BREAKING NEWS

১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

গোয়ায় লাল–হলুদ শিবিরে সপ্তম বিদেশি ব্রাইট, মাঠে নামার অপেক্ষায় ফাউলার

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: December 17, 2020 1:53 pm|    Updated: December 17, 2020 1:53 pm

ISL 2020: 7th Foriegner of East Bengal reached Goa | Sangbad Pratidin

দুলাল দে:‌ ইচ্ছে করলেও এখন ভারতীয় ফুটবলার বদল করা সম্ভব নয় এসসি ইস্টবেঙ্গলে (SC East Bengal)। বাধ্য হয়ে নতুন করে দু’জন বিদেশি ফুটবলার অন্তর্ভুক্ত করতে চলেছে লাল-হলুদ। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে গোয়া (Goa) চলে এসে এসসি ইস্টবেঙ্গল শিবিরে যোগ দিলেন নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার ব্রাইট। আর কোয়ারেন্টাইন কাটিয়ে অনুশীলনে নেমে পড়লেন একদা চ্যাম্পিয়নশিপে খেলা ডিফেন্ডার কালাম উডস। তবে ব্রাইটকে এই মুহূর্তে আইএসএলে রেজিষ্ট্রেশন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও, কালাম উডসের এখনই রেজিষ্ট্রেশন করানো হবে না। অপেক্ষা করা হবে অ্যারনের পারফরম্যান্স দেখার পর। পছন্দ না হলে অ্যারনকে বাদ দিয়ে ডিফেন্সকে শক্তিশালী করার জন্য লেফট ব্যাক কালাম উডসকে রেজিস্ট্রেশন করানো হবে। তবে এখনই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে না।

ভারতীয় ফুটবলাররা পারছেন না, লাল-হলুদ শিবিরে সবাই মানছেন। কিন্তু রবি ফাউলারের পছন্দ করে আনা স্কট নেভিল কীভাবে পর পর ম্যাচে এত খারাপ খেলছেন, সেটাই গোয়ার লাল-হলুদ শিবিরে কেউ বুঝতে পারছেন না। এমনকী ম্যানেজমেন্টের লোকজন এদিন স্কট নেভিল নিয়ে কোচ রবি ফাউলারের সঙ্গে কথাও বলেন। কোচ নিজেও বুঝতে পারছেন না, কেন এরকম হচ্ছে। পাঁচটা ম্যাচে স্কট নেভিলকে দেখার পর ফাউলার ম্যানেজমেন্টকে জানিয়েছেন, এখনও ফিট হতে পারেননি স্কট। শেষ খেলেছিলেন মার্চ মাসে। তাই ম্যাচ ফিট হতে সময় নিচ্ছেন।

[আরও পড়ুন: আইএসএলের সেরা ফুটবলার রয় কৃষ্ণ, গোয়াকে হারিয়ে দরাজ সার্টিফিকেট হাবাসের]‌ ‌

এসসি ইস্টবেঙ্গলের ম্যানেজমেন্টে যাঁরা আছেন, তাঁরা বলছেন, “আমাদের যে বিদেশি ফুটবলারদের নেওয়া হয়েছে, খোঁজ নিয়ে তাঁদের প্রত্যেকের বায়োডাটা দেখতে পারেন। প্রত্যেকেই বড় ক্লাবে খেলা ফুটবলার। এরপর খেলতে না পারলে ম্যানেজমেন্টের দোষ কোথায়?” তবুও নতুন বিদেশি নিয়ে বিদেশির জায়গা মেরামত করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু ভারতীয় ফুটবলার বদল ঘটাবেন কী করে? ক্লাব সূত্রে পাওয়া গিয়েছে ২৯ জন ফুটবলার। নতুন ম্যানেজমেন্ট আসার পর সই হয়েছে আরও চারজনের। রবি ফাউলার বলেছেন, পাঁচটা ম্যাচে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে মোটামুটি সব ভারতীয় ফুটবলারকেই খেলিয়ে দেখে নিয়েছেন। কেউ একদিন ভাল খেললে, পরের দিন জঘন্য পারফরম্যান্স করছে। জেজে–বিনীথকে একসঙ্গে খেলিয়েও দেখে নিলেন। একজনও ফিটনেসের ধারে কাছে নেই। হায়দরাবাদের ভারতীয় ফুটবলাররাই পার্থক্যটা করে দিয়ে গিয়েছেন।

গুরতেজ আর সামাদকে খেলানোর জন্য এসসি শ্রীমেন্টের পক্ষ থেকে ফাউলারের সঙ্গে কথা বলা হয়েছিল। ফাউলার জানিয়েছেন, অন্যরা যেহেতু অনুশীলন দেখতে পাচ্ছেন না, তাই গুরতেজ এবং সামাদের কথা বলছেন। কিন্তু তিনি জানেন, দু’জন ফুটবলারই এখনও পর্যন্ত ম্যাচ খেলার জায়গায় পৌঁছয়নি। যেদিন ম্যাচ ফিটনেস আসবে, এদের দু’জনকেও খেলিয়ে দেখে নেবেন। কিন্তু বুঝতে পারছেন না, কোন ভারতীয় ফুটবলারদের উপর ভরসা করবেন। ফাউলারের এখন ভরসার নাম ব্রাইট। তড়িঘড়ি করে বৃহস্পতিবার সকালেই যাঁকে নিয়ে আসা হল।

[আরও পড়ুন: ‘অনেকেই আইএসএলে খেলার যোগ্য নয়’, চতুর্থ হারের পর ফের ফুটবলারদের দুষলেন ফাউলার]‌ ‌

বৃহস্পতিবার ভোরে পৌঁছেই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে চলে গেলেন নতুন নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার। সেক্ষেত্রে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহ থেকে ম্যাচে নামার সম্ভাবনা থাকবে ব্রাইটের। কোয়ারেন্টাইন কাটিয়ে অনুশীলনে নেমে পড়া কালাম উডসকে, অ্যারনের জায়গায় ভাবার একটাই কারণ, এশিয়ান কোটার জন্য স্কট নেভিলকে বাদ দেওয়া যাবে না। আপাতত কিছুদিন অ্যারনের পারফরম্যান্স দেখা হবে। অ্যারনকে কিছুদিন সময় দিতে চান ফাউলার। কিন্তু ভারতীয় ফুটবলারদের বদল করবেন কী করে? সারা ভারত জুড়েও যে আইএসএল খেলার মতো আর কোনও ভারতীয় ফুটবলার খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে