BREAKING NEWS

১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২৭ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মহেশের জোড়া গোলে শাপমুক্তি, কোচ মারিওর হাত ধরে মরশুমের প্রথম জয় পেল এসসি ইস্টবেঙ্গল

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: January 19, 2022 9:34 pm|    Updated: January 19, 2022 10:17 pm

SC East Bengal gets first victory in ISL | Sangbad Pratidin

এসসি ইস্টবেঙ্গল-২ (মহেশ)
এফসি গোয়া (নোগুয়েরা)
সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আইএসএলে অবশেষে শাপমুক্তি। এবারের টুর্নামেন্টে প্রথম জয় পেল এসসি ইস্টবেঙ্গল। স্পেনীয় কোচ মারিও রিভেরার হাত ধরে এল তিন পয়েন্ট। এই তিন পয়েন্টের অপেক্ষাতেই তো এতদিন ছিলেন লাল-হলুদ সমর্থকরা। কিন্তু আইএসএল শুরু হওয়া ইস্তক ব্যর্থতাই ছিল লাল-হলুদের নিত্যসঙ্গী। অবশেষে বুধবার মাণ্ডবীর তীরে জ্বলে উঠল মশাল। মারিও রিভেরার দল ২-১ গোলে হারাল এফসি গোয়াকে। 

প্রথম সাক্ষাতে এই এফসি গোয়ার কাছে ৪-৩ হারতে হয়েছিল এসসি ইস্টবেঙ্গলকে (SC East Bengal)। তখন লাল-হলুদের রিমোট কন্ট্রোল হাতে ছিল স্পেনীয় কোচ মানোলো দিয়াজের হাতে। তার পর গঙ্গা দিয়ে অনেক জল গড়িয়ে গিয়েছে। ব্যর্থ মানোলোকে সরে যেতে হয়। অন্তর্বর্তী কোচ রেনেডি সিং জয় এনে দিতে না পারলেও দলের শরীরী ভাষা অনেকটাই বদলে দিতে পেরেছিলেন। নতুন কোচ মারিও রিভেরা (Mario Rivera) ভারতে নতুন নন।লাল-হলুদের প্রাক্তন কোচ তিনি।এই মরসুমে আইএসএলের মাঝপথে তাঁর হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছে। সেই মারিওর আজই ছিল প্রথম ম্যাচ। আর তাঁর প্রথম ম্যাচেই জিতল এসসি ইস্টবেঙ্গল। একেই বলে মিডাস টাচ!  

এদিন ইস্টবেঙ্গলকে প্রথমে এগিয়ে দেন মহেশ। খেলার বয়স তখন ৯ মিনিট। গোলটা অবশ্য গোয়ার ফুটবলারদের ভুল বোঝাবুঝিতেই হয়। মাঝমাঠ থেকে নোগুয়েরা ভুল পাস করেছিলেন। এডু বেদিয়ার উদ্দেশে বাড়ানো সেই বল ধরে মহেশ গোল করেন। গোলের মুখ ছোট করে বেরিয়ে এসেছিলেন গোয়ার গোলকিপার ধীরজ সিং। কিন্তু মহেশ ঠাণ্ডা মাথায় বল জড়িয়ে দেন গোয়ার জালে। এতদিন দেখা গিয়েছিল এগিয়ে থেকেও গোল হজম করছে লাল-হলুদ বাহিনী। এই রোগ এদিনও সারেনি।  

[আরও পড়ুন: অবসরের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন সানিয়া মির্জা, কবে শেষবার কোর্টে দেখা যাবে?]

৩৭ মিনিটে সমতা ফেরায় গোয়া। অর্টিজের পাস থেকে বল পেয়ে নোগুয়েরা এসসি ইস্টবেঙ্গলের গোল লক্ষ্য করে শট নেন। শরীর ছুঁড়ে দিয়েও সেই বল বাঁচাতে পারেননি অরিন্দম। বিরতির ঠিক আগে এসসি ইস্টবেঙ্গলকে ফের এগিয়ে দেন মহেশ। এবারের গোলটিও গোয়ার ডিফেন্সের মিস পাসে। আনোয়ার আলির ভুল পাস ধরেই জোরালো শটে গোল করেন মহেশ। 

বিরতির পরে এফসি গোয়া সমতা ফেরানোর মরিয়া চেষ্টা করেন। কিন্তু লাল-হলুদের ডিফেন্স ভাঙতে পারেননি এডু বেদিয়া-অর্টিজরা। অরিন্দম একবার শরীর ছুঁড়ে ফ্রি কিক বাঁচিয়ে দেন। বাকি সময়টা লাল-হলুদ ফুটবলাররা মরিয়া হয়ে লড়লেন। খেলার শেষ বাঁশির পরে মারিও রিভেরা শূন্যে ছুঁড়ে দিলেন হাত। ১২ নম্বর ম্যাচে জয় পেল লাল-হলুদ শিবির।  

[আরও পড়ুন: সফল লড়াই, ইডেনে আসছে ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের ৩ ম্যাচ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে