BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

মারিওর সহকারি থাকবেন না, এসসি ইস্টবেঙ্গলকে বললেন রেনেডি সিং

Published by: Krishanu Mazumder |    Posted: January 13, 2022 1:49 pm|    Updated: January 13, 2022 2:07 pm

SC East Bengal interim coach Renedy Singh does not want to act as an assistant of Mario Rivera | Sangbad Pratidin
দুলাল দে: তাঁর সঙ্গে নতুন কোচ মারিও রিভেরার (Mario Rivera) কোচিং দর্শনে পার্থক্য কয়েক যোজন। এদিকে, গত তিনটে ম্যাচে লাল-হলুদ ফুটবলাররা রেনেডির কোচিংয়ে একটা সিস্টেমের মধ্যে খেলতে অভ্যস্ত হয়ে গিয়েছেন। দুই কোচের ভাবনার পার্থক্যে যাতে সমস্যা না বাড়ে, তাই রেনেডি সিং (Renedy Singh) এদিন লাল-হলুদ টিম ম্যানেজমেন্টকে জানিয়ে দিয়েছেন, মারিওর সহকারি হিসেবে কাজ করতে চান না।
 
বৃহস্পতিবার থেকে নতুন কোচ মারিওর কোচিংয়ে শুরু হচ্ছে অনুশীলন। শোনা যাচ্ছে, মারিওকেও নাকি মনের ইচ্ছে জানিয়েছেন রেনেডি। তাহলে লাল-হলুদের রেনেডির ভবিষ্যৎ কী? শোনা যাচ্ছে, অ্যাডভাইসর কিংবা টেকনিক্যাল ডিরেক্টর, এরকম কিছু পোস্ট তৈরি করে রেনেডিকে দলের সঙ্গে রেখে দিতে চাইছে লাল-হলুদ টিম ম্যানেজমেন্ট।
 
গত তিনটে ম্যাচে কোচের দায়িত্ব পেয়ে দুটি ড্র, একটিতে হেরেছেন তিনি। তারমধ্যে শেষ ম্যাচে জামশেদপুরের বিরুদ্ধে খেলেছেন, সম্পূর্ণ ভারতীয় একাদশ নিয়ে। যার পর ফুটবল বিশেষজ্ঞরাও বলতে শুরু করেছেন, ম্যানুয়েল ডিয়াজের বদলে রেনেডির হাতে শুরু থেকে কোচিংয়ের দায়িত্ব থাকলে এসসি ইস্টবেঙ্গলের (SC East Bengal) লিগ টেবিলে পজিশন আরও একটু ভাল হত। তার উপর রেনেডির কোচিংয়ে শেষ তিনটে ম্যাচে ভারতীয় ফুটবলাররা নিজেদের উজাড় করে দিয়েছেন। যার জন্য বারবার করে ভারতীয় ফুটবলারদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন রেনেডি।
এই মুহূর্তে গোয়ায় পুরো এসসি ইস্টবেঙ্গল দলটা রেনেডি সিংহের পাশে। এক্ষেত্রে এসসি ইস্টবেঙ্গলের টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে রেনেডির যুক্তি খুবই জোরালো। তিনি বোঝান, মারিওর কোচিং দর্শন, আর তাঁর কোচিং দর্শন সম্পূর্ণ ভিন্ন। তিনি যেভাবে কোচিংয়ে বিশ্বাস করেন, মারিওর সহকারি হিসেবে, পুরো উল্টো কোচিং পদ্ধতিতে তিনি যুক্ত থাকতে পারবেন না। এই অবস্থায় তিনি সহকারি থাকলে, মারিও স্বাধীনভাবে কোচিংও করতে পারবেন না। ভুগতে হবে, এসসি ইস্টবেঙ্গলকে। রেনেডি চান না, তাঁর জন্য মারিওর কোচিং কোনওভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হোক। আর যে কোচিং তত্ব তিনি বিশ্বাস করেন না, সেই কোচিং তত্ত্বের সঙ্গে যুক্ত থেকে সমর্থকদের কাছেও ভুল বার্তা দিতে চান না। এই অবস্থায়, তিনি সহকারি থাকলে, দলের মধ্যে দুটো ভাগ হয়ে যেতে পারে।
এই সব কারণেই, তিনি মারিওর সহকারি হিসেবে আর কাজ করতে চান না। রেনেডির যুক্তির পরেও, কর্তারা তাঁকে দলের সঙ্গেই থাকার অনুরোধ করেছেন। কারণ, এই মুহূর্তে এই দলে রেনেডির থাকা ভীষণই প্রয়োজন। যদি সহকারি হিসেবে না থাকেন, তাহলে কোন ভূমিকায় থাকবেন তিনি? রেনেডি ম্যানেজমেন্টকে জানিয়েছে, মারিওকে সহকারি কোচ ছাড়া যে কোনওভাবে পরামর্শ দিতে তিনি প্রস্তুত। ফলে এসসি ইস্টবেঙ্গল যদি তাঁকে দলের অ্যাডভাইসর কিংবা টেকনিক্যাল ডিরেক্টর করে, তাঁর অসুবিধা নেই।
শোনা যাচ্ছে, তাঁর মনের ইচ্ছে মারিওকেও নাকি জানিয়ে দিয়েছেন রেনেডি। ফলে বৃহস্পতিবার তিনি দলের সঙ্গে অনুশীলনে গেলেও, মারিওর সহকারি হিসেবে অনুশীলেন যোগ দেবেন না। পরামর্শদাতা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।এদিকে, কেন দলের সিইও শিবাজি সমাদ্দার গোয়ায় টিম হোটেলে থেকেও পেরোসেভিচের শাস্তি কমানোর মিটিংয়ে উপস্থিত থাকেননি, তা ফুটবলাররা নিজেদের গ্রুপে প্রশ্ন তুললে, রেগে ফুটবলারদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে বেরিয়ে যান শিবাজি সমাদ্দার।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে