২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মেসি-রোনাল্ডোর বিদায়ে ১৫ বছর পর ফের অঘটন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: August 15, 2020 2:53 pm|    Updated: August 15, 2020 2:53 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েকদিন আগেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ (UEFA Champions League) থেকে ছিটকে গিয়েছে রোনাল্ডোর জুভেন্তাস। শুক্রবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে প্রস্থান হল মেসির (Lionel Messi) বার্সেলোনারও (Barcelona)। বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮ গোল খেয়ে রীতিমতো ধ্বংস হল বার্সার রাজ্যপাট। প্রশ্নের মুখে মেসির সাম্রাজ্য। দুই মহাতারকার প্রস্থানে ১৫ বছর পর প্রথম মেসি-রোনাল্ডো (Cristiano Ronaldo) বিহীন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনাল হচ্ছে। এই দুই সুপারস্টারকে ছাড়া চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনাল হয়েছিল সেই ২০০৫-’০৬ সালে। সেইসঙ্গে আট গোল খেয়ে ৭৪ বছর আগের লজ্জার রেকর্ড স্পর্শ করেছে ক্যাটালান ক্লাব। ৭৪ বছর আগে ১৯৪৬ সালে বার্সেলোনাকে এমন লজ্জার হার হজম করতে হয়েছিল সেভিয়ার কাছে। খেতে হয়েছিল আট গোল।

যদিও ২০০৫-‘০৬ সালে আর্সেনালকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছিল বার্সেলোনা। কিন্তু সেবার সেমি বা ফাইনালে, কোনও ম্যাচেই নামেননি মেসি। কোয়ার্টার ফাইনালের চোট ছিটকে দিয়েছিল মেসিকে। রোনাল্ডো তখন খেলতেন ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে। সেবার গ্রুপ লেগ থেকেই বিদায় নিতে হয়েছিল ম্যান ইউকে। এই মরশুমের পর থেকে প্রতি বছরই সেমিতে হয় মেসি না হলে রোনাল্ডো থাকেন নিয়ম করে। কিন্তু ভাগ্যের পরিহাসে এবার দু’জনের কেউ-ই থাকছেন না। শুক্রবার মধ্যরাতে গোটা ফুটবল বিশ্বের সামনে কার্যত দর্পচূর্ণ হল বার্সেলোনার। ৮-২ গোলে অনায়াস জয় পেলেন মুলার-কুটিনহোরা। জার্মান দলটি ধ্বংস করল বার্সার সাম্রাজ্যকে। প্রমাণ হল, মাঠে যতই ফুটবল ঈশ্বর থাকুক, খারাপ দিনে তাঁকেও আর পাঁচজন সাধারণ মানুষই মনে হয়।

[আরও পড়ুন: মেসিদের আট গোলের মালা, মুলার–কুটিনহোদের বায়ার্নের হাতে ধ্বংস বার্সার সাম্রাজ্য]

এদিকে, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে শেষ আটে এত বড় ব্যবধানে হারেনি কোনও দল। বায়ার্নের কাছে লজ্জার হারের পর ভেঙে পড়েছেন বার্সার কর্মকর্তা থেকে সমর্থকরা। আর এই হারের প্রথম বলি হচ্ছেন বার্সার হেড কোচ। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, মেসিদের হেড কোচ কিকে সেতিয়েনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। ম্যাচের পরে সেতিয়েন নিজেও স্বীকার করেছেন ক্লাবে তাঁর চ্যাপ্টার ক্লোজ হওয়া কেবল সময়ের অপেক্ষা। আনুষ্ঠানিক ঘোষণাই কেবল বাকি। জানুয়ারিতে ভালভারদের চাকরি যাওয়ার পর দায়িত্বে আসেন সেতিয়েন। কিন্তু মাত্র সাত মাসেই তাঁকে বিদায় করছে ক্লাব। ঠিক যেভাবে লিয়ঁর কাছে হারের পর কোচ সারিকে তাড়িয়েছে জুভেন্তাস।

[আরও পড়ুন: এবার বার্সেলোনার জার্সিতে মেসির পাশে খেলতে দেখা যাবে রোনাল্ডোকেও! বাড়ছে জল্পনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement