১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

তিন তালাকের বিরুদ্ধে সরব মুসলিম নেত্রীরা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 17, 2016 11:25 am|    Updated: October 17, 2016 11:25 am

As Muslim bodies stand against Law Commission proposal, women leaders oppose triple talaq

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিন তালাক প্রথার বিরুদ্ধে এবার সরব হলেন মুসলিম নেত্রী এবং সমাজকর্মীরাও৷ প্রাক্তন কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু বিষয়ক মন্ত্রী নাজমা হেপতুল্লা ছাড়াও এই তালিকায় উল্লেখযোগ্য নাম হল সুভাষিণী আলি ও শবনম হাশমি৷ একদিকে যেমন বাম নেত্রী সুভাষিণী এবং সমাজকর্মী শবনম তিন তালাক প্রথার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে এই প্রথা তুলে দেওয়ার দাবিতে সরব হয়েছেন, অন্যদিকে তিন তালাক নিয়ে কেন্দ্রের অবস্থান সম্পর্কে মুখ না খুললেও হেপতুল্লা বলেছেন, “তিন তালাক প্রথা ইসলামকে সঠিকভাবে পেশ করে না৷ এর ফলে ইসলামের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হচ্ছে৷ যাঁরা এই প্রথার পালন করছেন বা এর হয়ে সওয়াল করছেন, তাঁদের কোনও অধিকার নেই এভাবে ইসলামকে কলঙ্কিত করার৷” প্রসঙ্গত, অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ডের বিরুদ্ধে মুসলিম সম্প্রদায়ের একাংশের মহিলারা আন্দোলন আগেই আরও তীব্র করছেন৷ ‘তিন তালাক’ প্রথার বাস্তবতা সংক্রান্ত জনমত গঠনের জন্য ল’ কমিশনের তৈরি করা প্রশ্নমালা বয়কটের ব্যাপারে তাঁদের অভিযোগ ছিল, বোর্ড বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি করছে৷

ঘটনাচক্রে, চলতি মাসের শুরুতেই কেন্দ্র শীর্ষ আদালতে হলফনামা পেশ করে জানিয়েছিল, ধর্মনিরপেক্ষ দেশে তিন তালাক প্রথার কোনও স্থান নেই৷ এরপরই তাতে তীব্র আপত্তি প্রকাশ করেছিল অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল’ বোর্ড৷ এআইএমপিএলবি-সহ কিছু মুসলিম সংগঠনের তরফে তখন জানানো হয়েছিল যে, এ নিয়ে ল’ কমিশনের কার্যকলাপ তারা বয়কট করবে৷ পাশাপাশি মোদি সরকারের বিরুদ্ধে তাদের ব্যক্তিগত আইন-কানুনে হস্তক্ষেপ করারও অভিযোগ জানিয়েছিল৷ এই গোটা ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে মণিপুরের গভর্নর নাজমা হেপতুল্লা কোনও মন্তব্য করেননি৷ শুধু বলেছেন, “তালাক…তালাক…তালাক…বলেই যাঁরা বিচ্ছেদ ঘোষণা করছেন, তাঁরা কিন্তু ইসলামকে যথাযথভাবে তুলে ধরছেন না৷ যাঁরা এভাবে ইসলামের অপব্যবহার করছেন, মহিলাদের প্রতি অন্যায় করছেন, তাঁরা কিন্তু অপরাধ করছেন৷ নিগ্রহ, অবিচার বা অন্য কোনও কারণে মহিলারাও বিবাহ বিচ্ছেদ চাইতে পারেন, কিন্তু এভাবে তাঁরা কখনও বলেন না৷ একবার বললেই বিচ্ছেদ হয় না৷ তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে পদ্ধতিটি চলে৷ এবং তা-ও সঠিক নিয়ম-নীতি মেনে৷ যেভাবে কেউ কেউ একবারেই তা করছেন, সেটা অ-ইসলামিক৷” বাম নেত্রী এবং প্রাক্তন সাংসদ সুভাষিণী আলির মতে, “বিবাহ বিচ্ছেদ ঘোষণার এই পদ্ধতি (তিন তালাক) ত্রুটিপূর্ণ৷ এর বদল প্রয়োজন৷ মুসলিম মৌলবিদের চিন্তাভাবনা বদলানো প্রয়োজন৷ তবে কেন্দ্রের হলফনামা নিয়ে আমার কোনও সমস্যা নেই৷” এদিকে, সমাজকর্মী শবনম হাশমি বলেছেন, “তিন তালাক প্রথা অবিলম্বে উচ্ছেদ করা প্রয়োজন৷ কোনও সভ্য সমাজে এই অসাম্য নেই৷” কংগ্রেসের মুখপাত্র শোভা ওঝার মত, বিষয়টি নিয়ে যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার, নেবে সুপ্রিম কোর্ট৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে