BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রতারিত ধোনি! নামী সংস্থার বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের মাহির

Published by: Tanujit Das |    Posted: April 28, 2019 1:01 pm|    Updated: April 28, 2019 1:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রতারণার শিকার ক্রিকেটর মহেন্দ্র সিং ধোনি৷ আম্রপালি গ্রুপ নামের একটি সংস্থার বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে প্রতারণার মামলা দায়ের করলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক৷ ধোনির অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে তাঁর পারিশ্রমিক আটকে রেখেছে সংস্থাটি৷ এবং ওই সংস্থার তৈরি একটি বিলাশবহুল পেন্টহাউজ কিনছিলেন ধোনি৷ সেই সম্পত্তি-ও তাঁকে হস্তান্তর করা হয়নি৷

[ আরও পড়ুন: বিনা অনুমতিতে সভা, গম্ভীরের বিরুদ্ধে মামলা কমিশনের]

শীর্ষ আদালতে ধোনির তরফে দায়ের হওয়া মামলায় স্পষ্ট অভিযোগ করা হয়েছে, সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হিসাবে তাঁকে নিয়োগ করে আম্প্রপালি গ্রুপ৷ সংস্থার প্রচারের মুখ ছিলেন তিনি৷ এরপর রাঁচিতে ওই সংস্থার তৈরি একটি পেন্টহাউজও বুক করেছিলেন তিনি৷ অনেকদিন আগেই সংস্থার সঙ্গে তাঁর চুক্তি শেষ হয়ে যায়৷ কিন্তু সংস্থার কাছে বাকি রয়ে গিয়েছে তাঁর পরিশ্রমিক৷ কিন্তু তাঁর সঙ্গে কোনও যোগাযোগই করছে না সংস্থাটি৷ এমনকী, ধোনির তরফে সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও, কোনও উত্তর দেওয়া হচ্ছে না৷ ফলে এখনও আম্প্রপালি গ্রুপের কাছে আটকে রয়েছে ধোনির মোটা অংকের পারিশ্রমিক৷ এবং এখনও তাঁকে পেন্টহাউজের মালিকানাও হস্তান্তর করেনি সংস্থাটি৷

[ আরও পড়ুন: অস্ত্রোপচারেই ক্যানসার থেকে রেহাই, গোমূত্রের তত্ত্ব উড়িয়ে দাবি সাধ্বীর চিকিৎসকের ]

জানা গিয়েছে, ২০০৯ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হিসাবে আম্রপালি গ্রুপের প্রচারের মুখ ছিলেন ধোনি৷ সেই সময় সংস্থার একাধিক বিজ্ঞাপনে দেখা গিয়েছে তাঁকে৷ কেবল ধোনি’ই নন, তাঁর স্ত্রী সাক্ষী ধোনিও সংস্থার সমাজসেবামূলক কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন৷ ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়কের দাবি, আম্রপালি গ্রুপের কাছে এখনও পারিশ্রমিক বাবদ ৪০ কোটি টাকা পাওনা রয়েছে তাঁর৷ ধোনি একাই নন। সূত্রের খবর, এই সংস্থার দ্বারা প্রতারিতদের সংখ্যাটা প্রায় ৪৬ হাজার৷ প্রত্যেকেরই অভিযোগ, বাড়ি বা ফ্ল্যাট কেনার জন্য ওই সংস্থাকে টাকা দিয়েছিলেন তাঁরা৷ কিন্তু নির্দিষ্ট সময় অতিক্রম করে গেলেও সেই সম্পত্তি হাতে পাননি৷

এই বিষয়ে অভিযোগ জানিয়ে আদালতেও যান অনেকে৷ গত ২৫ জানুয়ারি আদালতের তরফে সরকারের অধীনস্থ সংস্থা এনবিসিসিকে নির্দেশ দেওয়া হয়, আম্রপালি গ্রুপের দুটি হাউজিং প্রজেক্টের কাজ দ্রুততার সঙ্গে শেষ করার৷ এবং প্রতারণার অভিযোগে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সংস্থার সিএমডি অনিল শর্মা এবং দু’জন ডিরেক্টর শিব দেওয়ানি ও অজয় কুমারকে পুলিশ হেফাজতে পাঠায় আদালত৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement