BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আগামী বছরে ঠাসা ক্রীড়াসূচি টিম ইন্ডিয়ার, ১২ মাসই খেলতে হবে কোহলিদের!

Published by: Sulaya Singha |    Posted: November 18, 2020 5:06 pm|    Updated: November 18, 2020 5:06 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মহামারীর (Corona Pandemic) জন্য চলতি বছরের অনেকখানি সময় স্তব্ধ ছিল ক্রিকেটের ২২ গজ। দীর্ঘদিন পর নিউ নর্মালে শুরু হয়েছে খেলা। আর করোনা পরবর্তী যুগে টিম ইন্ডিয়ার যাত্রা শুরু হচ্ছে ২৭ নভেম্বর। অর্থাৎ প্রায় বছরের শেষে। কিন্তু আগামী বছর নিঃশ্বাস ফেলারও সময় পাবেন না বিরাট কোহলিরা (Virat Kohli)। কারণ সূচি বলছে, ২০২১-এ ১২ মাসই ক্রিকেট মাঠে কাটাতে হবে ভারতকে।

লাগাতার সিরিজ নিয়ে অতীতেও আপত্তি তুলেছেন ক্রিকেটাররা। কিন্তু তাঁদের উপর চাপ হবে জেনেও আগামী বছর ঠাসা ক্রীড়াসূচি তৈরি করেছে বিসিসিআই (BCCI)। খবর এমনটাই। ২০২১ সালে মোট ১৪টি টেস্ট, ১৬টি ওয়ানডে ও ২৩টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে কোহলি অ্যান্ড কোং। এছাড়াও জুন মাসে রয়েছে এশিয়া কাপ (Asia Cup) টি-টোয়েন্টি এবং অক্টোবরে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। সরকারিভাবে এখনও ক্রীড়াসূচি ঘোষিত না হলেও জানা গিয়েছে অতিমারীর জন্য যে সমস্ত সিরিজ বাতিল হয়েছে, তা আয়োজন করবে বিসিসিআই। আর সেই জন্য একটানা খেলে যেতে হবে ভারতকে। বোর্ডের তরফে এক সিনিয়র আধিকারিক বলেন, “ক্রিকেটারদের সমস্যা হবে জানি। কিন্তু আমাদের প্রতিশ্রুতি পালন করতে হবে। তবে ক্রিকেটাররা যাতে দেশের হয়ে খেলার আগে পর্যাপ্ত বিশ্রাম পায়, তা আমরা নিশ্চিত করব। রোটেশন পদ্ধতিতে খেলানো হবে দলকে।” চলুন দেখে নেওয়া যাক আগামী বছর টিম ইন্ডিয়ার সফর কেমন হতে চলেছে।

[আরও পড়ুন: প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় হার, স্পেনের বিরুদ্ধে ৬ গোল খেল জার্মানি]

নভেম্বর থেকে জানুয়ারি পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবেন কোহলিরা। যার জন্য ইতিমধ্যেই সে দেশে পৌঁছে প্র্যাকটিস শুরু করে দিয়েছেন তাঁরা। উল্লেখ্য, বুধবারই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে জানানো হয়েছে, সদ্য বাবা হওয়া অজি পেসার কেন রিচার্ডসন সীমিত ওভারের সিরিজ থেকে নাম তুলে নিয়েছেন। তাঁর পরিবর্তে খেলবে অ্যান্ড্রু টাই। এবার ফেরা যাক ক্রীড়াসূচিতে।

অস্ট্রেলিয়া থেকে ফিরে জানুয়ারিতে ফিরে দেশের মাটিতে মুখোমুখি হবেন ইংল্যান্ডের। টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে এই পর্ব শেষ হবে মার্চে। ইংল্যান্ড ফিরে গেলেই মার্চে শুরু আইপিএল। মধ্য-মে পর্যন্ত চলার কথা। আইপিএল শেষ হলে শ্রীলঙ্কা উড়ে যাবে ভারতীয় দল। সেখানে সীমিত ওভারের সিরিজের পাশাপাশি খেলবে এশিয়া কাপ। জুলাইয়ে দলের যাওয়ার কথা জিম্বাবোয়েতে। সেখান থেকে ইংল্যান্ড গিয়ে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট খেলবে দল। যা শেষ হবে সেপ্টেম্বরে। দেশে ফিরে অক্টোবরে ওয়ানডে ও টো-টোয়েন্টি সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হবেন কোহলিরা। তারপরই শুরু চলতি বছর স্থগিত হওয়া বিশ্বকাপ। বছর শেষে ডিসেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যাওয়ার কথা টিম ইন্ডিয়ার। ক্রিকেটাররা কতখানি বিশ্রাম পাবেন, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

[আরও পড়ুন: ‘শাকিবের ক্ষমা চাওয়ার ভিডিও দেখে লজ্জা পেলাম’, ফেসবুকে দুঃখপ্রকাশ তসলিমার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement