১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৬ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এবার আইএসএলে বাড়ছে ম্যাচের সংখ্যা, তুঙ্গে সমর্থকদের উত্তেজনাও

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 21, 2022 9:24 pm|    Updated: September 21, 2022 9:24 pm

ISL match number to go up, fans in a frenzy | Sangbad Pratidin

দুলাল দে: দু’বছর দর্শকহীন ফুটবলের পর ফের আইএসএল ফিরছে স্বমহিমায়। মানে দর্শক ভরতি স্টেডিয়ামে ফের ফিরছে আইএসএল। আর তাতে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের জৌলুস যে কয়েকগুণ বাড়বে, এ কথা বলাই বাহুল্য।

কোভিড আবহে (Corona Pandemic) দর্শকহীন স্টেডিয়ামে ফুটবলাররা খেলতেন বটে, কিন্তু সেই প্রাণটাই যেন ছিল না। প্রিয় দলকে সমর্থন করতে সমর্থকদের একমাত্র উপায় ছিল টিভির সামনে বসে চিৎকার করা। দর্শক ছাড়াই দু’বছরে ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানের দু’দুটো ডার্বি হয়ে গিয়েছে। ফুটবলাররা স্বাভাবিক নিয়মেই খেলেছেন। কিন্তু কোথাও যেন সেই উৎসাহটাই ছিল না। ফলে দু’বছর পর ফের আইএসএলকে (ISL 2022-23) ঘিরে দর্শক ফেরার পরিস্থিতিতে শুধু ফুটবলাররাই নয়, উৎসাহিত হয়ে উঠেছেন আপামর ভারতীয় ফুটবল দর্শকরা।

গত দুই মরশুমে পুরো আইএসএলটাই হয়েছে গোয়ায়, একটি ভেন্যুতে। কোভিড পরিস্থিতিতে বায়ো বাবলের মধ্যে থাকার জন্য কোনও হোম আর অ্যাওয়ে ম্যাচ ছিল না। এবার আইএসএলের প্রতিটি দল নিজেদের মতো করে তৈরি হচ্ছে হোম ম্যাচের আয়োজন করার জন্য। সঙ্গে অ্যাওয়ে ম্যাচ তো আছেই। এবারের আইএসএলের উদ্বোধনী ম্যাচ ৭ অক্টোবর কোচিতে। কেরালা ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে খেলবে কলকাতার ইস্টবেঙ্গল ক্লাব (East Bengal)। আর সেই ম্যাচ ঘিরে এখনই কোচিতে সাজ সাজ রব। ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচেই কোচির স্টেডিয়ামে একটি টিকিটের জন্য শেষ মুহূর্তে হা পিত্যেশ করতে হতে পারে দু’দলেরই সমর্থকদের। কারণ, উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে থাকার জন্য কলকাতা থেকেও বহু লাল-হলুদ সমর্থক এখন থেকেই কোচি যাওয়ার পরিকল্পনা করে ফেলেছেন।

[আরও পড়ুন: ইংল্যান্ডে ফের নিশানায় হিন্দুরা, মন্দিরের সামনে ‘আল্লাহু আকবর’ হুঙ্কার মৌলবাদীদের]

হোম-অ্যাওয়ে ম্যাচ হওয়ার জন্য এমনিতেই গত মরশুমের থেকে এবারের মরশুম দীর্ঘতর হচ্ছে। তার উপর ম্যাচের সংখ্যাও বাড়ছে। গত মরশুমে আইএসএল শুরু হয়েছিল ২০ নভেম্বর। চলেছিল মার্চ পর্যন্ত। এই মরশুমে ৬ সপ্তাহ সময় বেড়ে যাচ্ছে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের। শুরু ৭ অক্টোবর। চলবে মার্চ পর্যন্ত। প্লে-অফের আগে পর্যন্ত শুধু গ্রুপ লিগের ম্যাচই হবে ১১০টি। এরপর রয়েছে প্লে-অফ। সেমিফাইনাল, ফাইনাল।

এবার ম্যাচ বেড়ে যাওয়ার কারণ, প্লে-অফে খেলবে মোট ৬টি দল। এখান থেকে চারটে দল খেলবে শেষ চারে। আইএসএলে হয়তো প্রতিবছরই প্লে-অফে দলের সংখ্যা বাড়তে পারে। প্লে-অফে বেশি দল বাড়ার জন্য সমর্থকরা নিজের দলের ম্যাচ বেশি সংখ্যায় দেখতে পারবেন। পাশাপাশি লিগে খুব ভাল ফল না করে লিগে টেবিলের ৬ নম্বর স্থানে এলেও শেষ পর্যন্ত হয়তো প্লে অফে ভাল খেলে শেষ চারে চলে যাওয়ার সুযোগ থাকবে।

তবে এবার সমর্থকদের জন্য যেটা ভাল খবর, তা হল, প্রিমিয়ার লিগের মতোই ম্যাচ হবে শুধুই বৃহস্পতিবার থেকে রবিবার পর্যন্ত। এই নিয়ম কাতার বিশ্বকাপের সময়েও জারি থাকবে। বিশ্বকাপের সময়ও আইএসএল সমান তালে চলবে। তবে উদ্বোধনী ম্যাচ ঘিরে আলাদা করে কোনও অনুষ্ঠান এবারও হবে না।

[আরও পড়ুন: PM CARES-এর নতুন ট্রাস্টি শিল্পপতি রতন টাটা, জানাল মোদির দপ্তর]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে