৩০ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৮  সোমবার ১৪ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

শেষ মুহূর্তের গোলে বাজিমাত, এটিকে মোহনবাগানকে হারিয়ে প্রথমবার ISL চ্যাম্পিয়ন মুম্বই

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: March 13, 2021 9:35 pm|    Updated: March 14, 2021 8:26 am

ISL 2020: Mumbai City FC Beats ATK Mohun Bagan & Clinches trophy | Sangbad Pratidin

মুম্বই সিটি এফসি-২ (তিরি-আত্মঘাতী, বিপিন)
এটিকে মোহনবাগান-১ (উইলিয়ামস)

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তীরে এসে ডুবল তরী। আবির্ভাবেই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ ছিল এটিকে মোহনবাগানের। কিন্তু গোয়ায় আয়োজিত আইএসএলের ফাইনালের চিত্রটাও রইল একইরকম। গ্রুপ পর্বের মতো ফাইনালেও হাবাস বনাম লোবেরার লড়াইয়ে জয়ী হলেন মুম্বই সিটি এফসির কোচ। এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ছাড়পত্র পাওয়ার পাশাপাশি সবুজ-মেরুনকে ২-১ গোলে হারিয়ে আইএসএল চ্যাম্পিয়নও হয়ে গেল মুম্বই সিটি এফসি (Mumbai City FC)। ম্যাচে উইলিয়ামসের গোলে এগিয়ে গেলেও, তিরির আত্মঘাতী গোল এবং ম্যাচের একদম শেষ মুহূর্তে বিপিন সিংয়ের গোলে স্বপ্নভঙ্গ হল এটিকে মোহনবাগানের (ATK Mohun Bagan)।

গোটা টুর্নামেন্ট জুড়ে দু’দলই দুরন্ত ফর্মে ছিল। লিগ টেবিলের এক নম্বর আসনে কখনও লোবেরার মুম্বই সিটি এফসি তো কখনও হাবাসের এটিকে মোহনবাগান। শেষপর্যন্ত অবশ্য গ্রুপ লিগের শেষ ম্যাচে সবুজ-মেরুনকে হারিয়েই এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ছাড়পত্র পেয়েছিল মুম্বই। এমনকী প্রথম পর্বেও হারতে হয়েছিল এটিকে মোহনবাগানকে। আর তাই এই ফাইনাল ছিল বদলারও। শুরু থেকেই তাই আক্রমণাত্মক খেলা শুরু করেছিলেন রয় কৃষ্ণ-উইলিয়ামসরা। তবে পালটা আক্রমণে এসেছে মুম্বইও। ফলে ম্যাচের প্রথম মিনিট থেকেই হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে থাকে।

[আরও পড়ুন: গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচেও রোহিতকে বিশ্রাম কেন? কোহলির উপর চটলেন শেহওয়াগ-গম্ভীর]

এদিন শুরুতেই দুরন্ত সুযোগ এসে গিয়েছিল এটিকে মোহনবাগানের সামনে। প্রথম দশ মিনিটেই কৃষ্ণ এবং উইলিয়ামস গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। এদিকে দশ মিনিটের মাথায় বক্সের মধ্যে পড়ে যান মুম্বইয়ের বিপিন সিং। যদিও রেফারি মুম্বইয়ের পেনাল্টির আবেদনে সাড়া দেননি। এরপর ১৮ মিনিটে মুম্বই রক্ষণের ভুলে গোল করে যান উইলিয়ামস। প্রথমে যদিও বলটি কেড়েছিলেন সেই রয় কৃষ্ণ। তাঁর পাস থেকেই দুরন্ত শটে অমরিন্দরকে পরাস্ত করে গোল করেন উইলিয়ামস। যদিও ২৯ মিনিটে জাহুর দূরপাল্লার শটকে বাইরে পাঠাতে গিয়ে আত্মঘাতী গোল করে বসেন তিরি। ফলে সমতায় ফিরে আসে সের্জিও লোবেরার দল। এরপর দু’দলই গোল করার মতো জায়গায় পৌঁছে গিয়েছিল। কিন্তু কাজের কাজটি করতে পারেনি কোনও দলই। ফলে প্রথমার্ধে খেলা শেষ হয় ১-১ গোলেই। তবে প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে শুভাশিস বসুর সঙ্গে ধাক্কা লেগে মাথায় গুরুতর চোট পান মুম্বইয়ের অমেয় রানাওয়াডে। তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এই ঘটনার জন্য বেশ কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ থাকে।

তবে দ্বিতীয়ার্ধে ফের খেলা শুরু হলে ম্যাচের রাশ কার্যত নিজেদের হাতে তুলে নেয় মুম্বই। বেশ কয়েকটি আক্রমণ তুলে আনে তাঁরা। যদিও পালটা আক্রমণে ওঠে এটিকে মোহনবাগানও। এই সময় সবুজ-মেরুনের একটি গোল অফসাইডের জন্য বাতিলও হয়ে যায়। যা নিয়ে অবশ্য কিছুটা হলেও বিতর্ক ছিল। এরপর আবার মুম্বইয়ের বউমোস সহজ গোলের একটি সুযোগ নষ্ট করেন। কিন্তু ম্যাচের একদম শেষ মুহূর্তে জয়সূচক গোলটি করে মুম্বই সিটি এফসি। আর সেটা হয় বাগান রক্ষণের ভুলেই। বিপিন সিং গোলটি করলেও সেটির কারিগর ওগবেচে। বাগান গোলরক্ষক অরিন্দমকে কাটানোর পর বাগানের রক্ষণভাগের দু’জন খেলোয়াড়কে কাটান তিনি। তারপরই চলন্ত বলে বিপিনের শট বাগানের জালে জড়িয়ে যায়। এরপর আর সেই গোল শোধ করতে পারেনি সবুজ-মেরুন ব্রিগেড। 

[আরও পড়ুন: ‘ভাষা হারিয়ে ফেলেছি’, স্টেডিয়ামের নাম দেখে অভিভূত শোয়েব আখতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement