৭ শ্রাবণ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুদীপ রায়চৌধুরি: আটটির মধ্যে সাতটি ম্যাচ জিতে চলতি বিশ্বকাপের শেষ চারে পৌঁছে গিয়েছে কোহলি অ্যান্ড কোং। আরও এবার বিশ্বজয়ের থেকে আর মাত্র দু’ধাপ দূরে টিম ইন্ডিয়া। মঙ্গলবার তাদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। যে ম্যাচ ঘিরে গোটা দেশের মতো কলকাতার ক্রিকেটপ্রেমীদের উন্মাদনাও তুঙ্গে। আর ক্রিকেট মরশুমে শহরের জনপ্রিয় গায়ক পিলু ভট্টাচার্য গান বাঁধবেন না, তাও কি হয়? ক্রীড়াদুনিয়ার যে কোনও বড় ইভেন্টেই ফ্যানদের একটি করে গান উপহার দেন তিনি। এবারও তার ব্যতিক্রম হল না।

খেলাধুলা নিয়ে সবচেয়ে বেশি গান তৈরি করা বিশিষ্ট শিল্পী পিলু ভট্টাচার্যের পরিচালনায় গত ৫ জুলাই শোভাবাজার রাজবাড়ির নাট মন্দিরে একটি মিউজিক ভিডিও প্রকাশিত হয়। ভারতীয় দলকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে তৈরি হয়েছে, “ইন্ডিয়া জিতেগা”র ভিডিও। বিশিষ্ট প্রাক্তন ক্রিকেটার এবং জাতীয় নির্বাচক সম্বরণ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং চিত্রকর সমীর আইচের হাত ধরে প্রকাশিত হয় এই মিউজিক ভিডিওটি। তবে কোহলিদের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি আরও একটি মহৎ উদ্দেশ্যেই তৈরি হয়েছে ভিডিওটি। সমগ্র অনুষ্ঠানটির রূপকার পিলু ভট্টাচার্য ঘোষণা করেন, এই মিউজিক ভিডিও থেকে প্রাপ্ত রয়্যালটি বিশিষ্ট নাট্য কর্মী দেবব্রত চক্রবর্তীর চিকিৎসা খাতে দেওয়া হবে। পাশাপাশি দুই থেকে বারো বছরের এইচআইভি আক্রান্ত শিশু এবং বয়স্কদের জন্য নিরলস কাজ করে যাওয়া আনন্দ ঘর এবং আপনজন নামে দুটি সংস্থাকেও অর্থ প্রদান করা হবে।

[আরও পড়ুন: ম্যাঞ্চেস্টারে বৃষ্টিতে ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ ভেস্তে গেলে কে যাবে ফাইনালে?]

বাংলা ও হিন্দি দুই ভাষাতেই লেখা হয়েছে গানটি। বাংলায় অ্যালবামটির গান লিখেছেন শ্রী উৎপল দাস এবং পিলু ভট্টাচার্য। সঞ্জীব তিওয়ারি লিখেছেন হিন্দিতে। বাংলায় গানটি গেয়েছেন পিলু ভট্টাচার্য এবং মাধুরী দে। হিন্দিতে পিলু ভট্টাচার্যের সঙ্গ দিয়েছেন সঞ্জীব তিওয়ারি। এছাড়া সুর এবং ভিডিও নির্দেশনাতেও সেই চেনা মুখ পিলু ভট্টাচার্য। প্রত্যেকের আশা, ১৯৮৩ ও ২০১১-র পর এবার কোহলির হাত ধরে দেশে তৃতীয়বার বিশ্বকাপ আসবে।

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের পরই বিজেপিতে যোগ ধোনির? জোর জল্পনা রাজনৈতিক মহলে]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং