৩০ আশ্বিন  ১৪২৬  শুক্রবার ১৮ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

পর্তুগাল: ১ (গুয়েদেস)

নেদারল্যান্ডস: ০

পর্তুগাল ১ গোলে জয়ী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:ক্রিশ্চিয়ানো, আমাকে একবার জড়িয়ে ধরো।’কাতর আর্তি এগারো বছরের এডুয়ার্ডো মরেইরার। এই ছোট্ট বয়সেই যার রক্তের ক্যান্সার ধরা পড়েছে। সেই অসুস্থ শরীরেই একবার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিল। কিন্তু, সুযোগ হয়নি। তাই মরিয়া হয়ে পোর্তোর রাস্তায় প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে পড়ল। যাতে লেখা ‘ক্রিশ্চিয়ানো, আমাকে একবার জড়িয়ে ধরো।’

[আরও পড়ুন: ইগর জমানার প্রথম জয়, কিংস কাপে তৃতীয় স্থান পেল ভারত]

হোটেল থেকে এসতাদিও দো দ্রাগাও যাওয়ার কথা ছিল পর্তুগাল দলের। উয়েফা নেশনস লিগের ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে ম্যাচ। ভারতীয় সময়ে রাত সাড়ে বারোটায়। কিন্তু, তার বহু আগেই দল রওনা হল সেখানে। মাঝপথে ছোট্ট এডুয়ার্ডোকে দেখা গেল। ফাঁকা রাস্তায় বাস দ্রুত এগোচ্ছিল। কিন্তু, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো নিজে উদ্যোগ নিয়ে বাস থামালেন। বললেন, এডুয়ার্ডোর কাছে বাস নিয়ে যেতে। তার পর অসুস্থ ছোট্ট ফ্যানের যাবতীয় আবদার মেটালেন। সঙ্গে ছবি তুলে সেটা নিজেই সোস্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করলেন।

[আরও পড়ুন: ধর্ষণকাণ্ডে আরও বিপাকে নেইমার, প্রকাশ্যে হোটেল রুমের ভিডিও]

টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে হ্যাটট্রিককারী ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর এই মানবিক দিক নিয়ে প্রচুর হইহই হল সোস্যাল মিডিয়ায়। ফাইনালের আগে তাঁকে নিয়েই দুই শিবিরে আলোচনা। মাথায় পাহাড়প্রমাণ চাপ। তার পরও অসুস্থ ছোট্ট ফ্যানের জন্য আলাদা সময় বের করলেন।যা রীতিমতো প্রশংসা কুড়িয়েছে ভক্তদের।  এ তো গেল মাঠের বাইরের কথা। খেলার মাঠেও সাফল্য পেল পর্তুগাল। প্রথম উয়েফা নেশনস লিগের চ্যাম্পিয়ন হল সিআর সেভেনের দল। ফাইনালে নেদারল্যান্ডসকে ১-০ গোলে হারাল পর্তুগাল।ম্যাচের বয়স যখন ঘণ্টাখানেক তখন পর্তুগালের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন গুয়েদেস।  ডাচদের বিরুদ্ধে এদিন রোনাল্ডোকে স্বমেজাজে না পাওয়া গেলেও দলের জয়ে স্বাভাবিকভাবেই খুশি হবেন বিশ্বের অন্যতম সেরা তারকা। এই নিয়ে জাতীয় দলের হয়ে দ্বিতীয় বড় টুর্নামেন্ট জয় রোনাল্ডোর। এর আগে জিতেছিলেন ২০১৬ ইউরো কাপ।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং