BREAKING NEWS

১২  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ২৭ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মহিলা রেফারিদের সঙ্গে ‘ফিস্টবাম্প’ এড়িয়ে বিতর্কে কাতারের রাজপরিবারের সদস্য

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: February 13, 2021 2:50 pm|    Updated: February 13, 2021 3:01 pm

No handshake from Sheikh! Female referees' snub at FIFA Club World Cup ceremony triggers debate | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্কে কাতারের (Qatar) শাসক শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির ভাই শেখ জোয়ান বিন হামাদ আল থানি (Joaan bin Hamad Al Thani)। ফিফা ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপের (FIFA Club World Cup) ফাইনালের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের সময় লিঙ্গ বৈষম্যের অভিযোগ উঠল তাঁর বিরুদ্ধে। কারণ অনুষ্ঠানে দু’দলের খেলোয়াড় এবং পুরুষ ম্যাচ অফিশিয়ালদের সঙ্গে ‘ফিস্টবাম্প’ (Fistbump) করলেও দুই মহিলা রেফারিকে অগ্রাহ্য করে গেলেন। আর এই নিয়েই এবার সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া।

কাতারেই আয়োজিত হতে চলেছে ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপের আসর। তার আগে গত বৃহস্পতিবার আয়োজিত হয়েছিল ফিফা ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপ। ফাইনালে যেখানে টাইগ্রেসকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। তবে ম্যাচ শেষের পরই অপ্রীতিকর ঘটনাটি ঘটে। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে একে একে দু’দলের সমস্ত খেলোয়াড়ের সঙ্গে ‘ফিস্টবাম্প’ করেন কাতারের রয়্যাল পরিবারের সদস্য তথা কাতার অলিম্পিক কমিটির প্রেসিডেন্ট জোয়ান বিন হামাদ আল থানি।

[আরও পড়ুন: ফের শেষ মুহূর্তে গোল হজম, হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে ড্র করেই মাঠ ছাড়ল এসসি ইস্টবেঙ্গল]

কিন্তু একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, এরপরই এদিনা আলভেস বাতিস্তা এবং নিউজা ব্যাক-দুই মহিলা রেফারি জোয়ান বিন হামাদ আল থানির সঙ্গে সৌজন্যের খাতিরে ফিস্টবাম্প করতে যান। কিন্তু সেসময় তাঁদের এড়িয়ে যান শেখ। আর বিষয়টিই নজরে আসে নেটিজেনদের। মুহূর্তে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শুরু হয়ে যায়। অনেকেই বিষয়টির সমালোচনায় মুখর হন। কেউ আবার প্রশ্ন তোলেন, এরপর এখানে কীভাবে কাতার বিশ্বকাপ আয়োজন করা সম্ভব হবে?

 

[আরও পড়ুন: প্রতীক্ষার অবসান, চিপকে দ্বিতীয় টেস্ট থেকেই স্টেডিয়ামে ফিরলেন দর্শকরা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে