BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

কল্যাণীতে দল নামাল না ইস্টবেঙ্গল, ঝুলেই রইল লিগের ভাগ্য!

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: October 3, 2019 3:42 pm|    Updated: October 3, 2019 3:42 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রত্যাশামতোই এদিন কল্যাণীতে কাস্টমসের বিরুদ্ধে দল নামাল না ইস্টবেঙ্গল। আগে থেকেই আইএফএ-কে জানানো হয়েছিল বৃহস্পতিবার দল নামানো সম্ভব নয়। আইএফএ- ও জানিয়ে দেয়, নির্ধারিত দিনেই হবে ম্যাচ। ইস্টবেঙ্গল এবং কোয়েস কর্তাদেরও আইএফ-র তরফে অনুরোধ করা হয়, তাঁরা যাতে দল নামান। ক্লাব কর্তারা দল নামাতে রাজি হয়ে গেলেও কোয়েস কর্তারা অনড় থাকেন। শেষ পর্যন্ত কোয়েসের আপত্তিতেই দল নামাতে পারেনি ইস্টবেঙ্গল। শতবর্ষে যা ক্লাবের ইতিহাসে কলঙ্ক হয়ে থাকবে।

[আরও পড়ুন: টেস্টে প্রথম সেঞ্চুরি মায়াঙ্কের, রানের গড়ে ব্র্যাডম্যানকে টপকে গেলেন রোহিত]

পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী, এদিন কল্যাণীতে উপস্থিত ছিল কাস্টমস দল। ব্যবস্থা করা হয়েছিল পুলিশ প্রহরা, অ্যম্বুল্যান্স, টিভি সম্প্রচারেরও। কিন্তু, ম্যাচ শুরুর নির্ধারিত সময়ের পর আধ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও ইস্টবেঙ্গল দল এসে পৌঁছায়নি। ম্যাচ কমিশনার জানিয়ে দেন, ইস্টবেঙ্গল দল মাঠে সময়মতো আসেনি। ক্লাবের তরফে তাদের সঙ্গে যোগাযোগও করা হয়নি। কাস্টমস দল উপস্থিত ছিল। তাঁর মানে কি ওয়াকওভার পেয়ে গেল কাস্টমস? ম্যাচ কমিশনার বলছেন, কাস্টমসকে ওয়াকওভার দেওয়া হবে কিনা, তা মাঠ থেকে বলার এক্তিয়ার নেই কমিশনারের। তাঁরা রেফারির রিপোর্ট আইএফএ-তে জমা করবেন। সেইমতো, আইএফএ-র লিগ সাব কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে এই ম্যাচের ফলাফল কী হবে?

[আরও পড়ুন: ভারত বনাম দঃ আফ্রিকা: বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে দাপট রোহিতদের, বড় রানের লক্ষ্যে ভারত]

যা পরিস্থিতি তাতে কাস্টমস ওয়াকওভার পাওয়া ছাড়া এ ম্যাচের আর কোনও ফলাফল হতে পারে না। কাস্টমস ওয়াকওভার পেলেই সরকারিভাবে লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে পিয়ারলেস। কিন্তু, তা সরকারিভাবে ঘোষণা করা হয়নি। ম্যাচ কমিটির রিপোর্ট আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আইএফএ-তে জমা পড়বে। তারপর সাব কমিটির বৈঠকে ঠিক হবে এই ম্যাচ ও লিগের ফলাফল। আগামিকাল থেকেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে আইএফএ অফিস। খুলবে লক্ষীপুজোর পর। ফলে, আপাতত সাব কমিটির বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। যা পরিস্থিতি তাতে চ্যাম্পিয়ন হয়ে গেলেও, এখনও সরকারিভাবে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হল না পিয়ারলেসকে। তাদের লক্ষ্মীপুজো পর্যন্ত অপেক্ষা করতেই হবে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement