৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ দেশের রায় LIVE রাজ্যের ফলাফল LIVE বিধানসভা নির্বাচনের রায় মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার
নির্বাচন ‘১৯

৮ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০১৯ 

BREAKING NEWS

স্টাফ রিপোর্টার: এফসি বার্সেলোনার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছে কোয়েস ইস্টবেঙ্গল। বুধবার বেঙ্গালুরুতে কোয়েসের অফিসে এসে দেখা করেন বার্সেলোনার স্পনসর রাকুতেনের কর্তাব্যক্তিরা। সেখানেই গাঁটছড়া বাঁধার প্রস্তাব দেন কোয়েস কর্তা অজিত আইজ্যাক। তখনই ঠিক হয়, বার্সেলোনার সঙ্গে আলোচনা করে পুরো বিষয়টা চূড়ান্ত করা হবে। পরে অজিত জানান, “বার্সেলোনার মতো ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত হওয়া আমাদের কাছে পরম গর্বের বিষয়। যদি শেষমেশ আমাদের প্রস্তাবে বার্সেলোনা রাজি হয়, তা হলে এর চেয়ে ভাল আর কিছু হতে পারে না। আশা করি আমাদের প্রস্তাব ওঁরা মানবেন।”

[আরও পড়ুন: তৃণমূল প্রার্থীর প্রচারে সবুজ-মেরুন জার্সি, সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র কটাক্ষ প্রসূনকে]

এদিকে, ক্লাব বনাম কোয়েসের দূরত্ব বেড়েই চলেছে। সুপার কাপ খেলা নিয়ে ডামাডোলের মধ্যে যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছিল, তা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। ক্লাব কর্তারা এখন জোর সওয়াল করছেন আইএসএল খেলার ব্যপারে। অন্যদিকে, কোয়েস এখনও নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেনি। কিছুদিন আগে স্বয়ং সচিব কল্যাণ মজুমদার চিঠি লিখে জানিয়েছেন, আইএসএল-এ খেলার ব্যাপারে কোয়েস কতটা আগ্রহী, সেটা জানাতে। আসলে লাল-হলুদ শিবির কোয়েস কর্তাদের উপর চাপ সৃষ্টি করতে চাইছে একটাই কারণে, যাতে আই লিগ জোট থেকে বেরিয়ে আসতে পারে ক্লাব।

[আরও পড়ুন: চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হারের জের, জুভেন্তাস ছাড়তে পারেন বিপর্যস্ত রোনাল্ডো!]

অন্যদিকে, কোয়েস কর্তা অজিত আইজ্যাক আগেই জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি আই লিগ খেলতেই বেশি আগ্রহী। আইএসএল নয়। ক্লাবের অন্দর মহলে কান পাতলে শোনা যায়, কোয়েসকে ছেড়ে অন্য স্পনসরের দিকে নাকি ঝুঁকছে লাল-হলুদ শিবির। পরিস্থিতি যখন এমন জটিল আকার ধারণ করতে শুরু করেছে, তখনই বার্সার সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধার কোয়েসের এই প্রয়াসকে মনে হয় না সভ্য-সমর্থকরা দূরে সরিয়ে দিতে চাইবেন। বরং বলা যেতে পারে, ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কর্তারা এই মুহূর্তে চাপে পড়ে গেলেন। যদি সত্যিই বার্সার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে পারে ইস্টবেঙ্গল, তা হলে কলকাতার ফুটবল ইতিহাসে অনন্য নজির হবে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং