২২ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

বিদেশের মাটিতেই IPL! সরকারিভাবে টুর্নামেন্ট আয়োজনের প্রস্তাব পাঠাল এই দেশ

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 7, 2020 10:43 am|    Updated: June 7, 2020 10:43 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অপেক্ষা শুধু বিশ্বকাপ (ICC T20 World Cup 2020) বাতিল হওয়ার। যেনতেনপ্রকারেণ আইপিএল আয়োজন করতে চায় বিসিসিআই (BCCI)। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফে এই ইঙ্গিত মিলতেই আসরে নামল সংযুক্ত আরব আমিরশাহি (UAE)। এবছর নিজেদের দেশে আইপিএল আয়োজনের আগ্রহ দেখাল এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ড (Emirates Cricket Board) । বিসিসিআইয়ের কাছে সরকারিভাবে আইপিএল আয়োজনের প্রস্তাব পাঠাল তাঁরা। এর আগে ২০১৪ সালে আইপিএল আয়োজন করেছিল আমিরশাহি। 

আবু ধাবি থেকে শুরু করে শারজা, বিশ্ব ক্রিকেটে আমিরশাহি দল হিসেবে খুব একটা নাম করতে না পারলেও, একাধিক নামি স্টেডিয়াম আছে ওই দেশটিতে। এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ডের দাবি, অতীতে সফলভাবে বহু দ্বিপাক্ষিক বা বহু দেশীয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট সফলভাবে আয়োজন করেছে আমিরশাহি। একাধিকবার পাকিস্তান সুপার লিগও আয়োজিত হয়েছে আবু ধাবিতে। ২০১৪ সালে ভারতে লোকসভা নির্বাচনের সময় এই আমিরশাহিতেই বসেছিল আইপিএলের আসর। তাই আইপিএল আয়োজনের দায়িত্ব পেলে কোনও সমস্যা হবে না তাঁদের। আসলে আইপিএল আয়োজনের একটা বড় লাভজনক দিক আছে। কোটি টাকার এই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারলে আমিরশাহি ক্রিকেটও আর্থিকভাবে অনেকটা স্বচ্ছল হবে। তাই সুযোগ পেলেই লুফে নিতে চায় তাঁরা।

[আরও পড়ুন: আর্থিক ধাক্কা সত্বেও কাটা হচ্ছে না ক্রিকেটারদের বেতন, অন্য খাতে খরচ কমাচ্ছে BCCI]

যদিও, বিসিসিআই এখনও সম্ভব হলে দেশের মাটিতেই আইপিএল আয়োজন করতে চায়। নেহাতই যদি তা সম্ভব না হয়, তবেই বিদেশের মাটিতে যাওয়ায় প্রশ্ন আসছে। সেক্ষেত্রেও শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ আফ্রিকা এই টুর্নামেন্ট আয়োজনের দৌড়ে আছে। বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধূমল একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন,”যদি ভারতে খেলানোটা ক্রিকেটারদের জন্য নিরাপদ হয়, তাহলে অবশ্যই ভারতে আইপিএল হবে। কিন্তু যদি পরিস্থিতি অনুকূলে না যায়, এবং আমাদের কাছে অন্য কোনও বিকল্প না থাকে, তাহলে আমরা বিদেশে আইপিএল আয়োজনের চেষ্টা করতে পারি। এখন গোটা বিশ্বের পরিস্থিতিই কমবেশি একই। আমরা যদি দক্ষিণ আফ্রিকা, সংযুক্ত আরব আমিরশাহি বা শ্রীলঙ্কার কথা ভাবি, সব জায়গায় প্রায় একই পরিস্থিতি।” অর্থাৎ বোর্ডের অবস্থান স্পষ্ট, যদি টি-২০ বিশ্বকাপ না হয়, তবেই আইপিএল হবে। আর আইপিএল যদি বিদেশে করতে হয়, তাহলে সম্ভাব্য এই তিন দেশের মধ্যে সংক্রমণ যেখানে সবচেয়ে কম, সেখানেই করা হবে এই টুর্নামেন্ট।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement