২৬ কার্তিক  ১৪২৬  বুধবার ১৩ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মহিলাদের বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে নতুন রেকর্ড গড়লেন ১৯ বছর বয়সি মঞ্জু রানি। প্রথমবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে নেমেই রূপোর পদক নিয়ে ফিরছেন সোনার মেয়ে। মেরি কমের পরাজয়ের পর দেশকে সোনা এনে দেওয়ার স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন ১৯ বছরের মঞ্জু। কিন্তু, ফাইনালে চূড়ান্ত লড়াই করেও জয় এনে দিতে পারলেন না তিনি। বিশ্ব চ্যাম্পিনশিপে রূপোর পদক নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হল মঞ্জুকে।

[আরও পড়ুন: বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ইতিহাস, সর্বকালের সেরা বক্সার হলেন মেরি কম!]

শনিবার ৪৮ কেজি বিভাগের সেমিফাইনালে থাইল্যান্ডের চুথামাত রকসাতকে ৪-১-এ হারিয়ে মঞ্জু ফাইনালে পৌঁছেছিলেন । রবিবার ফাইনালে রাশিয়ান বক্সার একতারিনা পাল্টসেভার বিরুদ্ধে নামেন তিনি। রাশিয়ার প্রতিদ্বন্দ্বীকে কড়া লড়াই দেন তিনি। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে ভারতীয় বক্সার ৪-১ পয়েন্টের ব্যবধানে পরাস্ত হন। হারের ফলে রুপো পেয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হল হরিয়ানার বক্সারকে। এর আগে ২০০১ সালে মেরি কম প্রথমবার বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে নেমেই রুপো জিতেছিলেন। ১৮ বছর বাদে সেই কীর্তি আবারও অর্জন করলেন মঞ্জু।
মঞ্জুর এই কীর্তির মাহাত্ম্য আরও বেড়ে যায় তাঁর পরিবারের আর্থিক অবস্থার কথা জানলে। মাত্র ১২ বছর বয়সে বাবাকে হারিয়েছেন তিনি। তাঁর বাবা ভীমসেন সিং মারা যান ক্যানসারে। তারপর থেকে সংসারে চরম অনটন। সেই অভাবের মধ্যেও কষ্ট করে বক্সিং চালিয়ে গিয়েছেন তিনি। ১৯ বছরের এই মেয়েটির এবার লক্ষ্য অলিম্পিক। মঞ্জু পদক জেতায় ভারত পদক তালিকাই পুরনো রেকর্ড টপকে গেল। বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপে ভারত একটি রুপো ও তিনটি ব্রোঞ্জ জিতে অভিযান শেষ করল। 

[আরও পড়ুন: বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে হার দ্যুতির, টোকিও অলিম্পিকের স্বপ্নভঙ্গ ভারতীয় স্প্রিন্টারের]

এর আগে মেরি কম ৫১ কেজি বিভাগের সেমিফাইনালে পরাজিত হন। সেমিফাইনালে তুরস্কের বুসেনাজ চাকিরগ্লুর কাছে পরাজিত হন তিনি। তবে, সেমিফাইনালে হারলেও নয়া রেকর্ড গড়েছেন তিনি। প্রথম বক্সার হিসেবে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ৮টি পদকের মালিক হন তিনি। অনেকেই বলছেন, মঞ্জুর মধ্যে মেরি কমের ছায়া দেখা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং