Advertisement
Advertisement
মোহনবাগান

বাগানে নয়া বিদেশি, সেনেগালের বাবা দিওয়ারাকে সই করাল সবুজ-মেরুন শিবির

২২ ডিসেম্বর যুবভারতীতে ডার্বি নিয়ে সংশয়।

Mohun Bagan replaces Salva Chamorro, signs Senegal's Baba Dewara
Published by: Subhamay Mandal
  • Posted:December 18, 2019 3:14 pm
  • Updated:December 18, 2019 3:14 pm

স্টাফ রিপোর্টার: সালভা চামোরোর বিকল্প হিসাবে সেনেগালের স্ট্রাইকার বাবা দিওয়ারাকে সই করাল মোহনবাগান। ভারতে আসার ভিসা পেয়ে গেলেই কলকাতায় এসে ভিকুনার প্র্যাকটিসে যোগ দেবেন তিনি।
কোচের সঙ্গে আলোচনা করে সালভা বিদায়ের সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়ে যায় নতুন স্ট্রাইকার খোঁজা। ভিকুনার সঙ্গে আলোচনা করে বেশ কয়েকজন ফুটবলারের জীবনপঞ্জি দেখার পর ঠিক হয়, সেনেগালের বাবাকে নিয়ে আসা হবে। ইউরোপ এবং এশিয়ার বেশ কয়েকটি বিখ্যাত ক্লাবে খেলেছেন ছ’ফুটের বাবা। মোহনবাগানে আসার আগে খেলেছেন ‘এ’ লিগের অ্যাডিলেড ইউনাইটেডে।

এদিকে, এদিন ডাক্তারি পরীক্ষার পর ঠিক হয়ে গেল ডার্বিতে খেলা সম্ভব নয় জুলেন কোলিনাসের। সোমবার গোকুলামের বিরুদ্ধে চোট পাওয়ার সময়েই ভিকুনা বুঝে যান, ডার্বি খেলা কোলিনাসের পক্ষে সম্ভব নয়। এখন সবাই চিন্তিত, ডার্বির পরেও ক’টা ম্যাচ মাঠের বাইরে বসতে হবে জুলেনকে, তা নিয়ে। মোহনবাগান অর্থসচিব দেবাশিস দত্ত জানালেন, বুধবার ডাক্তারের থেকে চূড়ান্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে, কবে থেকে ফের মাঠে নামবেন মোহনবাগান তারকা।

Advertisement

[আরও পড়ুন: প্রয়াত মোহনবাগান সভাপতি গীতানাথ গঙ্গোপাধ্যায়, ময়দানে শোকের ছায়া]

এদিকে, ২২ ডিসেম্বর যুবভারতীতে ডার্বি নিয়ে সংশয় দেখা দিল। ম্যাচ করার জন্য এখনও পর্যন্ত পুলিশের অনুমতি না আসায় পরিস্থিতি যে দিকে যাচ্ছে, তাতে দিন বদলে ২৯ ডিসেম্বর ম্যাচ হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ছে। কলকাতা এবং সংলগ্ন এলাকায় যে ভাবে সমস্যা তৈরি হয়েছে , তাতে ২২ ডিসেম্বর ডার্বি হলে ফুটবলার এবং সমর্থকদের পর্যাপ্ত পরিমানে পুলিশি নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব কিনা, তা নিয়েই সংশয় দেখা দিয়েছে। ফলে এখনও পর্যন্ত ডার্বির টিকিট বাজারে ছাড়ার জন্য পুলিশের অনুমতি পাননি মোহনবাগান কর্তারা।

Advertisement

তবে যেহেতু ম্যাচ করা সম্ভব নয় বলে প্রশাসন থেকেও সরকারি ভাবে কিছু জানানো হয়নি, তাই ফেডারেশনকেও সরকারি ভাবে কিছু জানাতে পারছে না মোহনবাগান। যা ঠিক হয়েছে, তাতে ডার্বি ইস্যুতে বুধবার মোহনবাগান কর্তৃপক্ষর সঙ্গে আলোচনায় বসতে পারেন পুলিশি কর্তারা। ম্যাচ যদি একান্তই না হয়, তাহলে ডার্বির দিন হতে পারে ২৯ ডিসেম্বর।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ