Advertisement
Advertisement
Mumbai Indians

ধীর গতিতে শুরু করেও বাজিমাত, দিল্লিকে হারিয়ে প্রথম মহিলা IPL চ্যাম্পিয়ন হরমনপ্রীতের মুম্বই

মুম্বইয়ের জন্য গলা ফাটাতে স্টেডিয়ামে পৌঁছে গিয়েছিলেন স্বয়ং ক্রিকেট ঈশ্বর শচীন তেণ্ডুলকর।

Mumbai Indians beat Delhi Capitals and clinched maiden WPL Trophy | Sangbad Pratidin
Published by: Sulaya Singha
  • Posted:March 26, 2023 10:44 pm
  • Updated:March 26, 2023 10:52 pm

দিল্লি ক্যাপিটালস: ১৩১/৯ (ল্যানিং-৩৫, শিখা-২৭*, রাধা-২৭*, ওং- ৪২/৩, হ্যালি-৫/৩)
মুম্বই ইন্ডিয়ান্স: ১৩৪/৩ (ন্যাট-৬০*, হরমনপ্রীত-৩৭)
সাত উইকেটে জয়ী মুম্বই ইন্ডিয়ান্স

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টি-টোয়েন্টিতে কোন মুহূর্তে খেলার মোড় বদলে যায় বলা মুশকিল। আর ঠিক এটাই হল এই ফরম্যাটের ইউএসপি। তেমনই এক রুদ্ধশ্বাস রোলার-কোস্টার ফাইনালের সাক্ষী রইলেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। ভারত অধিনায়ক হরমনপ্রীত কৌরের হাত ধরেই মহিলা আইপিএলের প্রথম মরশুমের ট্রফি ঘরে তুলল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স।

Advertisement

আইপিএলের ঢঙে মহিলা ক্রিকেট টুর্নামেন্ট চালু করলে কি দর্শকরা আগ্রহী হবেন? এমন প্রশ্নের জেরেই বারবার পিছিয়েছিল মহিলাদের ক্লাব ক্রিকেটের আয়োজন। অবশেষে সব প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে চলতি বছর বাস্তবায়িত হয় ডব্লিউপিএল (WPL 2023)। আর উদ্বোধনী মরশুমেই বাজিমাত। দুর্দান্ত ব্যাটিং ও বোলিং পারফরম্যান্সে ক্রিকেটভক্তদের মন কাড়তে সফল মহিলারা। আর এই সফল মরশুমের চ্যাম্পিয়নের তকমা গায়ে চাপল হরমনপ্রীতদের গায়ে।

Advertisement

লিগ টেবিলের এক নম্বরে থেকে সরাসরি উইমেন্স প্রিমিয়র লিগের ফাইনালে উঠেছিল দিল্লি। পরে এলিমিনেটরের বাধা টপকে ঝুলন গোস্বামীদের মুম্বই ঢুকে পড়ে খেতাবি দৌড়ে। রবিবাসরীয় সন্ধেয় ধীর গতিতে শুরু করেও ন্যাট সিভর ও হরমনপ্রীতের দাপুটে ব্যাটিংয়ে ঘুরে দাঁড়ায় হোম ফেভারিটরা। ন্যাট সিভরের  অনবদ্য আত্মবিশ্বাসী পারফরম্যান্সেই দিল্লিকে পরাস্ত করল নীতা আম্বানির দল। করবে না-ই বা কেন! ইয়াস্তিকা, পূজাদের জন্য গলা ফাটাতে ব্রেবর্ন স্টেডিয়ামে যে পৌঁছে গিয়েছিলেন স্বয়ং ক্রিকেট ঈশ্বর। শচীন তেণ্ডুলকরের সামনেই প্রথমবার ট্রফি জয়ের স্বাদ পেলেন হরমনপ্রীতরা।

[আরও পড়ুন: IPL 2023: কেমন দল গড়ল ধোনির চেন্নাই? একনজরে দেখে নিন ইয়েলো আর্মির শক্তি-দুর্বলতা]

এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে পরপর উইকেট খুইয়ে বসে দিল্লি। ক্যাপ্টেন ল্যানিং ৩৫ রান করলেও চূড়ান্ত হতাশ করেন মিডল অর্ডার ব্যাটাররা। ওং ও হ্যালি ম্যাথিউস তিনটি করে উইকেট তুলে নেন। ৭৯ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে রীতিমতো চাপে পড়ে যায় দিল্লি। একটা সময় যখন মনে হচ্ছিল হয়তো তিন সংখ্যাও ছুঁতে পারবে না দল, তখন শিখা পাণ্ডের সঙ্গে জুটি বেঁধে শেষ উইকেটে দারুণ লড়াই করেন রাধা যাদব। স্কোরবোর্ডে ১৩১ রান তুলে দলকে লড়াইয়ের রশদ দেন তাঁরা। দিল্লির বোলাররাও শুরুটা মন্দ করেননি। দুই ওপেনার হ্যালি ও ইয়াস্তিকাকে দ্রুত প্যাভিলিয়নে ফেরান। কিন্তু তারপরই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে ফাইনাল জমিয়ে দেন হরমন ও ন্যাট। বাকিটা ইতিহাস।

মুম্বই চ্যাম্পিয়ন হতেই উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন মাঠে হাজির রোহিত শর্মা, ঈশান কিষান, শচীন তেণ্ডুলকর-সহ মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের তারকারা। বিদেশি ক্যাপ্টেনকে মাত দিয়ে প্রথমবার ডব্লিউপিএল খেতাব জিতে নিঃসন্দেহে তৃপ্ত হরমনপ্রীত। খুশি গোটা দেশও।

[আরও পড়ুন: ইতিহাস গড়ে দ্বিতীয়বার বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ভারতীয় বক্সার নিখাত জারিন, ছুঁলেন মেরি কমকে]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ