২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

আই লিগের আগামী মরশুমে নেই মোহনবাগান, নতুন ক্লাব পেয়ে গেল AIFF

Published by: Sulaya Singha |    Posted: June 6, 2020 2:25 pm|    Updated: June 6, 2020 4:31 pm

An Images

দুলাল দে: করোনার প্রভাব, লকডাউন, বিশ্বজুড়ে আর্থিক মন্দা। কোনও কিছুই যেন প্রভাবিত করতে পারেনি ভারতীয় ফুটবলকে। নইলে এত সমস্যার মধ্যেও ফ্র্যাঞ্চাইজি টিম হিসেবে সামনের মরশুম থেকে আই লিগের নতুন দল অন্তর্ভুক্তি করার পরিকল্পনাই উঠত না। তবে পুরো ব্যাপারটা শুধু পরিকল্পনাতেই আটকে নেই। শুক্রবার আই লিগের নতুন দল নেওয়ার জন্য ফেডারেশনের তরফে সংবাদপত্রে বিড পেপার তোলার দিন ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে তা অন্য মাত্রা পেয়ে যায়। আর খোঁজ খবর নিয়ে যা জানা গেল, তাতে সামনের মরশুমে নতুন যে দলটি আই লিগে অন্তর্ভুক্তি হতে চলেছে তা হল দিল্লির ‘সুদেভা এফসি।’ যাদের মালিকানায় রয়েছে স্পেনের তৃতীয় ডিভিশন ক্লাব ‘সিডি অলিম্পিক স্তিভা’র মতো ক্লাবও।

মোহনবাগান যেহেতু পরের মরশুম থেকে আইএসএল খেলবে, তাই আসন্ন মরশুম থেকে আই লিগে নতুন একটা দলকে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য অনেকদিন ধরেই আগ্রহী ছিলেন ফেডারেশন কর্তারা। কিন্তু ফ্র্যাঞ্চাইজি দল হিসেবে সরাসরি আই লিগে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য বেশ কিছু নিয়মকানুন মেনে আবেদন করতে হয়। সেখানে প্রায় ৩ কোটি টাকার মতো ফেডারেশনকে জমা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেখাতে হয় হোম স্টেডিয়াম, সঙ্গে ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামও। তবে আগে যেমন টানা তিন বছর অবনমন ছিল না নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের, এখন সেই নিয়ম পরিবর্তন করে ঠিক হয়েছে, প্রথম বছর অবনমনের আওতায় থাকবে না ফ্র্যাঞ্চাইজি দল। দ্বিতীয় বছর থেকে অবশ্য অবনমনে পড়লে নেমে যেতে হবে দ্বিতীয় ডিভিশনে। এসব খোঁজ-খবর নিয়েই সুদেভা এফসির অন্যতম কর্ণধার অনুজ গুপ্ত যোগাযোগ করেন ফেডারেশন কর্তাদের সঙ্গে। তারপরেই ফেডারেশনের তরফে সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিয়ে আই লিগের নতুন দল নেওয়ার কথা বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: নভেম্বরেই যুবভারতীতে নামছেন সুনীলরা, ঘোষিত বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের পরিবর্তিত সূচি]

২০১৬ থেকে দিল্লি লিগে খেললেও সুদেভা এফসির দুই কর্নধার আইনজীবী অনুজ গুপ্ত এবং পরিবেশবিদ বিজয় হাকারি ফুটবলের প্রতি ভালবাসা থেকেই কিনে ফেলেছেন স্পেনের তৃতীয় ডিভিশন ক্লাব ‘সিডি অলিম্পিক স্তিভা’কে। এবার আই লিগের অন্তর্ভুক্ত হয়ে পা রাখতে চান ভারতীয় ফুটবলেও। গতকাল ফোনে অনুজ গুপ্ত বলেন, ‘‘বিড পেপার তোলার জন্য ১০ থেকে ২০ জুন পর্যন্ত সময় দেওয়া হলেও, আমরা ১০ জুনেই বিড পেপার তুলে ফেডারেশনে জমা দিয়ে দেব।”

স্পেনের তৃতীয় ডিভিশনে খেললেও উত্তর দিল্লিতে মূলক জুনিয়র ফুটবল ডেভেলপমেন্ট নিয়েই ব্যস্ত থাকেন দুই বন্ধু অনুজ গুপ্ত এবং বিজয় হাকারি। অনুজ গুপ্ত বলছিলেন, “বিজয়ের সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক করি, ভারতীয় ফুটবল ট্যালেন্টদের খুঁজে বার করতে হবে। এতদিন সেই কাজটাই করেছি। ২০১৬ সালে খুলে ফেলি নতুন ক্লাব ‘সুদেভা এফসি।’ স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠে আসে, আই লিগে খেললে কোন স্টেডিয়ামে হবে সুদেভা এফসির হোম ম্যাচ? অনুজ গুপ্ত বললেন, “দিল্লির আম্বেদকর স্টেডিয়ামকেই হোম গ্রাউন্ড হিসেবে দেখাব আমরা।’’

[আরও পড়ুন: টেস্ট ক্রিকেটে সত্যিই আসতে পারে ‘করোনা পরিবর্ত’, আলোচনা শুরু আইসিসিতে]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement