁর চোট। ব্যাট হাতে দুরন্ত খেললেও পরে আর কিপিং করেননি। আর সেটাই এবার চিন্তায় ফেলে দিয়েছে ভারতীয় শিবিরকেও। 

যদিও হায়দরাবাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ঋদ্ধির চোট খুব গুরুতর নয়। ভারতীয় দলের চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেই পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে। আপাতত চোটের দিকে নজর রাখা হচ্ছে। পরবর্তী ব্যাঙ্গালোর ম্যাচেও বাংলার উইকেটরক্ষক খেলবেন কি না তা জানানো হয়নি হায়দরাবাদ শিবিরের পক্ষ থেকে। ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনেও একথা জানিয়েছিলেন অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। আইপিএল শেষ হলেই দুবাই থেকে সরাসরি অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবেন ক্রিকেটাররা।

[আরও পড়ুন: ভাইরাল CSK’র রঙে রাঙানো ধোনিভক্তর বাড়ি, ফ্যানের কাণ্ড দেখে কী বললেন ক্যাপ্টেন কুল?]‌

ইতিমধ্যে অজি সফরে নির্বাচিত ক্রিকেটারদের ফিটনেস কিংবা চোট থাকলে সেদিকে বিশেষ নজর রাখতে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে বোর্ড। তাছাড়া ভারতীয় টেস্ট দলে ঋদ্ধিমান অপরিহার্য সদস্য। তাই আরও বেশি সাবধানী টিম ইন্ডিয়া। এদিকে, ঋদ্ধির এই ইনিংসের প্রশংসায় কিন্তু পঞ্চমুখ ভারতীয় দলের কোচ রবি শাস্ত্রী (Ravi Shastri) থেকে প্রাক্তন ক্রিকেটার শচীন তেণ্ডুলকরও (Sachin Tendulkar)। 

অন্যদিকে, এই ম্যাচেই আবার বিতর্কে জড়িয়েছেন আম্পায়ার অনিল চৌধুরি। তাঁর বিরুদ্ধে ওয়ার্নারের হায়দরাবাদকে সাহায্য করার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি কী?‌ ম্যাচে তখন ব্যাট করছিলেন দিল্লি ক্যাপিটালসের রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তাঁর বিরুদ্ধে এলবিডব্লুউয়ের আবেদন জানান ওয়ার্নাররা। কিন্তু অনিল চৌধুরি তা নাকচ করে জানিয়ে দেন বল ব্যাটে লেগেছে। আর এই নিয়েই প্রশ্ন তোলেন ধারভাষ্যকাররা। এমনকী অনেক ক্রিকেটপ্রেমীও সোশ্যাল মিডিয়ায় এই বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তাঁদের কথায়, এই ভাবে আম্পায়ার ওয়ার্নারদেরই সাহায্য করলেন। তিনি যদি বল ব্যাটে লাগার কথাটি না বলতেন, তাহলে রিভিউ নিতে পারতেন হায়দরাবাদ অধিনায়ক। সেক্ষেত্রে তাঁদের রিভিউটি বেঁচে গেল অনিল চৌধুরির বদান্যতায়।

[আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়া সফরের সূচি ঘোষণা হতেই ধোনিকে ধন্যবাদ দিচ্ছে BCCI, কেন জানেন?]‌ 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement