৭ ফাল্গুন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই জল্পনা চলছিল। অবশেষে এটিকে (ATK) এবং মোহনবাগানের ( Mohun Bagan) সংযুক্তিকরণের প্রস্তাবে সিলমোহর পড়ে গেল। বৃহস্পতিবার দুই ক্লাবের তরফেই সংযুক্তিকরণের এই সিদ্ধান্ত সরকারিভাবে ঘোষণা করা হল। আগামী মরশুমে আইএসএলে খেলবে নতুন দল এটিকে মোহনবাগান এফসি।

বৃহস্পতিবার এটিকের তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, আরপি-সঞ্জীব গোয়েঙ্কা-গ্রুপ মোহনবাগান অ্যাথলেটিক ক্লাবের ৮০ শতাংশ শেয়ার অধিগ্রহণ করছে। এর ফলে মোহনবাগান অ্যাথলেটিক ক্লাব প্রাইভেট লিমিটেডের হাতে ক্লাবের ২০ শতাংশ শেয়ার থাকবে। তবে, এই নতুন চুক্তির ফলে মোহনবাগানের অস্তিত্ব সংকটের কোনও প্রশ্নই ওঠে না। কারণ, যে এটিকে-মোহনবাগান এফসি তৈরি হচ্ছে, তাঁর লোগো এবং জার্সি মোহনবাগানেরই থাকবে।

[আরও পড়ুন: ঘরের মাঠে গোকুলামের কাছে হার, ডার্বির আগে চিন্তায় ইস্টবেঙ্গল]

মোহনবাগান এবং এটিকে দুটি দলই এই মুহূর্তে ভারতীয় ফুটবলের পাওয়ার হাউস। সবুজ মেরুনের সুদীর্ঘ ১৩০ বছরের ইতিহাস এবং এটিকের পেশাদারিত্বের মিশেলে অপ্রতিরোধ্য দল তৈরি হবে বলে ধারণা দুই ক্লাবের কর্তাদের। তাছাড়া, মোহনবাগান দীর্ঘদিন ধরেই স্পনসরহীন ছিল। এবং, এফএসডিএলের নানারকমের শর্তের গেরোয় পড়ে আইএসএলে খেলাও সমস্যার হচ্ছিল সবুজ-মেরুনের জন্য। এটিকে এবং মোহনবাগানের এই সংযুক্তিকরণ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই আলোচনা চলছিল ময়দানে। অবশেষে সেই জল্পনা সত্যি হল।

[আরও পড়ুন: পিছিয়ে থেকেও পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে ড্র, আই লিগের শীর্ষস্থান ধরে রাখল মোহনবাগান]

সংযুক্তিকরণ প্রসঙ্গে মোহনবাগান সচিব টুটু বোস বলছেন, “আমরা ক্লাবের ১৩০ বছরের ইতিহাস এবং সমর্থকদের আবেগকে সম্মান করি। কিন্তু, কখনও কখনও আবেগ বজায় রাখার জন্যও সঙ্গীর প্রয়োজন পড়ে। নতুন প্রজন্মের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে, আমাদের আরও বিনিয়োগ প্রয়োজন। একই সঙ্গে ক্লাবকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কর্পোরেটদের মতো পরিকাঠামো প্রয়োজন। আমি দেশের অন্যতম সেরা শিল্পপতি সঞ্জীব গোয়েঙ্কার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি, আরপিএসজির মাধ্যমে মোহনবাগানে বিনিয়োগ করার জন্য। সেই হিসেবে আজকের দিনটি ভারতীয় ফুটবলের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।।” টুটুবাবু লক্ষ লক্ষ মোহনবাগান সমর্থকদের আশ্বস্ত করেছেন, সংযুক্তিকরণের ফলে সবুজ-মেরুন ঐতিহ্যের উপর কোনও আঁচ আসবে না।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং