BREAKING NEWS

১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘অত্যন্ত অসম্মানের’, কোহলির নেতৃত্ব কেড়ে নেওয়ায় বোর্ডের উপরে ক্ষুব্ধ সোশ্যাল মিডিয়া

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: December 9, 2021 2:33 pm|    Updated: December 9, 2021 6:53 pm

'Utter disrespect', social media enraged at BCCI for 'sacking' Virat Kohli as India's ODI captain| Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: টি-টোয়েন্টিতে নেতৃত্বের আর্মব্যান্ড আগেই পেয়েছিলেন রোহিত শর্মা। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঘরোয়া সিরিজে তাঁর নেতৃত্বে সিরিজ জেতে ভারত। টি টোয়েন্টির পরে ওয়ানডে-তেও ভারতীয় ক্রিকেটে প্রতিষ্ঠিত হল রোহিত-রাজ (Rohit Sharma)। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য ভারতীয় দল নির্বাচিত হয়েছে বুধবার। সেখানেই ঘোষণা করা হয়েছে বিরাট কোহলি (Virat Kohli) নন, রোহিত শর্মাই ওয়ানডের অধিনায়ক। সেই সঙ্গে অজিঙ্ক রাহানেকে সরিয়ে টেস্ট দলের সহ-অধিনায়কত্বও চলে এল রোহিতের হাতে।

অধিনায়কের নির্বাচন নিয়ে ঘোষণার ২৪ ঘণ্টাও হয়নি। এর মধ্যেই ভারতীয় ক্রিকেটের অন্দরমহলে খবর, ইচ্ছার বিরুদ্ধে একপ্রকার জোর করেই ওয়ানডে দলের অধিনায়কের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বিরাট কোহলিকে । এমনটাই দাবি করা হয়েছে একাধিক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে। বিরাট কোহলির হাত থেকে যেভাবে ওয়ানডের নেতৃত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে, তা দেখে মোটেও সন্তুষ্ট নন ভক্তরা।

[আরও পড়ুন: ওয়ানডে অধিনায়কত্ব ছাড়তে রাজি ছিলেন না কোহলি! জোর করেই নেতা বাছা হল রোহিতকে?]

সবাই অবশ্য এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে নয়। অনেকেই প্রশংসা করেছেন। সমালোচনা যাঁরা করেছেন, তাঁদের বক্তব্য একটাই, বিরাট কোহলির হাত থেকে যেভাবে ওয়ানডে-র নেতৃত্ব কেড়ে নেওয়া হয়েছে, তা ঠিক নয়। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (BCCI) তরফে টুইট করে জানানো হয়েছে, ”অল ইন্ডিয়া সিনিয়র সিলেকশন কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওয়ানডে ও টি টোয়েন্টি দলের নেতা হোক রোহিত শর্মা।” 

 

এখনও অবশ্য জানা যায়নি কোহলিকে ফোন কল করে জানানো হয়েছিল কিনা বা কোহলি নিজে দায়িত্ব ছাড়ার কথা বলেছিলেন কিনা। ঘটনা যাই হোক না কেন, অনুরাগীরা কিন্তু বোর্ডকে দুষেছেন। ক্ষোভপ্রকাশ করেছেন অনেকে। অধিনায়ক হিসেবে কোহলি যা অর্জন করেছেন, তাকেও স্বীকৃতি দেওয়া হয়নি বোর্ডের তরফ থেকে। এমনটাই অভিযোগ ভক্তদের। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের মতামত জানাতে সময় নষ্ট করেননি তাঁরা। একজন লিখেছেন, বিরাট কোহলিকে কেন বরখাস্ত করা হল ? ৬৫/৯৫ জয়ের পরিসংখ্যান, এটা কি ভাল নয়? বিশ্বকাপ জেতাই কি একমাত্র মানদণ্ড? গাঙ্গুলি-ধোনি কি বিশ্বকাপে হারেনি? হৃদয় বলছে, এতে ভারতীয় ক্রিকেটের খুব একটা ভাল হবে না। 

 

আর এক ভক্ত টুইট করেছেন, ওয়ানডে-র সর্বকালের সেরা ক্রিকেটারের প্রতি সম্পূর্ণ অশ্রদ্ধা দেখানো হয়েছে। একটাও ধন্যবাদ-টুইট নয়। কিচ্ছু না। শেম অন ইউ বিসিসিআই। শেম অন ইউ জয় শাহ।

অক্টোবরে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই বিরাট কোহলি টুইট করে জানিয়ে দিয়েছিলেন, দেশের টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব ছেড়ে দেবেন বিশ্বকাপের পরে। ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছিলেন, ওয়ানডে-তে তিনি অধিনায়ক হিসেবে কাজ করে যেতে চান। কিন্তু দ্রাবিড় জমানায় ওয়ানডের নেতৃত্বও কেড়ে নেওয়া হল কোহলির হাত থেকে। 

 

[আরও পড়ুন: ‘ভারতের সর্বকালের সেরা টেস্ট অধিনায়ক’, কোহলির প্রশংসায় পঞ্চমুখ পাঠান]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে